সেই ‘গুপ্তচর’ কবুতর ফেরত চায় পাকিস্তানি মালিক

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৫০, মে ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:২৮, মে ২৮, ২০২০

কাশ্মিরে আটক হওয়া একটি কবুতর ফিরিয়ে দিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদিকে আহ্বান জানিয়েছেন এর পাকিস্তানি মালিক। ভারত সীমান্ত থেকে মাত্র চার কিলোমিটার দূরে বসবাস করা ওই ব্যক্তির দাবি ঈদ উদযাপন করতে নিজের কবুতর উড়িয়ে ছিলেন তিনি। তবে ভারতীয় পুলিশের দাবি, গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক কবুতরটির পায়ে একটি রিং রয়েছে। তাতে একটি কোড রয়েছে সেটির অর্থ উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।ভারতে আটক হওয়া সেই পাকিস্তানি কবুতর  

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের কাঠুয়া জেলার হিরানগর থানার পুলিশের হাতে সোমবার ‘সন্দেহভাজন’ কবুতরটি ধরা পড়ে। পরে এটিকে সীমান্তরক্ষী বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। পায়রাটির পায়ে একটি গোলাপি রঙ-এর কাপড়ের টুকরো ও ট্যাগ রয়েছে। ইতোমধ্যেই এটিকে ‘সন্দেহভাজন পাক গোয়েন্দা’ হিসেবে নথিভুক্ত করেছেন কর্মকর্তারা। এর তদন্তকাজও শুরু হয়েছে। সন্দেহভাজন পায়রাটিকে উঁচুতে খাঁচা করে নিরাপদে রাখা হয়েছে।

কবুতরটিকে নিজের বলে দাবি করা পাকিস্তানি মালিক বলছেন, এর পায়ে যে কোড রয়েছে তা মূলত তার ফোন নাম্বার। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন ওই ব্যক্তির নাম হাবিবুল্লাহ বলে জানিয়েছে। সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়েছে, তার বহু কবুতর রয়েছে। হাবিবুল্লাহ বলেন, কবুতর শান্তির প্রতীক আর ভারতের উচিত এই নিরীহ পাখিটিকে কোনও ধরণের লক্ষ্যবস্তু বানানো থেকে বিরত থাকা।

পারমাণবিক শক্তিধর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মির নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। কবুতর নিয়েও তাদের টানাপোড়েন নতুন নয়। ২০১৫ সালের মে মাসে সীমান্ত এলাকায় ১৪ বছর বয়সী এক ছেলে সাদা কবুতর দেখতে পাওয়ার পর সেটিকে আটক করে ভারত। ২০১৬ সালের অক্টোবরে আরেকটি কবুতর আটক করা হয়। সেটির পায়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে হুমকি দিয়ে লেখা নোট বাধা ছিল।

/জেজে/বিএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ