X
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১

টেকনাফে দুই বাংলাদেশিকে অপহরণ করেছে ‘রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা’

কক্সবাজার প্রতিনিধি
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৩২আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৩২

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের মরিচ্যাঘোনা এলাকা থেকে দুই বাংলাদেশিকে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা অপহরণ করেছে বলে জানা গেছে। একই ঘটনায় সন্ত্রাসীদের হাত থেকে দুজন পালিয়ে এসেছেন। এর মধ্যে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মরিচ্যাঘোনা এলাকা থেকে ওই চার জনকে অপহরণ করেছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীদের কবল থেকে পালিয়ে আসা দুজনের বরাত দিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হ্নীলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী।

তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মরিচ্যাঘোনা থেকে হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম পানখালী এলাকার নজির আহমদ (৫০), তার ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৭), একই এলাকার মো. শাহজাহান ও মো. মেহেদীকে অপহরণ করেছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। এর মধ্যে শাহজাহান ও মেহেদী পালিয়ে রক্ষা পেয়েছেন। তবে শাহজাহানকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পালানোর সময় তাকে গুলি করা হয়।’

শাহজাহান ও মেহেদীর বরাত দিয়ে চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘সকালে মরিচ্যাঘোনা এলাকায় শসা ক্ষেতে কাজ করছিলেন নজির আহমদ, সাদ্দাম হোসেন, শাহজাহান ও মেহেদীসহ কয়েকজন। হঠাৎ একদল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে চার জনকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।তাদের নিয়ে যাওয়ার পথে পাহাড়ি এলাকায় আরেক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সঙ্গে অপহরণকারীদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এ সুযোগে পালিয়ে আসেন শাহজাহান ও মেহেদী। এ সময় অপহরণকারীদের গুলিতে শাহজাহান আহত হন। শাহজাহানকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। বিষয়টি টেকনাফ থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।’

টেকনাফ থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ‘স্থানীয়দের কাছ থেকে শুনেছি দুজনকে অপহরণ করা হয়েছে। অপহরণের ঘটনায় কারা জড়িত এ ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছি। অপহৃতদের উদ্ধারে অভিযান চালানো হবে।’

/এএম/
সম্পর্কিত
পাকিস্তানে বন্দুক হামলায় নিহত ৯
ঈদের দিন থেকে বেড়েছে গোলার শব্দরাখাইনে যুদ্ধ: সীমান্তে আতঙ্ক কাটবে কবে?
সুদের টাকা না পেয়ে শিশুকে অপহরণের পর হত্যা, যুবক গ্রেফতার
সর্বশেষ খবর
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
ছাগলে গাছ খাওয়ায় দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
ছাগলে গাছ খাওয়ায় দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
সর্বাধিক পঠিত
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে