X
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১১ ফাল্গুন ১৪৩০
বিএডিসি পর্ব-৩

ভুয়া বিল-ভাউচারের অর্থ আত্মসাৎ বিএডিসিতে

শাহেদ শফিক
০৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৩৬আপডেট : ০৯ জুলাই ২০২১, ১৮:৩৪

নানা অনিয়মের মধ্যে চলছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি)। এ নিয়ে বাংলা ট্রিবিউন-এর ধারাবাহিক প্রতিবেদনের তৃতীয় পর্ব থাকছে আজ।

সরকারি বিধিমালা অনুসরণ না করেই বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএডিসিসি) চলছে কেনাকাটা। মালামাল না কিনেও ভুয়া বিলের মাধ্যমে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা, প্রশাসনিক ও আর্থিক অনুমোদন না নিয়ে ব্যয় করা হয়েছে কয়েক লাখ টাকা। প্রতিষ্ঠানটির ২০১৮-১৯ অর্থবছরের হিসাব নিরীক্ষাকালে এ অনিয়ম পাওয়া গেছে। এ অবস্থায় ক্রয় প্রক্রিয়ায় জড়িতদের দায় নির্ধারণ করে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

নিরীক্ষা প্রতিবেদনে দেখা গেছে, গাবতলীতে বিএডিসি’র সিনিয়র সহকারী পরিচালকের (খামার) কার্যালয় থেকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৪টি কম্পিউটার ও ৪টি স্ক্যানার কেনা হয়। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা (পিপিআর) অনুযায়ী সংস্থাটির অধস্তন কোনও প্রতিষ্ঠানের চাহিদাপত্র না থাকা সত্ত্বেও এগুলো কেনা হয়। তাছাড়া কম্পিউটার ও স্ক্যানারের জন্য বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনাও পাওয়া যায়নি।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের দরপত্রে এক বছরের ওয়ারেন্টি প্রদানের কথা উল্লেখ থাকলেও ওয়ারেন্টির কাগজ ছিল না। ৪টি কম্পিউটার ও ৪টি স্ক্যানার ক্রয়ের দরপত্র আহবানের কথা বলা হলেও ঠিকাদারকে শুধু ৪টি কম্পিউটার বাবদ প্রায় তিন লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ৩০ জুন এই অর্থ পরিশোধ করা হয়।

টাঙ্গাইল কার্যালয়ের উপপরিচালক (পাটবীজ) ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা প্রণয়ন না করে কোটেশন প্রদানের অনুরোধ জ্ঞাপন (আরএফকিউ) পদ্ধতিতে এক লাখ ১০ হাজার টাকায় ১টি ফটোকপি মেশিন কেনেন। একই জেলার মধুপুর কার্যালয়ের উপপরিচালক (খামার) ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা প্রণয়ন না করে দরপত্র আহবান করে মেসার্স জেনারেল স্টোরকে ২০১৯ সালের ২৩ জুন ১৫টি ত্রিপল ক্রয় বাবদ ১ লাখ ২ হাজার টাকা পরিশোধ করেন। এ ছাড়া নলকূপ স্থাপন বাবদ ২০১৮ সালের ১৬ আগস্ট মেসার্স শ্রীকুমার নিয়োগীকে প্রায় ৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা পরিশোধ করেন। সব মিলিয়ে তিনি ক্রয় পরিকল্পনা ছাড়া ৪ লাখ ৯১ হাজার ৪৩০ টাকা পরিশোধ করেন।

একইভাবে মধুপুর বিএডিসি’র যুগ্ম-পরিচালক (বীপ্রকে) ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা প্রণয়ন না করে দুটি বিলের মাধ্যমে সহকারী পরিচালক ও যুগ্ম পরিচালকের আবাসিক ভবন মেরামত করেন। এতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স শ্রীকুমার নিয়োগীকে ১ লাখ ৯৯ হাজার ৬৭২ টাকা পরিশোধ করা হয়। বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনা প্রণয়ন না করে চারটি প্রতিষ্ঠানকে ১১ লাখ ১ হাজার ২২ টাকা পরিশোধ করেন। যা অনিয়মিত ব্যয় হিসেবে দেখছে নিরীক্ষা দফতর।

অপরদিকে একই অর্থবছরে প্রশাসনিক ও আর্থিক অনুমোদন ছাড়া এক লাখ ৫৮ হাজার ৪৭২ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। বিস্তারিত নিরীক্ষায় দেখা গেছে- গাবতলী কার্যালয়ের সিনিয়র সহকার পরিচালক (খামার) ২০১৯ সালের ২৩ জুলাই ১৫১০ নং স্বারকের মাধ্যমে ৪টি কম্পিউটার ক্রয়ের অনুমোদন দেন। তার পরিবর্তে ৪টি কম্পিউটার ও ৪টি স্ক্যানার ক্রয়ের দরপত্র আহবান করা হয়। এর এক সপ্তাহের মধ্যে ২৫০ নং বিলের মাধ্যমে মেসার্স এএম কম্পিউটারকে এসব ক্রয়ের বিল পরিশোধ করা হয়। ৪টি স্ক্যানারের জন্য প্রশাসনিক ও আর্থিক অনুমোদন না থাকা সত্ত্বেও মূল্য পরিশোধে প্রতিষ্ঠানের ৩২ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে অডিট অধিদফতর।

বিএডিসির গাবতলীর উপপরিচালকের (বীপ্রকে) কার্যালয় হতে ১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ১টি কম্পিউটার ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়। কম্পিউটারটি দরপত্র আহবানের মাধ্যমে কেনা হলেও তার সঙ্গে একটি স্ক্যানার ও একটি ইউপিএস কেনার ক্ষেত্রে প্রশাসনিক ও আর্থিক অনুমোদন নেওয়া হয়নি। এতে ক্ষতি হয়েছে ১৬ হাজার ২০০ টাকা।

একইভাবে যশোরের ঝুমঝুমপুর বীজ প্রক্রিয়াজাতকরণ কেন্দ্রের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের নিরীক্ষায় দেখা যায়- প্রকৃতভাবে ক্রয় না করে ভাউচরের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদের উপ-সহকারী পরিচালক এ কাজ করেছেন। ওই ভাউচারে প্রতিস্বাক্ষর ও কোনও স্টক এন্ট্রি দেওয়া হয়নি। যা গুরুতর আর্থিক অনিয়ম।

একইভাবে বিএডিসিসির চাঁদপুরের মতলব উপজেলার মেঘনা নদীর বোরোচরের বীজ উৎপাদন খামার স্থাপনের জন্য কারিগরি সম্ভাব্যতা যাচাই প্রকল্পে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিধি বহির্ভূতভাবে প্রায় দুই লাখ টাকার মালামাল কেনা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অনিয়মগুলোর সঙ্গে যারা জাড়িত তাদের এটা নিষ্পত্তি করতে হবে। তা না হলে প্রত্যেককেই ভুগতে হবে। যারা অনিয়ম করে গেছেন তারা এখন ভুগবেন। এ ধরনের অনিয়ম যাতে না হয় সেজন্য প্রতি মাসে মিটিং করে থাকি। এগুলো নিষ্পত্তি করার জন্যও কাজ করা হবে।’

/এফএ/
টাইমলাইন: বিএডিসিতে অনিয়ম
১৪ জুলাই ২০২১, ১২:৫৭
১৩ জুলাই ২০২১, ১১:০০
১২ জুলাই ২০২১, ১৫:০০
০৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৩৬
ভুয়া বিল-ভাউচারের অর্থ আত্মসাৎ বিএডিসিতে
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা ঢাকায়
সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা ঢাকায়
কেন্দ্রীয় কারাগারের বন্দির মৃত্যু
কেন্দ্রীয় কারাগারের বন্দির মৃত্যু
তরুণ প্রজন্মকে মননশীল হিসেবে গড়ে তুলতে বই পড়ার বিকল্প নেই: কাজী নাবিল
তরুণ প্রজন্মকে মননশীল হিসেবে গড়ে তুলতে বই পড়ার বিকল্প নেই: কাজী নাবিল
‘শিরোনামহীন’র নতুন গান: ফ্রান্স থেকে থাইল্যান্ড হয়ে ঢাকায়
‘শিরোনামহীন’র নতুন গান: ফ্রান্স থেকে থাইল্যান্ড হয়ে ঢাকায়
সর্বাধিক পঠিত
ভেজানো কিশমিশ ও এর পানি খেলে মিলবে এই ৮ উপকারিতা
ভেজানো কিশমিশ ও এর পানি খেলে মিলবে এই ৮ উপকারিতা
৪ উপায়ে ইতি ঘটতে পারে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের
৪ উপায়ে ইতি ঘটতে পারে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের
জিএম কাদের ও চুন্নুকে দায়িত্ব দিলেন রওশন!
জিএম কাদের ও চুন্নুকে দায়িত্ব দিলেন রওশন!
বাংলাদেশের কাস্টমস ফাঁকি দিয়ে চালান হওয়া সোনা ধরা পড়লো ভারতে
বাংলাদেশের কাস্টমস ফাঁকি দিয়ে চালান হওয়া সোনা ধরা পড়লো ভারতে
ফের ক্যানসার, সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন সাবিনা ইয়াসমিন
ফের ক্যানসার, সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন সাবিনা ইয়াসমিন