যুক্তরাষ্ট্র-ইরান ড্রোন উত্তেজনা: আমিরাতের দূতকে তলব করলো তেহরান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:২৩, জুন ২২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:২৭, জুন ২২, ২০১৯

ড্রোন উড্ডয়নের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে নিজেদের ভূখণ্ড ব্যবহার করতে দেওয়ায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে ইরান। তেহরানে নিযুক্ত আমিরাতের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সকে শনিবার (২২ জুন) ইরানি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে আগ্রাসী তৎপরতায় সহযোগিতার প্রতিবাদ জানানো হয়।

আমিরাত ও ইরানের পতাকাওয়াশিংটন-তেহরান ধারাবাহিক উত্তেজনা চলমান থাকা অবস্থায় ক’দিন আগে মধ্যপ্রাচ্যে আরও ১ হাজার মার্কিন সেনা পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এরইমধ্যে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়,দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের হরমোজগান রাজ্যের কুহমোবারক এলাকায় ‘আরকিউ-৪ গ্লোবাল হক’ নামের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে ইরানের সেনাবাহিনী। এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানে সামরিক অভিযানের নির্দেশ দিয়েও তা প্রত্যাহার করে নেন। জানান, যুদ্ধবিরোধী মনোভাব থেকে তিনি আলোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শনিবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আমিরাতের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সকে তলব করে। তাকে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের যে ড্রোনটি ইরানের আকাশসীমায় ভূপাতিত করা হয়েছে তা সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে উড়ে এসে ইরানের সীমানায় প্রবেশ করেছিল। ইরানের পানি, স্থল ও আকাশসীমা লঙ্ঘনের জন্য বিজাতীয় বাহিনীকে সহযোগিতা করার বিষয়টি কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না বলে ক্ষোভ জানানো হয়।

এর আগে শুক্রবার (২০ জুন) ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করায় সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতকেও ডেকে এনে প্রতিবাদ জানায় তেহরান। ইরানের আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ মার্কিন সরকারকে জানাতে বলেছে তেহরান। তেহরানে নিযুক্ত সুইস দূতাবাস ইরানে মার্কিন স্বার্থ দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছে।

শুক্রবার (২১ জুন) ইরানের আইআরজিসি'র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিযাদেহ জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১৪ মিনিটে আরব আমিরাতের একটি সামরিক ঘাঁটি থেকে মার্কিন গোয়েন্দা ড্রোনটি আকাশে ওড়ে। এরপর দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে ভোর চারটায় ইরানের সীমানায় প্রবেশ করে। ড্রোনটিকে ভূপাতিত করার আগে কয়েকবার সতর্কবার্তা পাঠানো হয়। সে সতর্কবার্তা না মানায় ভোর চারটা পাঁচ মিনিটে সেটিকে আঘাত করা হয়।

/এফইউ/

লাইভ

টপ