ঐতিহাসিক চুক্তি নবায়নের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন ও ভ্যাটিকান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:২৮, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩৪, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

বিশপ নিয়োগ দেওয়া সংক্রান্ত ঐতিহাসিক এক চুক্তি নবায়নের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন ও ভ্যাটিকান সিটি। পোপ ফ্রান্সিস এরইমধ্যে এ ব্যাপারে সম্মতি জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রকে উদ্ধৃত করে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, চুক্তিটি এখনও ‘পরীক্ষামূলক’ পর্যায়ে আছে। এর মেয়াদ আরও দুই বছর বাড়াতে আগামী মাসেই সমঝোতা চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে পারে চীন ও ভ্যাটিকান সিটি।

চীনে প্রায় ১ কোটি ২০ লাক ক্যাথলিকের বসবাস। দশকের পর দশক ধরে তারা সরকারি বিভিন্ন অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা বিভাজিত ছিল। কমিউনস্ট পার্টির মাধ্যমেই যাজক নির্বাচন করা হতো। দীর্ঘদিন ধরে আলোচনার পর ২০১৮ সালের ২২ সেপ্টেম্বর বেইজিং এর সঙ্গে একটি ‘অস্থায়ী’ চুক্তি করে ভ্যাটিকান। তবে তাদের মধ্যে শীতল সম্পর্ক চলতে  থাকায় এর মেয়াদ বাড়ানোজনিত আলোচনা সাময়িকভাবে থমকে পড়ে। চীনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল তাইওয়ানের সঙ্গে ভ্যাটিকানের সম্পর্কই এর কারণ। গত সপ্তাহে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ওয়েনবিন ইঙ্গিত করেছিলেন, ভ্যাটিকানের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক ক্রমাগত জোরালো হচ্ছে।  

এর মধ্যেই মঙ্গলবার এএফপি আভাস দিয়েছে অবশেষে চুক্তির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়েছে চীন ও ভ্যাটিকান।

এখন পর্যন্ত ঐতিহাসিক চুক্তিটির বিস্তারিত প্রকাশ না করা হলেও এর মুল বিষয় হলো-বিশপ নিয়োগের ক্ষেত্রে চীন ও ভ্যাটিকান দুই পক্ষেরই সম্মতির প্রয়োজন হবে। ২০১৮ সালে চুক্তি স্বাক্ষরের পর ১৮ জন চীনা বিশপকে স্বীকৃতি দেন পোপ ফ্রান্সিস। তাদেরকে আগে পোপের অনুমতি ছাড়াই চীন নিয়োগ দিয়েছিল। চুক্তিস্বাক্ষরের পর ফ্রান্সিসের অনুমতি নিয়ে দুই চীনা বিশপ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

/এফইউ/

লাইভ

টপ