X
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪
২১ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ না করে রাজপথ ছাড়বেন না শিক্ষকরা

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৯ জুলাই ২০২৩, ২০:৪৫আপডেট : ১৯ জুলাই ২০২৩, ২০:৪৫

মাধ্যমিক শিক্ষাকে জাতীয়করণের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচিতে থাকা বেসরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বলেছেন, তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ৫ মিনিট সাক্ষাতের সুযোগ চান। এই সুযোগ না দেওয়া হলে তারা রাজপথ ছাড়বেন না। এ তথ্য জানিয়েছেন, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির (বিটিএ) সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার আহমেদ।

মাধ্যমিক শিক্ষাকে জাতীয়করণের দাবিতে গত বুধবার (১১ জুলাই) থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছেন বেসরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। বুধবার (১৯ জুলাই) অবস্থান কর্মসূচির নবম দিনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির (বিটিএ) নেতাদের। বৈঠকে দীপু মনি তাদের জানিয়েছেন, নির্বাচনের আগে জাতীয়করণ সম্ভব হবে না। এ সময় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ নিয়ে দুটি কমিটি গঠনের কথা জানান তিনি।

কিন্তু এই আশ্বাস মানতে রাজি নন বিটিএ'র নেতাকর্মীরা। তারা বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঘোষণা করেন— প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে অন্তত ৫ মিনিট সাক্ষাতের সুযোগ না দেওয়া হলে তারা রাজপথ ছাড়বেন না। প্রয়োজনে ঝড়-বৃষ্টি, পুলিশের আঘাত সবকিছুই তারা মেনে নিতে রাজি আছেন।  বিটিএ'র সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার আহমেদ এ তথ্য জানান।

তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী আমাদের ডেকে নেওয়ার পরের দাবিগুলো শুনেন। সেখানে আরও শিক্ষক সংগঠনের নেতাকর্মীরা ছিলেন। তারা কিছু বলেননি। কিন্তু স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের নেতারা বলেছেন, এখানে আমরা যারা আন্দোলন করছি, তারা নাকি স্বাধীনতার বিপক্ষের লোক। আমরা আজকের অবস্থান কর্মসূচি থেকে তাদের ধিক্কার জানাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদেরকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতক্ষণ না পর্যন্ত ৫ মিনিট সময় দেবেন, ততক্ষণ আমরা রাজপথ থেকে ঘরে ফিরে যাবো না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের অভিভাবক। আপনি যতদিন আমাদের এই রাজপথে রাখবেন, আমরা ততদিন এই রাজপথে থাকবো। আপনি পাঁচ মিনিট সময় না দেওয়া পর্যন্ত যদি আমাদের রক্ত ঝরে, তবুও আমরা রাজপথ থেকে যাবো না।’

/এএজে/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
রংপুরে বাণিজ্য মেলা বন্ধের দাবিতে ধর্মঘটের ডাক
মানবাধিকার লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িত রাষ্ট্রগুলোই জলবায়ু সংকটের জন্য দায়ী
ভিন্নমতের নামে দেশের বিরোধিতা সহ্য করা হবে না: শেখ পরশ
সর্বশেষ খবর
ওয়ার্ল্ড পুলিশ সামিটে যোগ দিতে দুবাই গেলেন আইজিপি
ওয়ার্ল্ড পুলিশ সামিটে যোগ দিতে দুবাই গেলেন আইজিপি
আরও ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত
আরও ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত
দেশের দুর্গম দ্বীপকে ‘স্মার্ট আইল্যান্ড’ করতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া
দেশের দুর্গম দ্বীপকে ‘স্মার্ট আইল্যান্ড’ করতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া
যে কারণে নিভছে না চিনিকলের আগুন
যে কারণে নিভছে না চিনিকলের আগুন
সর্বাধিক পঠিত
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের
বাংলাদেশ ভ্রমণ শেষে ভারতে গিয়েই সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ব্রাজিলিয়ান তরুণী
বাংলাদেশ ভ্রমণ শেষে ভারতে গিয়েই সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ব্রাজিলিয়ান তরুণী
ইউক্রেন অবশ্যই রাশিয়ার অংশ: পুতিন মিত্র
ইউক্রেন অবশ্যই রাশিয়ার অংশ: পুতিন মিত্র
ভাইভা চলাকালে মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর পায়ে গুলি করলেন শিক্ষক
ভাইভা চলাকালে মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর পায়ে গুলি করলেন শিক্ষক
ছাত্রকে কেন গুলি করলেন মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষক?
ছাত্রকে কেন গুলি করলেন মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষক?