X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বাংলাদেশের জনগণ কারও প্রভুত্ব স্বীকার করে না: মির্জা ফখরুল

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৫ মার্চ ২০২৪, ১৬:৩৩আপডেট : ২৫ মার্চ ২০২৪, ১৬:৫৩

‘বাংলাদেশের জনগণ কারও প্রভুত্ব স্বীকার করবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘‘ফকির আলমগীরের (প্রয়াত গণসংগীত শিল্পী) একটা চমৎকার গান আছে—‘দাম দিয়ে কিনেছি বাংলা, কারও দানে নয়’। আমরা রক্তের দাম দিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছি। কারও দয়ায় বাংলাদেশ স্বাধীন হয়নি।’’

সোমবার (২৫ মার্চ) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির মহাসচিব এসব কথা বলেন। জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল এই সমাবেশের আয়োজন করে। ছোট পরিসরে নয়া পল্টন কার্যালয়ের ফুটপাতের একপাশে সড়কে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে সেই বোধ নিয়ে রুখে দাঁড়ান। আন্তর্জাতিক বিশ্ব নিশ্চয়ই সেই বিষয়গুলো দেখবে, দেখেছে অতীতে। আর কোনও দেশ যদি মনে করে যে আমাদের ওপর প্রভুত্ব করবে, বাংলাদেশের মানুষ কোনোদিন সেই প্রভুত্ব স্বীকার করেনি। মোগল আমলেও করেনি, ব্রিটিশ আমলেও করেনি, পাকিস্তান আমলেও করেনি, এখনও করবে না।’

তরুণ সমাজকে জেগে ওঠার আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমি বৃদ্ধ মানুষ হয়ে গেছি। হাফিজ (হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম) ভাই আমার চেয়েও বড়। আমরা এখনও লড়ছি, কথা বলছি, লড়ে যাচ্ছি। কিন্তু আমরা এখনও বিশ্বাস করি—এই দেশকে পরাধীন করে রাখার ক্ষমতা কারও নেই। আমরা বিশ্বাস করি, এই ভয়াবহ ফ্যাসিবাদী একটা রেজিম, একটা শাসকগোষ্ঠী যারা আজকে জোর করে, কলাকৌশল করে, বিভিন্ন নাটক করে ক্ষমতা দখল করে আছে—তাদের একদিন চলে যেতেই হবে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সেজন্য বলি, মানুষকে সঙ্গে নিয়ে নামতে হবে। মানুষকে সঙ্গে নিয়ে না নামলে আপনারা জয়ী হতে পারবেন না। সেই মানুষকে সঙ্গে নিয়ে কিছুক্ষণ আগে এখান দিয়ে রিকশাশ্রমিক ভাইয়েরা গেলেন না… এরকম শ্রমিক ভাইদের নামাতে হবে। এ রকম সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র ভাইদের আনতে হবে। সব জায়গা থেকে মানুষ উঠে আসবে— সেদিন হবে সত্যিকার অর্থেই সফল গণঅভ্যুত্থান, সফল বিস্ফোরণ, বিজয়।’

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিএনপির স্বাধীনতা দিবস উদযাপন কমিটির উদ্যোগে এই মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ হয়। সমাবেশের ব্যানারের নিচে ‘ভারতীয় পণ্য বর্জন করুন’ শীর্ষক স্লোগান বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় উল্লেখ ছিল।

তবে দলের একাধিক দায়িত্বশীল জানান, অতি উৎসাহী কোনও নেতা সমাবেশের ব্যানারের লেখার সঙ্গে মিল না থাকলেও ভিন্ন বক্তব্য জুড়ে দেয়।

গত বছরের ২৮ অক্টোবর গ্রেফতারের সাড়ে তিন মাস পর মুক্তি পেয়ে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান বিএনপি মহাসচিব। এরপর গত শনিবার (২৩ মার্চ) দেশে ফিরে এটি তার দ্বিতীয় রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগদান। রবিবার (২৪ মার্চ) তিনি কূটনীতিকদের সম্মানে অনুষ্ঠিত বিএনপির ইফতারে যোগ দেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ব্যাংকগুলো লোপাট করে দিয়ে এখন ব্যাংক একীভূত হচ্ছে। ওটা আবার আরেকটা দুর্নীতির ব্যবস্থা তৈরি করছে।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের শ্লীলতাহানির ঘটনাবলিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে এ ব্যাপারে ছাত্রদলকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব।

একাত্তরের ২৫ মার্চের কালরাত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আজ ২৫ মার্চের কালরাত। আজকে এ দিনে সন্ধ্যা পর্যন্ত, আওয়ামী লীগ অস্বীকার করতে পারে… সন্ধ্যা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ চেষ্টা করেছে পাকিস্তানের সঙ্গে একটা দফা-রফা করার জন্য। যখন ব্যর্থ হয়েছে, যখন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টসহ জুলফিকার আলী ভুট্টো ঢাকা ছেড়ে চলে গেছেন, তখন আমাদের তৎকালীন রাজনৈতিক নেতারা তারা কেউ দেশে থাকেননি, পালিয়ে ভারতে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। আর মূল নেতা পাকিস্তানিদের কাছে আত্মসমর্পণ করে পাকিস্তান চলে গেছেন।’

‘তারপর শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতা ঘোষণার মধ্য দিয়ে সে উজ্জীবন… সব মানুষ ঝাঁপিয়ে পড়ে যুদ্ধ করেছিল বলেই ১৯৭১ সালে আমরা দেশ স্বাধীন করতে পেরেছি।’

আরও পড়ুন:

মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে মির্জা ফখরুল: পুলিশের হুইসেল-সাউন্ড গ্রেনেড শুনে পালাবে না, সেই সাহস নিয়ে দাঁড়াতে হবে

/এসটিএস/এপিএইচ/এমওএফ/
সম্পর্কিত
বিএনপিই ভরসা, টিকে থাকবে হাজার বছর: মির্জা ফখরুল
রাজনীতির খুব কঠিন সময়ে অবস্থান করছি: মির্জা ফখরুল
আজিজ-বেনজীরকে তারাই তৈরি করেছে, লালন করেছে: মির্জা ফখরুল
সর্বশেষ খবর
পিতার নাম পাল্টে ফেলেছে বঙ্গবন্ধুর খুনি মোসলেহ উদ্দিনের সন্তানরা
ইসিকে ব্যবস্থা নিতে সরকারের চিঠিপিতার নাম পাল্টে ফেলেছে বঙ্গবন্ধুর খুনি মোসলেহ উদ্দিনের সন্তানরা
রাঙামাটির দুই উপজেলার নির্বাচনে জয় পেলেন যারা
রাঙামাটির দুই উপজেলার নির্বাচনে জয় পেলেন যারা
বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই
বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ার বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই
খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতির লাগাম টানবে কে?
খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতির লাগাম টানবে কে?
সর্বাধিক পঠিত
ধান বিক্রি করে ৯৬ হাজার টাকা পেলেন প্রধানমন্ত্রী
ধান বিক্রি করে ৯৬ হাজার টাকা পেলেন প্রধানমন্ত্রী
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
কলা সহজে কালো হবে না এই ৪ টিপস মানলে
কলা সহজে কালো হবে না এই ৪ টিপস মানলে