কামরাঙ্গীরচরে নির্বাচনি প্রচারণায় আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:৫৩, জানুয়ারি ২৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০৮, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

কামরাঙ্গীরচরে নির্বাচনি প্রচারণায় আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের বড় গ্রামে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনি প্রচারণা চালানোর সময় আওয়ামী লীগের হোসেন গ্রুপ ও বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী রতন গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিদ্রোহী প্রার্থীর একটি অফিস ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) জুমার নামাজের পর কামরাঙ্গীরচর বড় গ্রামের ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কামরাঙ্গীরচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মশিউর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ হোসেন ও বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমান রতনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে পুলিশ।

এ বিষয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমান রতন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি দল থেকে মনোনয়ন না পেয়ে ৫৬নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছি। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে আমার সমর্থক ও কর্মীরা পোস্টার লাগাতে গেলে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ হোসেনের লোকজন এসে তাদের মারধর করে। এ সময় তারা চারটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।’

কামরাঙ্গীরচরে নির্বাচনি প্রচারণায় আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, ‘শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে আমি বড় গ্রাম থেকে প্রচারণা শুরু করলে আমার সমর্থক ও কর্মীদের ওপর স্ট্যাম্প ও হকিস্টিক দিয়ে হামলা চালায় হোসেন গ্রুপের কর্মীরা। সেখানে আমার কর্মী ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কর্মীর মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে তারা। আমার নির্বাচনি অফিসে তারা আগুন দেয়। এ ঘটনায় আমার ১৪ জন সমর্থক ও কর্মী আহত হয়েছেন।’

 

/এসজেএ/এমআর/এমওএফ/

লাইভ

টপ