X
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
৪ বৈশাখ ১৪৩১

জাতীয় নির্বাচন নিয়ে অনেক চাপ ছিল: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৪ জানুয়ারি ২০২৪, ১৫:৪৬আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০২৪, ১৭:১৬

অনেক চাপের মধ্যেই দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে উল্লেখ করে নবনিযুক্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘নির্বাচন নিয়ে বহু চাপ... গভীর চাপ, মধ্যম চাপ— নানা ধরনের চাপ ছিল। নানা চাপ উৎরে নির্বাচন হয়ে গেছে। সুতরাং আমরা কারও কোনও চাপ কখনও অনুভব করি না। বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন পারসেপশন থাকে। আমরা সেগুলোকে ভ্যালু করি। তবে দিন শেষে সবাই আমরা একযোগে কাজ করবো।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়ে টানা চতুর্থবার সরকার গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। নতুন মন্ত্রিসভায় প্রথমবারের মতো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়ে রবিবার (১৪ জানুয়ারি) প্রথমবারের মতো দফতরে আসেন আগের মেয়াদের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।

নতুন সরকারের সঙ্গে সবাই কাজ করবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরাও সবার সহযোগিতা নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। ৫২ বছরের পথচলায় সবাই আমাদের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করেছে এবং সবার সহযোগিতায় স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে।’

নির্বাচন নিয়ে পশ্চিমা কয়েকটি দেশের নেতিবাচক মন্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন দেশের নানা পারসেপশন, ন্যারেটিভ থাকে। কিন্তু দিন শেষে সবাই একসঙ্গে কাজ করবো, এটাই হচ্ছে মূল বিষয়। সবাই আমাদের উন্নয়ন সহযোগী। সবাইকে সঙ্গে নিয়েই আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো। তবে সবার সঙ্গে বন্ধুত্বের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের কনসার্নগুলোকে আমরা মূল্য দেবো। আমরা কোনও চাপ অনুভব করছি না।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পূর্ব-পশ্চিম সবার সহযোগিতায় দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। গত ৫২ বছরে আমাদের যে অর্জন তাতে উন্নয়ন সহযোগীদের সহযোগিতা ছিল।’

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০০৯ সালে ছয় মাসের জন্য পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হিসেবে কাজ করেছেন ড. হাছান মাহমুদ।

/এসএসজেড/ইউএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
নেপাল ও ভুটান সফরে গেলেন পররাষ্ট্র সচিব
হাছান মাহমুদের সঙ্গে গ্রিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকঢাকায় গ্রিসের দূতাবাস স্থাপন ও জনশক্তি রফতানি বৃদ্ধির সম্ভাবনা
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
সর্বশেষ খবর
ভবন থেকে পড়ে চায়না নাগরিকের মৃত্যু
ভবন থেকে পড়ে চায়না নাগরিকের মৃত্যু
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ২ পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ২ পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত
মাদক ব্যবসায় বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে সিআইডি
মাদক ব্যবসায় বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে সিআইডি
বানিয়ে ফেলুন আনারসের রায়তা
বানিয়ে ফেলুন আনারসের রায়তা
সর্বাধিক পঠিত
ডিপ্লোমাধারীদের বিএসসির মর্যাদা দিতে কমিটি
ডিপ্লোমাধারীদের বিএসসির মর্যাদা দিতে কমিটি
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
রুশ হামলা ঠেকানোর ক্ষেপণাস্ত্র ফুরিয়ে গেছে: জেলেনস্কি
রুশ হামলা ঠেকানোর ক্ষেপণাস্ত্র ফুরিয়ে গেছে: জেলেনস্কি
আপনি কি টক্সিক প্যারেন্ট? বুঝে নিন এই ৫ লক্ষণে
আপনি কি টক্সিক প্যারেন্ট? বুঝে নিন এই ৫ লক্ষণে