X
শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪
১০ শ্রাবণ ১৪৩১

কংগ্রেসকে যে বিষয়ে সতর্ক করলো হোয়াইট হাউজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:০১আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:০১

ইউক্রেনে কয়েক বিলিয়ন ডলার সামরিক ও অর্থনৈতিক সহায়তা অনুমোদনের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে মার্কিন কংগ্রেসকে একটি জরুরি সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে হোয়াইট হাউজ। সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বার্তাটিতে বলা হয়েছে, এ সহায়তা ছাড়া রুশ আক্রমণ থেকে কিয়েভের আত্মরক্ষার প্রচেষ্টা থেমে যেতে পারে। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি এ খবর জানিয়েছে।

প্রতিনিধি পরিষদ এবং সিনেট নেতাদের কাছে পাঠানো প্রকাশ্য এক চিঠিতে হোয়াইট হাউজের অফিস অব ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড বাজেট-এর ডিরেক্টর শালান্দা ইয়ং সতর্ক করে বলেছেন, ইউক্রেনকে অস্ত্র ও অন্যান্য সহায়তা পাঠানোর জন্য বছরের শেষ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের তহবিল শেষ হয়ে যাবে, যা  যুদ্ধক্ষেত্রে ইউক্রেনকে ‘হাঁটু গেড়ে বসতে’ বাধ্য করবে।

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনের অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের বরাদ্দকৃত অর্থ ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। ইউক্রেনের অর্থনীতি যদি ভেঙে পড়ে, তবে তারা লড়াই চালিয়ে যেতে পারবে না, একেবারে ফুলস্টপ। আমাদের তহবিল শেষ এবং সময়ও প্রায় শেষ।’

ইউক্রেন, ইসরায়েল এবং অন্যান্য সহায়তার জন্য প্রায় ১০ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের সহায়তা প্যাকেজ চেয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তবে তার এ আবেদন ক্যাপিটল হিলে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে। সেখানে ইউক্রেনের জন্য সহায়তার পরিমাণ নিয়ে ক্রমবর্ধমান সংশয় দেখা দিচ্ছে। এমনকি এ অর্থায়নে সমর্থন দেওয়া রিপাবলিকানরাও এ সহায়তার শর্ত হিসেবে অভিবাসীদের প্রবাহ বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত নীতি পরিবর্তন করার ওপর জোর দিচ্ছেন।

ইতোমধ্যে রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে গাজায় সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের সঙ্গে যুদ্ধরত ইসরায়েলের জন্য একটি স্বতন্ত্র সহায়তা প্যাকেজ পাস করেছে। তবে হোয়াইট হাউজ সবগুলো বিল পাসের ওপর জোর দিচ্ছে।

ইউক্রেনকে সহায়তার জন্য ইতোমধ্যে ১১ হাজার ১০০ কোটি বরাদ্দ করেছে কংগ্রেস, যার মধ্যে ৬ হাজার ৭০০ কোটি সামরিক ক্রয় তহবিল, দুই হাজার ৭০০ কোটি অর্থনৈতিক ও বেসামরিক সহায়তা এবং এক হাজার বিলিয়ন ডলার মানবিক সহায়তা রয়েছে।

ইয়াং বলেছেন, সামরিক তহবিলের প্রায় ৩ শতাংশ ছাড়া সব অর্থ নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে শেষ হয়ে গেছে।

বাইডেন প্রশাসন বলেছে, কংগ্রেস আরও তহবিল অনুমোদন না করায় সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে কিয়েভকে সামরিক সহায়তার গতি কমিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ইয়াং বলেন, ‘এই লড়াইয়ে ইউক্রেনকে সমর্থনের জন্য আমাদের অর্থের সংকট রয়েছে। এটি আগামী বছরের সমস্যা নয়।  রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে গণতান্ত্রিক ইউক্রেনকে লড়াইয়ে সাহায্য করার এখনই সময়। কংগ্রেসের কাজ করার সময় এসেছে।’

২৯ নভেম্বরের ক্যাপিটল হিলে শীর্ষস্থানীয় হাউজ ও সিনেট নেতাদের সহায়তার প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে ব্রিফিংয়ের পর এই চিঠিটি প্রকাশ করা হলো। ব্রিফিংয়ে প্রতিরক্ষা ও জাতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা ‘শীর্ষ চার’ কংগ্রেস নেতাদের কাছে বিষয়টি তুলে ধরেন। কেননা, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রস্তাবিত ১০ হাজার ৬০০ বিলিয়ন তহবিল প্যাকেজ নিয়ে কংগ্রেসে বিতর্ক চলছে। যার মধ্যে ইউক্রেনের জন্য ছয় হাজার একশ’ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ রয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত সুরক্ষা নীতিতে পরিবর্তনের জন্য রিপাবলিকানদের দাবির মুখে আটকে আছে তা।

সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা ও ডেমোক্র্যাট সিনেটর চাক শুমার একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘তারা স্পষ্ট করে জানিয়েছে ইউক্রেনের শিগগিরই সহযোগিতার প্রয়োজন এবং আমাদের সামরিক বাহিনীরও দ্রুত তা প্রয়োজন।’

/এএকে/
সম্পর্কিত
টাইফুন গেইমি তাইওয়ান ও ফিলিপাইনের পর আঘাত হানলো চীনে
আলাস্কার কাছে চীন ও রাশিয়ার প্রথম যৌথ টহল
মার্কিন কংগ্রেসে ভাষণযুদ্ধোত্তর গাজার জন্য নেতানিয়াহু’র অস্পষ্ট রূপরেখা
সর্বশেষ খবর
এক দফা আন্দোলন সফলের আহ্বান ছাত্রদলের
এক দফা আন্দোলন সফলের আহ্বান ছাত্রদলের
শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে জাবি শিক্ষকের পদত্যাগ
শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে জাবি শিক্ষকের পদত্যাগ
লাইফ সাপোর্টে হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল
লাইফ সাপোর্টে হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল
ব্যর্থতার দায়ে ঢাকা-১৩ আসনের আ.লীগের ২৭ কমিটি বাতিল
ব্যর্থতার দায়ে ঢাকা-১৩ আসনের আ.লীগের ২৭ কমিটি বাতিল
সর্বাধিক পঠিত
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
মারা গেলেন ব্যান্ড তারকা শাফিন আহমেদ
মারা গেলেন ব্যান্ড তারকা শাফিন আহমেদ
যা ঘটেছিল নরসিংদী কারাগারে, যেভাবে পালালেন ৮২৬ বন্দি
যা ঘটেছিল নরসিংদী কারাগারে, যেভাবে পালালেন ৮২৬ বন্দি
বাংলাদেশে সাম্প্রতিক অস্থিরতা প্রসঙ্গে যা বলছে ভারত
বাংলাদেশে সাম্প্রতিক অস্থিরতা প্রসঙ্গে যা বলছে ভারত
এখনও আঁতকে ওঠেন যাত্রাবাড়ী, কাজলা ও শনির আখড়ার বাসিন্দারা
এখনও আঁতকে ওঠেন যাত্রাবাড়ী, কাজলা ও শনির আখড়ার বাসিন্দারা