X
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

জাবিতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় কর্তৃপক্ষ দায় এড়াতে পারে না, বলছে র‌্যাব

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট 
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪:০৪আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:০৩

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) স্বামীকে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার দায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এড়াতে পারে না বলে মনে করছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সংস্থাটি বলছে, বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বিভিন্ন সময় মাদক, ধর্ষণসহ নানা অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় ক্যাম্পাসে বহিরাগত প্রবেশের দায় কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে।  

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ কথা বলেন।

সম্প্রতি সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতারদের দেওয়া বক্তব্য অনুযায়ী বিষয়টি ‘খুবই অ্যালার্মিং’ উল্লেখ করে র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এখনই আরও কঠোর হতে হবে। কারণ আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি, ক্যাম্পাসে মাদকসহ নানা অবৈধ কাজ ঘটে। এই সব ঘটনা প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয়ের বিষয় রয়েছে। তারা যদি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন সহযোগিতা চান আমরা অবশ্যই সহযোগিতা করবো। আমরা মনে করি, দেশের ভবিষ্যৎ সম্পদ, জাতির আগামী দিনের ভবিষ্যৎকে এভাবে নষ্ট হতে দিতে পারি না।’ 

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অপরাধে জড়ানোর বিষয় আগেই সতর্ক হওয়া দরকার ছিল। আমরা সবাইকে খারাপ বলবো না। কারণ যারা এই সব বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে তারাই তো আগামী দিনে দেশ পরিচালনা করবে। তাই আমি মনে করি, শুধু এখন না সব সময় তাদের নজরদারিতে রাখা উচিত। কারণ শিক্ষার্থীদের বয়স অনেক কম। এই ধরনের মামুনের মতো লোকজন শিক্ষার্থীদের নষ্ট করছে।’ 

র‍্যাবের মুখপাত্র বলেন, ‘মামুনের মতো লোকেরাই নিজেদের স্বার্থে, নিজেরাই অপকর্ম করার জন্য শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করছে। আমাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা যারা আছে তাদের এমন করে বিপথে নেওয়ার দায় দায়িত্ব আমাদের সব স্টেক হোল্ডারকে নিতে হবে। অভিভাবক, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, শিক্ষক সমাজ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং গণমাধ্যমকে এর দায় নিতে হবে।’

/কেএইচ/ইউএস/
সম্পর্কিত
বাড্ডায় বোমা তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে র‍্যাব
রাজধানীতে চাঁদা আদায়ের সময় গ্রেফতার ১৩  
ডাকাতি করতে গিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ৪
সর্বশেষ খবর
পি কে হালদারের দুই সহযোগীকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ
পি কে হালদারের দুই সহযোগীকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ
উপজেলা নির্বাচনে দেবরের জন্য ভোট চাচ্ছেন এমপির স্ত্রী
উপজেলা নির্বাচনে দেবরের জন্য ভোট চাচ্ছেন এমপির স্ত্রী
ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাইয়ের প্রার্থিতা আপিল বিভাগে বহাল
উপজেলা নির্বাচনওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাইয়ের প্রার্থিতা আপিল বিভাগে বহাল
বৈঠক করলেন পুতিন-কাদিরভ, ইউক্রেনে আরও সেনা পাঠানোর প্রস্তাব
বৈঠক করলেন পুতিন-কাদিরভ, ইউক্রেনে আরও সেনা পাঠানোর প্রস্তাব
সর্বাধিক পঠিত
যেভাবে এমপি আনোয়ারুল আজীমকে হত্যা করা হয়
যেভাবে এমপি আনোয়ারুল আজীমকে হত্যা করা হয়
‘খুন’ কিন্তু ‘লাশ নেই’: যা জানা গেলো এমপি আজীমকে নিয়ে
‘খুন’ কিন্তু ‘লাশ নেই’: যা জানা গেলো এমপি আজীমকে নিয়ে
কে এই এমপি আনার?
কে এই এমপি আনার?
এমপি আনোয়ারুল আজীম হত্যা নিয়ে বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে যা জানা গেলো
এমপি আনোয়ারুল আজীম হত্যা নিয়ে বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে যা জানা গেলো
যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ‘অস্ত্র’ দুর্নীতি
সাবেক সেনাপ্রধানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞাযুক্তরাষ্ট্রের নতুন ‘অস্ত্র’ দুর্নীতি