X
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শ্রম অধিকার প্রতিষ্ঠায় মার্কিন ঘোষণায় উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২১ নভেম্বর ২০২৩, ২০:০৪আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২৩, ২০:২৬

শ্রম অধিকার প্রতিষ্ঠায় নতুন বৈশ্বিক উদ্যোগ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্থনি ব্লিনকেনের ঘোষণায় অস্বস্তি প্রকাশ করেছে তৈরি পোশাক শিল্প। কিন্তু ওই পদক্ষেপের সঙ্গে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এন্থনি ব্লিনকেনের ওই বক্তব্য ছিল এপেক সামিটে। এটি শুধু তৈরি পোশাক শিল্প বা টেক্সটাইল শিল্প বা বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক কোনও বৈঠকে নয়। এটি একটি বৈশ্বিক উদ্যোগ, যার মাধ্যমে তারা তাদের দূতাবাসগুলোর রাষ্ট্রদূতদের কাজ দিচ্ছেন বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে ইতোমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আমাদের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে একজন লেবার এটাশে নিয়োগ দিয়েছে। যেকোনও তথ্য সঠিকভাবে উপস্থাপিত না হলে কিছু ভ্রান্তি সৃষ্টি হয় এবং আমি মনে করি কোনোভাবেই বাংলাদেশের গার্মেন্ট শিল্পের এই পদক্ষেপের জন্য উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনও যুক্তিযুক্ত কারণ নেই।’

বাংলাদেশের পোশাক খাতের প্রতিযোগী দেশগুলোর কোথাও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এতটা সুবিধা পায় না, এতটা সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ পায় না, যেটি বাংলাদেশ করেছে, বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ‘শ্রম অধিকার লঙ্ঘনকারীদের’ বিরুদ্ধেও বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা, ভিসানীতি আরোপসহ নানা পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দিয়ে ‘মেমোরেন্ডাম অন অ্যাডভান্সিং ওয়ার্কার এমপাওয়ারমেন্ট, রাইটস অ্যান্ড হাই লেবার স্ট্যান্ডার্ডস গ্লোবালি’ শীর্ষক স্মারকে সই করেছেন। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন গত ১৬ নভেম্বর এক ঘোষণায় এই তথ্য জানান।

কল্পনা আক্তার

ব্লিনকেনের বক্তব্যে ‘যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কারণে কল্পনা আক্তার বেঁচে আছে’ এ ধরনের মন্তব্য করা হয়েছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই পরবর্তী আলোচনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে জিজ্ঞাসা করবো– যদি আমার স্মরণশক্তি ঠিক থাকে, কল্পনা আক্তার একবারই গ্রেফতার হয়েছিলেন ২০১০ সালে। তিনি একা নন। তার সঙ্গে একাধিক শ্রমিক নেতা চাকরি করা অবস্থায় আন্দোলন করতে গিয়ে গ্রেফতার হয়েছিলেন। পরবর্তীতে তাদের মামলাটি তুলে নেওয়া হয়।’

তিনি বলেন, ‘রানা প্লাজার পরে পশ্চিমা দেশের কিছু ক্রেতা যখন ক্ষতিপূরণ দিতে অস্বীকার করলো, তখন কল্পনা আক্তার ও আরও দুই-একজন মিলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবাদ করতে গিয়ে সেখানেই গ্রেফতার হয়েছিলেন।’

কল্পনা আক্তার যেটি বলেছেন যে আমাদের কাছ থেকে হুমকি অনুভব করেন, নাকি অন্য কারও কাছ থেকে– এই বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে আমরা জানতে চাইবো, বলেন প্রতিমন্ত্রী।

কল্পনা আক্তার খুব সফলতার সঙ্গে বাংলাদেশে শ্রম অধিকার নিশ্চিত করার জন্য একটি এনজিও প্রতিষ্ঠা করে তার নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ পুলিশের রেকর্ডে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রেকর্ডে– আমরা যতদূর খোঁজ নিয়ে দেখেছি, তিনি যে হুমকির মুখে আছেন, এটি বাংলাদেশের কাউকেই জানাননি। এটির সত্যতা কতটুকু আমরা জানতে চাইবো বলে তিনি জানান।

/এসএসজেড/এফএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
প্রত্যাবাসনই একমাত্র সমাধান: মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী
দ্বিপক্ষীয় নিরাপত্তা চুক্তি নিয়ে সৌদি যুবরাজের সঙ্গে সুলিভানের বৈঠক
গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদনির্বাচনে প্রভাব ফেলবে না মার্কিন শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
সর্বশেষ খবর
রাখাইনের বুথিডাউং শহর দখলে নিলো আরাকান আর্মি
রাখাইনের বুথিডাউং শহর দখলে নিলো আরাকান আর্মি
সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির নতুন উপাচার্য
সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির নতুন উপাচার্য
জাপানিদের স্বাস্থ্যকর এই ৭ অভ্যাসের কথা জানতেন?
জাপানিদের স্বাস্থ্যকর এই ৭ অভ্যাসের কথা জানতেন?
শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে: সালমান এফ রহমান
শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে: সালমান এফ রহমান
সর্বাধিক পঠিত
‘নীরব’ থাকবেন মামুনুল, শাপলা চত্বরের ঘটনা বিশ্লেষণের সিদ্ধান্ত
‘নীরব’ থাকবেন মামুনুল, শাপলা চত্বরের ঘটনা বিশ্লেষণের সিদ্ধান্ত
ভারতীয় পেঁয়াজে রফতানি মূল্য নির্ধারণ, বিপাকে আমদানিকারকরা
ভারতীয় পেঁয়াজে রফতানি মূল্য নির্ধারণ, বিপাকে আমদানিকারকরা
হিমায়িত মাংস আমদানিতে নীতিমালা হচ্ছে
হিমায়িত মাংস আমদানিতে নীতিমালা হচ্ছে
এনবিআর চেয়ারম্যানকে আদালত অবমাননার নোটিশ
এনবিআর চেয়ারম্যানকে আদালত অবমাননার নোটিশ
আগামী ৩ দিন হতে পারে বৃষ্টি, কমবে তাপপ্রবাহ
আগামী ৩ দিন হতে পারে বৃষ্টি, কমবে তাপপ্রবাহ