X
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪
১১ আষাঢ় ১৪৩১
৫৫ কেজি স্বর্ণ উধাও

নিরাপত্তার দুর্বলতার সুযোগ নেন ২ রাজস্ব কর্মকর্তা ও ১ সিপাহি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১০:৪০আপডেট : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৬:০৪

কাস্টমসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম শাহেদ ও শহিদুল ইসলাম এবং সিপাহি মো. নিয়ামত হাওলাদার মিলে গুদাম থেকে ৫৫ দশমিক ৫১ কেজি স্বর্ণ সরিয়েছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এই তিনজন স্বর্ণ চুরির দায় স্বীকার না করলেও, পুলিশ অনেকটাই নিশ্চিত হতে পেরেছে যে স্বর্ণ উধাওয়ের পেছনে তারা জড়িত রয়েছেন। এ ছাড়া এ ঘটনার সঙ্গে আর কারা জড়িত আছে, এসব বিষয়েও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ নিয়ে অধিকতর তদন্ত চলমান রয়েছে। অভিযুক্ত তিনজনসহ আর যাদের সম্পৃক্ততা পাওয়া যাবে, তাদের কাস্টমসের করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হবে বলে জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ উত্তরা বিভাগ সূত্র।

সূত্র আরও জানায়, ২ সেপ্টেম্বরের আগে ও পরে দুই সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সাইদুল, শাহেদ ও সিপাহি নিয়ামত হাওলাদারকে বিমানবন্দর এলাকায় একত্রে দেখা গেছে। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে অনেকটাই নিশ্চিত হওয়া গেছে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিচ্ছেন। তাদের কথাবার্তায় অসংগতি লক্ষ করা গেছে।

এসব বিষয় বিবেচনায় সাইদুল, শহিদুল ও নিয়ামতকে স্বর্ণ উদ্ধারের পেছনে তাদের হাত রয়েছে এবং তারাই সরিয়েছেন এসব বিষয়ে সন্দেহ আরও বেড়েছে পুলিশের।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর এলাকাসহ বিভিন্ন জায়গার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ চলমান রয়েছে। এ ছাড়া গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে যেসব তথ্য পাওয়া গেছে, তা ভেরিফাই করা হচ্ছে। স্বর্ণগুলো গোডাউন থেকে সরিয়ে কোথায় বিক্রি করেছে বা কাদের কাছে রেখেছে, এসব বিষয় সম্পর্কে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে, তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। স্বর্ণ বেচাকেনার বিভিন্ন এলাকায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। সেসব জায়গা থেকে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ চলমান রয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ উত্তরা বিভাগের উপকমিশনার মোর্শেদ আলম বলেন, মামলা করার পর থেকে এ ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হওয়ার পর যাদের সম্পৃক্ততা পাওয়া যাবে, তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

স্বর্ণ কিংবা স্বর্ণালংকার জব্দ করার পর লকার বা গুদামে রাখার নিরাপত্তাব্যবস্থা কেমন ছিল, এমন প্রশ্নের জবাবে মোর্শেদ আলম বলেন, গোডাউনে রাখা স্বর্ণালংকার তদারকির বা ম্যানেজমেন্টের বিষয়টি ছিল অত্যন্ত দুর্বল, যা আমি নিজে দেখেছি। মূল্যবান একটি সম্পদ স্বর্ণ, যা লোকজনদের কাছ থেকে জব্দ করে অবহেলিত অবস্থায় রাখা ছিল। কাস্টমস কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি স্বর্ণ জব্দ করার তিন দিন পরেই বাংলাদেশ ব্যাংকে স্বর্ণ জমা দিতে পারে। কিন্তু মামলার অভিযোগ বলা হয়েছে, ২০২০ সাল থেকে স্বর্ণালংকার বা স্বর্ণ সেখানে রক্ষিত ছিল। যথাযথ প্রক্রিয়া তারা অনুসরণ করেনি এবং অন্য আরেকটি জায়গা ছিল স্বর্ণগুলো রাখার জন্য, সেখানেও রাখা হয়নি। নিরাপত্তার দুর্বলতার জন্য এমনটা হয়েছে।

এর আগে গত ৩ সেপ্টেম্বর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ঢাকা কাস্টমের গুদাম থেকে স্বর্ণ ও স্বর্ণালংকার চুরির অভিযোগে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে চুরির মামলা করে কাস্টম কর্তৃপক্ষ। সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. সোহরাব হোসেন বাদী হয়ে বিমানবন্দর থানায় ওই মামলা করেন।

গত ২ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টার দিকে গোডাউন থেকে স্বর্ণ চুরির বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন কাস্টমসের গুদাম কর্মকর্তা মাসুদ রানা। এ ঘটনার পর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গুদামে কর্মরত এ, বি, সি এবং ডি—এই চার শিফটের সরকারি রাজস্ব কর্মকর্তা মাসুম রানা সাইদুল ইসলাম শাহেদ, মো. শহিদুল ইসলাম, আকরাম শেখ ও সিপাহি মো. রেজাউল করিম, মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক, মো. আফজাল হোসেন, মো. নিয়ামত হাওলাদারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে কোনও সদুত্তর পাননি কর্মকর্তারা।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ২০২০ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময় আটক করা ৩৮৯টি ডিএম থেকে ৫৫ দশমিক ৫১ কেজি স্বর্ণ লকার ভাঙা আলমারিতে পাওয়া যাচ্ছে না। ঘটনাটি ২ সেপ্টেম্বর রাত ১২টা ১৫ মিনিট থেকে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটের মধ্যে যেকোনও সময়ে কে বা কারা গোডাউন থেকে স্টিলের আলমারির লকার ভেঙে চুরি করে নিয়ে গেছে। স্বর্ণগুলোর বর্তমান বাজার মূল্য উল্লেখ করা হয়েছে ৪৫ লাখ টাকা।

মামলার পর থেকেই চার সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ও চার সিপাহিকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করে উত্তরা বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিমানবন্দর থানা পুলিশ।

আরও পড়ুন:

কয়েক মাস আগেই সরানো হয় স্বর্ণ, পরে চুরির নাটক

৫৫ কেজি স্বর্ণ উধাও: ৮ জনকে সন্দেহ পুলিশের

শাহজালালে ৫৫ কেজি সোনা চুরি, প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য

৫৫ কেজি সোনা উধাও: অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে চুরির মামলা

লকার থেকে ৫৫ কেজি সোনা গায়েব, ফাঁসছেন ৪ কাস্টমস কর্তা

বিমানবন্দরে কাস্টমসের গুদাম থেকে ১৫ কেজি সোনা উধাও!

/আরটি/এনএআর/
সম্পর্কিত
১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ: সাবেক শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে
আইএফআইসি ব্যাংকের চুরি হওয়া ১০ লাখ টাকা উদ্ধার, মূলহোতা কিনেছেন মোটরসাইকেল
মামুনুল হকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি
সর্বশেষ খবর
জামাল কি আবাহনীতেই থাকছেন?
জামাল কি আবাহনীতেই থাকছেন?
সোনার দাম আরও বাড়লো
সোনার দাম আরও বাড়লো
১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ: সাবেক শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে
১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ: সাবেক শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে
বাঙালির আবেগ নিয়ে আর কত খেলবেন সাকিব-শান্তরা?
বাঙালির আবেগ নিয়ে আর কত খেলবেন সাকিব-শান্তরা?
সর্বাধিক পঠিত
আছাদুজ্জামান মিয়ার তথ্য ফাঁস করায় পুলিশের এডিসি বরখাস্ত
আছাদুজ্জামান মিয়ার তথ্য ফাঁস করায় পুলিশের এডিসি বরখাস্ত
বানের পানির মতো আসছে রেমিট্যান্স, পাচারের অর্থও কি সঙ্গে আসছে?
বানের পানির মতো আসছে রেমিট্যান্স, পাচারের অর্থও কি সঙ্গে আসছে?
পরীমণিকাণ্ডে চাকরি হারাচ্ছেন পুলিশ কর্মকর্তা সাকলায়েন
পরীমণিকাণ্ডে চাকরি হারাচ্ছেন পুলিশ কর্মকর্তা সাকলায়েন
কোরবানির ১ লাখ ৭২ হাজার পশুর চামড়া গেলো কোথায়?
কোরবানির ১ লাখ ৭২ হাজার পশুর চামড়া গেলো কোথায়?
ইসরায়েলি অভিযান নিয়ে হিজবুল্লাহকে যে সতর্কবার্তা দিলো যুক্তরাষ্ট্র
ইসরায়েলি অভিযান নিয়ে হিজবুল্লাহকে যে সতর্কবার্তা দিলো যুক্তরাষ্ট্র