X
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেলো যুবকের

কক্সবাজার প্রতিনিধি
০৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:৪০আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:৪০

কক্সবাজারে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে মিজানুর রহমান (২৫) নামে অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছেন। শনিবার (০৭ জানুয়ারি) রাত ১০টায় শহরের সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশন সংলগ্ন প্রধান সড়কের আমগাছ তলায় এই ঘটনা ঘটে।

মিজানুর রহমান মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের খোন্দকার পাড়ার আনসার উল্লাহর ছেলে। তিনি পাঁচ বছর ধরে কক্সবাজার শহরে ভাড়ায়অ অটোরিকশা চালিয়ে আসছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী মোহাম্মদ হোসেন জানান, রাতে মিজান অটোরিকশা নিয়ে বাস টার্মিনালের গ্যারেজে ফিরছিলেন। রাত ১০টায় বিজিবি ক্যাম্প আমগাছতলা এলাকায় পৌঁছালে একদল ছিনতাইকারী তার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তিনি তা না দিতে চাইলে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে চিৎকার শুরু করেন। এ সময় ছিনতাইকারীরা তার পেটে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

অটোরিকশাচালক নুরুল করিম বলেন, ‘সন্ধ্যার পর এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। মাস খানেক আগে একজন ইজিবাইকের চালককে হাত-পা বেঁধে তার গাড়ি নিয়ে গেছে। তবে তিনি ভয়ে মামলা করতে চাচ্ছেন না। কারণ, থানায় অভিযোগ করার পর ছিনতাইকারীরা উল্টো নানাভাবে হয়রানি করে। তারা প্রভাবশালী একজন জনপ্রতিনিধির আশ্রয়ে থাকে।’

আরেকজন চালক আমির হোসেন বলেন, ‘সন্ধ্যা হলেই এ সড়কটি ছিনতাইকারীদের দখলে চলে যায়। সড়কটির পাশে তেমন জনবসতি নেই। পুলিশও নিয়মিত টহল দেয় না। ফলে দুর্বৃত্তরা নির্বিঘ্নে ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। তবে এ বিষয়ে পুলিশের তেমন নজরদারি নেই। হয়রানির ভয়ে ভুক্তভোগীরাও পুলিশকে জানাতে চায় না।’

স্থানীয়রা জানান, এলাকাটিতে প্রায় সময় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। পথরোধ করে অগ্নেয়াস্ত্র, চাপাতি ও ছুরি গলায় ধরে ভয় দেখিয়ে সব নিয়ে যায়। আবার সেসব অস্ত্র দিয়ে তারা হামলাও করে বসে। একটু অন্ধকার হলেই এই এলাকার ছোট-বড় সবাই ভয়ে থাকে।

কক্সবাজার শহর ফুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মহিউর রহমান জানান, স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় মিজানুরকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

/এসএইচ/
সম্পর্কিত
কাওরান বাজারে ৭১ টিভির গাড়িতে ছিনতাইকারীদের হামলা
বাড়তি ভাড়া চাওয়ায় যাত্রীদের মারধরে চালক-হেলপারের মৃত্যু
লালবাগে চাকুর ভয় দেখিয়ে ছিনতাইকালে গ্রেফতার ৪
সর্বশেষ খবর
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
ছাগলে গাছ খাওয়ায় দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
ছাগলে গাছ খাওয়ায় দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
সর্বাধিক পঠিত
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে