X
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৪ বৈশাখ ১৪৩১

আন্দোলনের সাফল্য-ব্যর্থতা খুঁজতে আবারও তৎপর বিএনপি

সালমান তারেক শাকিল
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২২:০০আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:৫৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক সাফল্য-ব্যর্থতা পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। দলটির শীর্ষ পর্যায় থেকে আবারও পুরো বিষয়টিকে ‘রিভিউ’-এ এনে ভবিষ্যৎ করণীয় নির্ধারণ করার পক্ষে মত দেওয়া হয়েছে। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বিএনপির অন্যতম একজন শীর্ষনেতা যুগপৎ আন্দোলনে যুক্ত দলগুলোর কয়েকজন শীর্ষ নেতার সঙ্গে এ বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন। পাশাপাশি বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পেলে কিংবা জনভিত্তিক ইস্যুতে ছোটখাটো কর্মসূচিও দেবে দলটি।

বিএনপি ও তাদের সমমনা বিরোধী দলগুলোর বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, বিএনপির উচ্চপর্যায় থেকে আবারও বিগত দিনের আন্দোলনের নির্মোহ পর্যালোচনার পক্ষে মত দেওয়া হয়েছে। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা মুক্তি পাওয়ায় পর্যালোচনার পর্বটি এবার দীর্ঘ হতে পারে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারি বিএনপির স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। স্থায়ী কমিটিতে আলোচনার পরই ওই সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, সদ্য বিদায়ী নির্বাচনে অংশ না নিয়েও ‘সাফল্য’ এসেছে। ওই সংবাদ সম্মেলনটিও স্থায়ী কমিটির ‘রিভিউ’র পরেই করা হয়েছে বলে জানান এই সদস্য। 

৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘২০১৪ ও ২০১৮ সালের ধারাবাহিকতায় ডামি প্রার্থী, ডামি দল, ডামি ভোটার ও ডামি পর্যবেক্ষকদের সমন্বয়ে মঞ্চস্থ হয়েছে ২০২৪ সালের ডামি নির্বাচন। দেশব্যাপী নজিরবিহীন হুমকি-ভীতি উপেক্ষা করে, ভাগবাঁটোয়ারার নির্বাচনে, শতকরা ৫ ভাগেরও কম ভোটার উপস্থিতি একটি সুস্পষ্ট বার্তা দেয়।’ 

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি ও ৬২টি ‘গণতন্ত্রমনা’ রাজনৈতিক দলের নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত ‘সঠিক ও যৌক্তিক’ বলে দাবি করা হয়। বলা হয়, ‘বিএনপির আবেদনে সাড়া দিয়ে, নির্বাচনকে বর্জন ও ফলাফলকে প্রত্যাখ্যানের মাধ্যমে, জনগণ প্রমাণ করেছে, বিএনপি ও যুগপৎ আন্দোলনের প্রতিটি রাজনৈতিক দলের অবস্থান গণ-আকাঙ্ক্ষারই প্রতিফলন।’

স্থায়ী কমিটির সূত্র জানায়, প্রথম দফা রিভিউ শেষে দলের অবস্থান ব্যক্ত করা হলেও ‘ব্যর্থতার খতিয়ান’ মূলত চিহ্নিত করা যায়নি। বিশেষ করে মহাসচিবসহ কয়েকজন সদস্য কারাগারে থাকায় দলের সব পক্ষের অবস্থান উঠে আসেনি। এক্ষেত্রে মির্জা ফখরুল ও আমির খসরু (গত ১৫ ফেব্রুয়ারি) ও মির্জা আব্বাস (১৯ ফেব্রুয়ারি) মুক্তি পাওয়ার পর শীর্ষ পর্যায়ে আবারও ‘রিভিউ’ করার প্রয়োজনীয়তা ব্যক্ত করা হয়।

এ বিষয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রিভিউ... ধরেন, কিছু তো রিভিউ হয়ে আছে। কিছুটা তো...। ওইভাবে রিভিউ হবে কিনা, সেটা বলতে পারছি না এখন। আমাদের অনেক নেতা জেলে গেছেন। সত্যিকার অর্থে তৃণমূল নেতারা আন্দোলন করে গেছেন। আমাদের তো সব নেতাকেই ধরে নিয়ে গেছে। তারা ঘরে থাকতে পারেনি। ঘরে ফিরতে পারেনি। এখনও অনেকে ঘরে থাকতে পারছেন না।’

দলীয় সূত্র জানায়, দুটি কারণে ফের রিভিউ করার পক্ষে মত দিয়েছে শীর্ষ নেতৃত্ব। প্রথমত, রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক কারণ রয়েছে। ঠিক কী কারণে ২০১৪, ২০১৮ এবং সর্বশেষ চলতি বছর অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কীভাবে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় গেছে; কোন প্রক্রিয়া অবলম্বন করেছে; আন্দোলন তীব্রতর হলেও শেষ মুহূর্তে বিএনপির আন্দোলন কেন ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে; ২৮ অক্টোবর থেকে সিনিয়র অনেক নেতার পলায়নপরতা; এসব বিষয় অনুসন্ধান করা। দ্বিতীয়ত, সত্যিকার অর্থে একটি চিত্র বের করে আনা।

বিরোধী দলগুলোর কোনও কোনও নেতা মনে করেন, ‘প্রকৃত চিত্র বিএনপি কীভাবে বের করবে? ২০২৩ সালের ২৯ জুলাই থেকে বড় যেসব কর্মসূচি এসেছে, সবই তো শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশনায়। এক্ষেত্রে পর্যালোচনার ফলাফল কতখানি সামনে আসবে?’

দলের প্রভাবশালী একটি দায়িত্বশীল সূত্রের দাবি, সাংগঠনিক মূল্যায়নের মধ্যে তৃণমূলের আন্দোলনের অংশগ্রহণের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। আসন্ন উপজেলা পরিষদসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তৃণমূলের অংশগ্রহণ নিয়ে শীর্ষ পর্যায়ে আলোচনা হয়েছে। এক্ষেত্রে দলের পক্ষ থেকে ‘নীরব’ ভূমিকা পালনের ‘সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে’ বলে দাবি করে সূত্রটি।

প্রসঙ্গত, গত জানুয়ারির শেষ দিকে স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে দলের বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে লিখিত প্রস্তাবনা নেন তারেক রহমান।

সূত্রের ভাষ্য, স্থানীয় সরকার নির্বাচনই তৃণমূলের টিকে থাকার একমাত্র উপায়। এক্ষেত্রে আসন্ন স্থানীয় সরকারের নির্বাচনের বিষয়ে দল ‘চোখ-মুখ’ বন্ধ রাখার কৌশল নেবে।’

এ বিষয়ে স্থায়ী কমিটির একজন সদস্যের ব্যক্তিগত ভাষ্য, ‘স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে আগ্রহী হবে অনেকে। আমরা নিরুৎসাহিত করতে পারি, বাধা তো দিতে পারি না।’

জানতে চাইলে সেলিমা রহমানের মন্তব্য, ‘সত্যি কথা বলতে কী, ওসব নিয়ে কথা বলিনি। কারও চিন্তাভাবনায় থাকলে বা মনে থাকলে থাকতে পারে। আমি কিছুই জানি না। কে কী করলো, সেটা তার ব্যাপার।’

বিগত দিনের আন্দোলন-সংগ্রামে সাফল্য-ব্যর্থতার সূত্র খুঁজতে বিএনপির পক্ষ থেকে গণতন্ত্র মঞ্চকেও আহ্বান জানানো হয়েছে। মঞ্চের এক নেতা জানান, গত ৯ জানুয়ারি থেকে যুগপৎ আন্দোলনে যুক্ত দলগুলোর সঙ্গে মতবিনিময় শুরু করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সরাসরি ও ভার্চুয়ালি এসব সভায় অংশ নেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরাও। ১৩ জানুয়ারি গণতন্ত্র মঞ্চের সঙ্গে বৈঠক করেন তারা। ওই বৈঠকটি মুলতবি রয়েছে।

সূত্র জানায়, পর্যালোচনা করতে বিএনপির পক্ষ থেকে মঞ্চের সঙ্গে আবারও বৈঠক হতে পারে। এক্ষেত্রে চলতি ফেব্রুয়ারি বা আগামী মার্চ নাগাদ তা স্পষ্ট হবে। এর মধ্যে বিএনপির কারামুক্ত নেতাদের কেউ কেউ চিকিৎসার কাজে বিদেশে যাবেন।

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতা, নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রিভিউ করা তো বিএনপির ব্যাপার। আমাদের সঙ্গে যখন আলোচনা হয়েছে আমরা বলেছি, তারাও যেন পর্যালোচনা করেন। তারা সেটি করেনি। এখন সবাই মুক্ত হয়েছে। বিএনপি নিশ্চয়ই এরকম কিছু করবে।’

মঞ্চের আরেক গুরুত্বপূর্ণ নেতা, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ‘বড় দাগে আমরা বিএনপিকে কিছু অবজারভেশন শেয়ার করেছি। আমরা আশা করি, মাঠের প্রধান দল হিসেবে বিএনপিও নৈর্ব্যক্তিকভাবে পর্যালোচনা করবেন। তারা সমগ্র বিষয়টাতে রিভিউ করে কোথায় সাকসেস, কোথায় ফেইলিওর, কোথায় উইকনেস—তা চিহ্নিত করবেন। আমরা জানতাম বিএনপির অনেক নেতা কারাগারে থাকায় স্লো যাচ্ছে। এখন যেহেতু আন্দোলনের মাঠের প্রধান নেতারা বেরিয়ে এসেছেন, আশা করবো বিএনপি নৈর্ব্যক্তিক পর্যালোচনা করবে।’

‘ভবিষ্যৎ আন্দোলনকে পুনর্বিন্যাস, পুনর্বিন্যস্ত করতে এটা জরুরি। আমাদের মুলতবি মিটিং যত দ্রুত করা যায়, তত ভালো’ বলে মত দেন সাইফুল হক। 

বিএনপির সঙ্গে সখ্যতা রয়েছে, এমন একটি দলের প্রধান এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘মনে হয় না বিএনপি রিভিউ করবে। তারা মুখে বলবে, মূল্যায়ন করবে না।’

একদিনে আন্দোলনের রিভিউ, অন্যদিকে চলবে ছোটখাটো কর্মসূচিও। স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য জানান, বিদ্যুতের দাম বাড়লে কর্মসূচি দেবে বিএনপি। এই কর্মসূচির ধরন ছোট আকারে রাখা হবে। 

জানতে চাইলে সেলিমা রহমান বলেন, ‘বিদ্যুতের দাম বাড়ালে কর্মসূচি দিতে পারি। আমাদের কর্মসূচি আসবে। শিগগিরই আসবে।’

আরও পড়ুন:

স্থানীয় সরকার নির্বাচন: মতামত নিচ্ছে বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব, জমা হয়েছে প্রস্তাবনা

/ইউএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
‘লন্ডন-সন্তুষ্টিতে’ ব্যস্ত বিএনপি নেতারা, পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা আসছে কবে?
আন্দোলনের মুষল বৃষ্টিতে ভেসে যাবে শাসক গোষ্ঠী: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়
সরকার হটাতে ঢাকায় দুর্গ গড়ে তুলতে হবে: মির্জা ফখরুল
সর্বশেষ খবর
গলায় কই মাছ আটকে কৃষকের মৃত্যু
গলায় কই মাছ আটকে কৃষকের মৃত্যু
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
সর্বাধিক পঠিত
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
এএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
রেস্তোরাঁয় ‘মদ না পেয়ে’ হামলার অভিযোগএএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫