X
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
২ বৈশাখ ১৪৩১

আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে হামলা, ৯ বছরেও শুরু হয়নি মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ

তৈয়ব আলী সরকার, নীলফামারী
১৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩:৫৫আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩:৫৫

নীলফামারীতে ২০১৩ সালে সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী ও বর্তমান সদর আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে হামলার ৯ বছর পার হতে চলছে। এ ঘটনায় করা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ এখনও শুরু হয়নি।

ওই হামলায় আওয়ামী লীগের চার নেতাকর্মী নিহত হন। এ ঘটনায় নীলফামারী সদর থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাবুল আকতার বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন। মামলায় সদর উপজেলার লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে প্রধান আসামি ও ১৪ জনের নাম উল্লেখসহ প্রায় দেড় হাজার অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়। তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১১ মার্চ ২০৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন সদর থানার উপপরিদর্শক মো. মোস্তাফিজার রহমান। মামলাটি জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন। তবে এখনও সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়নি।

নিহতদের স্বজনরা বলেছেন, আলোচিত ওই হত্যার ঘটনার ৯ বছর পেরিয়ে গেলেও মামলার তেমন অগ্রগতি নেই। আসামিরা আদালত থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। আজও শুরু হয়নি বিচারকাজ।

স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলছেন, ২০১৩ সালের ১৪ ডিসেম্বর জামায়াত-শিবিরের সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত নীলফামারীর বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন শেষে শহরে ফিরছিলেন আসাদুজ্জামান নূর। রামগঞ্জ হাট এলাকায় তার গাড়িবহরে হামলা চালান বিএনপি-জামায়াতের কর্মীরা। এ সময় আসাদুজ্জামান নূর রক্ষা পান। কিন্তু আওয়ামী লীগের চার নেতাকর্মী নিহত হন। ওই ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করে। রাশেদ চৌধুরী নামে নিহত এক ব্যক্তির আত্মীয় আরও একটি মামলা করেন। দুটি মামলা একসঙ্গে তদন্ত করে পুলিশ। ঘটনার পর বিভিন্ন সময়ে বিএনপি-জামায়াতের ৬০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পরে অনেকে জামিন পান।

নিহতরা হলেন সদরের টুপামারী ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী, ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা ফরহাদ হোসেন শাহ ও তার ছোট ভাই মুরাদ হোসেন শাহ ও আওয়ামী লীগ কর্মী লিটন হোসেন লেবু।

এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাশেম শাহ বলেন, ‌‘প্রতি বছর আমরা শোকসভা পালন করি। প্রতিবাদ ও বিচারের দাবি জানাই। কিন্তু বিচার কবে হবে তা জানি না।’ 

হামলার ঘটনায় মামলা করা সদর থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাবুল আকতার বর্তমানে চট্টগ্রামে পিবিআইতে কর্মরত। এ বিষয়ে মুঠোফোনে তিনি বলেন, ‘২০১৩ সালের ১৪ ডিসেম্বর আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে হামলা চালিয়ে আওয়ামী লীগের চার নেতাকর্মীকে হত্যা করেছিল জামায়াত-বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় মামলা হয়েছিল। তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১১ মার্চ ২০৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। মামলাটি জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন। তবে এখনও শুরু হয়নি সাক্ষ্যগ্রহণ।’

মামলার বিচারকাজের বিষয়ে জানতে চাইলে নীলফামারী জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অক্ষয় কুমার রায় বলেন, ‘মামলাটি অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে চার্জ গঠনের অপেক্ষায় নয় বছর ধরে আছে। ২০১৭ সালের ৩০ মে মামলাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে এই আদালতে আসে। আদালতের বিচারক দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকায় বিচারকাজের তেমন অগ্রগতি হয়নি। বর্তমানে সমস্যা কেটে গেছে। আগামী বছরের চার জানুয়ারি মামলার শুনানি হওয়ার তারিখ ধার্য করা হয়েছে।’

এদিকে, বিচার দাবিতে বুধবার বিকালে রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দোয়া মাহফিল ও শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই কর্মসূচির আয়োজন করে সদরের টুপামারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ। এর আগে নিহতদের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা একরামূল হক শাহ। এতে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মমতাজুল হক, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুজার রহমান, সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান ও টুপামারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

মামলার বিচারকাজ শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে একরামূল হক শাহ বলেন, ‘আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। বছরের পর বছর বিচারের আশায় আদালতের দিকে তাকিয়ে আছি। দ্রুত বিচারকাজ শেষ করার দাবি জানাই।’

/এএম/
সম্পর্কিত
চট্টগ্রামে চিকিৎসকের ওপর হামলায় বিএমএ’র প্রতিবাদ
রমনায় বোমা হামলা মামলা: আপিল ও ডেথ রেফারেন্স শুনানি কবে?
সাক্ষীতেই আটকে আছে বর্ষবরণে যৌন হয়রানি মামলার বিচার
সর্বশেষ খবর
ইরানে পাল্টা হামলা না চালাতে ইসরায়েলকে ক্যামেরনের আহ্বান
ইরানে পাল্টা হামলা না চালাতে ইসরায়েলকে ক্যামেরনের আহ্বান
আগুনে পুড়লো তেলসহ ট্যাংকলরি, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ
আগুনে পুড়লো তেলসহ ট্যাংকলরি, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডারে দগ্ধ আরও একজনের মৃত্যু
ভাসানটেকে গ্যাস সিলিন্ডারে দগ্ধ আরও একজনের মৃত্যু
সর্বাধিক পঠিত
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল