X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

উপকূলে চিংড়ি চাষ যেন গলার কাঁটা! (ভিডিও)

আপডেট : ০১ জুন ২০২১, ২০:০৪

সুন্দরবন সংলগ্ন মোংলা উপকূলের মানুষের আয়ের প্রধান উৎস্য ‘সাদা সোনা’ খ্যাত চিংড়িসহ নানা প্রজাতির মাছ। মাছ চাষ করেই এ অঞ্চলের ৭০ শতাংশ মানুষের জীবিকা আসে। তবে একের পর এক প্রাকৃতিক দুর্যোগে বেশি ক্ষতির শিকার হলো মোংলা উপকূলের চিংড়ি চাষীরা।

এর আগের ঘূর্ণিঝড় আম্পানের ধাক্কা সামলে না উঠতেই এলো ইয়াস। ভেসে গেছে তিনশ’ হেক্টর মাছের জমি। এসব জমিতে চিংড়িসহ অন্যান্য মাছের ৬৮৫টি খামার রয়েছে। প্রায় সবগুলোই ভেসে গেছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঝড়ের আগে প্রচণ্ড তাপদাহে এখানকার চাষীদের কয়েক লক্ষ টাকার মাছ এমনিতেই মরে গিয়েছিল। এরমধ্যে আবার ইয়াস-এর কারণে উপজেলার চিলা ইউনিয়নের ৪৪৫টি, চাঁদপাইয়ে ১৪৪টি ও বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের ৮৬টিসহ মোট ৬৮৫টি ঘের ভেসে গেছে। এসব খামারে কত কোটি টাকার মাছ ভেসে গেলো তার হিসাব কেবল শুরু করেছি বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সরেজমিনে এসব এলাকা ঘুরে কথা হয় ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে। জয়মনি ঘোলের হরিপদ মন্ডল বলেন, ‘অনেক কষ্ট করে কয়টা মাছ ছাড়িলাম, সব তলায়া গেছে।’

কাইনমারি এলাকার দিলিপ কুমার বিশ্বাস ও তপন গাইন বলেন, ‘প্রচণ্ড গরমে একদফা মাছ মরে পচে গেলো। এবার ঝড়ে ঘেরের মাছ সব ভেসে গেছে। এখন কী করে বেঁচে থাকবো তা নিয়ে চিন্তায় আছি।’

ধারবাহিক দুর্যোগের কারণে চিংড়ি চাষে জড়িত উপজেলার সহস্রাধিক মানুষ এখন দিশেহারা। উপজেলা চেয়ারম্যান ও চিংড়ি ব্যবসায়ী মো. আবু তাহের হাওলাদার বলেন, ‘চিংড়ি চাষের মৌসুমের শুরুতেই প্রান্তিক চাষীরা হোঁচট থেতে শুরু করেন। এপ্রিল-মে মাসে লকডাউনে হ্যাচারিগুলো বন্ধ থাকায় রেণু-পোনার চরম সংকট দেখা দিয়েছিল। এ ছাড়া চাষীরা স্থানীয় প্রাকৃতিক চিংড়ির পোনাও আশানুরূপ পাননি। এখন তো ঘূর্ণিঝড়ে মাছও গেলো, ধানও গেলো।’

মৎস্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে সরকারের উপরের দফতরে পাঠানো হবে। চাষীদের ক্ষতি পোষানোর সাধ্যমতো চেষ্টা করা হবে বলেও জানান তিনি।

তবে বুধবার রাত জেগে ঘের পাহাড়া দিয়েও শেষরক্ষা হয়নি। সব জোয়ারের পানিতে চোখের সামনে তলিয়ে যায়। চড়া সুদে ঋণ নিয়েছিলেন অনেকে। তারাও বলতে পারছেন না কী করে ঋণ শোধ করবেন।



/এফএ/

সম্পর্কিত

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৫৪

বগুড়া শহরতলির গোকুল এলাকায় ইকো পার্কে বেড়াতে আসা জনতাকে হয়রানি এবং চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে সদর থানার দুই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। পুলিশ সুপারের নির্দেশে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পুলিশ লাইন্সে প্রত্যাহার (ক্লোজ) করা হয়েছে। সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা হলেন– বগুড়া সদর থানার এএসআই (উপ-সহকারী পরিদর্শক) আবদুল্লাহ আল মোস্তফা এবং কনস্টেবল (ড্রাইভার) মাহিদুর রহমান।

অভিযোগে জানা গেছে, শুক্রবার রাত ৯টার পর সদর থানার এএসআই আবদুল্লাহ আল মোস্তফা এবং কনস্টেবল (ড্রাইভার) মাহিদুর রহমান মোটরসাইকেলে সদর উপজেলার গোকুল এলাকায় মম ইন ইকো পার্কে যান। তারা পার্কে আসা জনগণকে জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানি করতে থাকেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে একটি মোটরসাইকেলে আসা তিন জনকে আটক করে তাদের কাছে দুই হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। এ চাঁদা দাবি নিয়ে তাদের সঙ্গে পুলিশ সদস্যদের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে আশপাশে থাকা জনগণ পুলিশ সদস্যদের ঘেরাও করেন। খবর পেয়ে ইকো পার্কের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে আসেন। তারা পরিচয় নিশ্চিত হয়ে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে জনরোষ থেকে বাঁচিয়ে থানায় পাঠিয়ে দেন। বিষয়টি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়। পরে পুলিশ সুপার সুদীপ্ত কুমার চক্রবর্তীর নির্দেশে দুই পুলিশ সদস্যকে সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়।

অভিযোগ প্রসঙ্গে এএসআই আবদুল্লাহ আল মোস্তফা জানান, তারা মোটরসাইকেলে মম ইন ইকো পার্কের ভেতর দিয়ে পল্লী মঙ্গলের দিকে যাচ্ছিলেন। পার্কের ভেতরে মোটরসাইকেল আরোহী তিন জনের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাদের থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন তারা। কোনও চাঁদা দাবি করা হয়নি। কিছু লোকজন তাদের চিনতে না পেরে বিশৃঙ্খলা করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ বলেন, ‘ডিউটির বাইরে কাউকে না জানিয়ে তারা মম ইন পার্কে যান। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসায় সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। অভিযোগের ব্যাপারে তদন্ত চলছে; সত্যতা পেলে বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরও ৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরও ৪ মৃত্যু

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৫

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া ও লাহিড়ীমোহনপুর রেল স্টেশনের মধ্যবর্তী এলাকার ৩২নং রেল সেতুর পাশে রংপুর এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন বিকল হয়ে গেছে। এজন্য ঢাকার সঙ্গে উত্তর এবং দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। রবিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন উল্লাপাড়া স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম।

মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি রংপুরের দিকে যাওয়ার পথে হঠাৎ এই এলাকায় ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। আপাতত উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ আছে। এখন একটি লাইট ইঞ্জিন যাচ্ছে ট্রেনটিকে নিয়ে আসতে। লাইট ইঞ্জিন দ্বারা ট্রেনটিকে আপাতত উল্লাপাড়া স্টেশনে নিয়ে আসার পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হবে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরও ৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরও ৪ মৃত্যু

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫৪

দেড় বছর পর চুয়াডাঙ্গার দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়। তবে, সকালে কোনও যাত্রী দেশে আসেননি বলে জানিয়েছেন দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আব্দুল আলিম।

আব্দুল আলিম জানান, এখন থেকে বাংলাদেশ ও ভারতে আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও অনাপত্তিপত্র (এনওসি) লাগবে না। ভারতে যাওয়ার আগে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানানোর যে পত্র ছিল তাও আর থাকছে না। তবে এই চেকপোস্ট দিয়ে গমনের ক্ষেত্রে সব নাগরিককে যাত্রার আগে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করা আরটিপিসিআর টেস্ট সার্টিফিকেট সঙ্গে রাখতে হবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত বছর ১৪ মার্চ দর্শনা চেকপোস্টের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। চলতি বছরের ১৭ মে ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে সীমিত পরিসরে দর্শনা চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু করা হয়। এ সময় শুধু ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিরা ভারতে অবস্থিত বাংলাদেশ হাই কমিশনের অনাপত্তিপত্র নিয়ে এ চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছেন।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০১

স্থানীয় লোকজন বেশ ঘটা করেই বিয়ে দিয়েছেন যশোর সদরের নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার আকবার আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম এবং পাশের আন্দুলিয়া গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়ে ময়না খাতুনের। তবে তারা দুজনই খর্বাকৃতির। বরের উচ্চতা তিন ফুট এবং কনের উচ্চতাও প্রায় তিন ফুট। গত ১৭ সেপ্টেম্বর বেশ ধুমধাম করে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

রবিবার তাদের ফিরানি (বিয়ের পর মেয়েকে বাবার বাড়িতে নেওয়া) হবে। সে কারণে মেয়েপক্ষ একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে অন্যরকমভাবে নিয়ে যাওয়ার জন্যে আয়োজন করেছে। নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিসপাড়া ও আন্দুলিয়া গ্রামের দূরত্ব প্রায় দুই কিলোমিটার।

নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী মোতাহার হোসেন বুলবুল বলেন, ‘রবিউলের বাবা নেই। মা অন্য জায়গায় বিয়ে করে চলে গেছেন। রবিউল থাকতো খালু জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে।’

তিনি বলেন, ‘দু’পক্ষের অভিভাবকদের সম্মতিতে বিয়ের অনুষ্ঠান করা হয়েছে। বরযাত্রী হিসেবে আমরা দুটি মাইক্রোবাস আর ২০টি মোটরসাইকেল নিয়ে ৬০ জনের মতো যাই। পরদিন বৌভাতে সেখান থেকে ৪০-৪২ কনে যাত্রীসহ আমরা প্রায় দুইশ’ মানুষের জন্যে আয়োজন করি। সাদাভাতের সঙ্গে গরুর মাংস, খাসির মাংস, ডিম ইত্যাদি ছিল। খাওয়া-দাওয়ায় কোনও সমস্যা হয়নি।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক গাজী কামারুল ইসলাম বলেন, ‘সবার সহযোগিতায় আমরা তাদের বিয়ে দিয়েছি। সবাই দোয়া করবেন তাদের জন্য। এ ধরনের মানুষকে সমাজের মূলস্রোতে আনতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক আন্দুলিয়া গ্রামের মোদাচ্ছের মোল্লা বলেন, ‘মেয়েটির বাবা নেই। মা জুট মিলে কাজ করতেন। এখন কাজ নেই। মেয়েটার বয়সও হয়ে যাচ্ছিল। দু’পক্ষের দেখাশোনার মাধ্যমে আমরা বিয়ের আয়োজন করি। মেয়েপক্ষের যাবতীয় খরচ আমাদের গ্রামের ১০-১২ জন মিটিয়েছেন।’

তিনি সবার কাছে নবদম্পতির জন্যে দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আজ (রবিবার) মেয়েকে আমরা তার মায়ের বাড়ি আনাবো। সেই কারণে একটু আলাদা ব্যবস্থা করেছি। একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে-গুছিয়ে তৈরি করা হয়েছে। বিয়েতে যিনি উকিল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন, সেই তরিকুল ইসলাম যাবেন মেয়েকে আনতে।’

বরের খালু জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘রবিউলের জন্ম খুবই দরিদ্র পরিবারে। ছোট্ট অবস্থা থেকেই তার বাবা-মা কেউ নেই। আমরাই রবিউলকে মানুষ করেছি। কৃষিকাজ করেই সে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তার বিয়ের বয়স হলেও অনেকদিন ধরে মেয়ে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। অবশেষে পাশের আন্দুলিয়া গ্রামে একটি মেয়ে খুঁজে পাই। জানতে পারি, ওই গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়েও কম উচ্চতার। স্থানীয় ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতায় তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’

বর রবিউল বলেন, ‘আমাদের দুজনের সম্মতিতেই বিয়ে হয়েছে। বিয়ে করতে পেরে অনেক ভালো লাগছে।’ দেশবাসীর কাছে তিনি দোয়া চেয়েছেন।

কনে ময়না বলেন, ‘আমাদের বিয়ে খুব ধুমধামে হয়েছে। অনেক ভালো লাগছে। এভাবে বিয়ে হবে কখনও স্বপ্নেও ভাবিনি। বিয়েতে আসা দু’পক্ষই অনেক আনন্দ করেছে। আমাদের জন্য দোয়া করবেন সবাই।’

যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য সুজিত বিশ্বাস জানান, বর রবিউল ইসলামের বয়স ২৬ বছর, কনে ময়না খাতুনের ৩৬ বছর। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় বিয়ের গেট সাজিয়ে, প্যান্ডেল নির্মাণ করে ধুমধাম করে বিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইসলামিক শরিয়াহ অনুযায়ী সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে এক হাজার এক টাকার কাবিনে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। 

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৬

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়নে (ইউপি) বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন সব প্রার্থী। ওই ইউপিতে চেয়ারম্যান, সদস্য এবং সংরক্ষিত নারী সদস্যের ১৩টি পদের সব কয়টিতে একজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। তারা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী।

রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজমা আক্তার।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বাগেরহাট জেলার ৯ উপজেলার ৬৬টি ইউপিতে নির্বাচন হবে ২০ সেপ্টেম্বর। তবে ভোট হচ্ছে ৬৫টি ইউপিতে। রাঢ়ীপাড়া ইউপিতে ভোট হচ্ছে না।

বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ভূঁইয়া হেমায়েত উদ্দীন বলেন, ‘রাঢ়ীপাড়া ইউপিতে চেয়ারম্যান এবং সদস্য পদগুলোতে দল সমর্থিত সদস্য ছাড়া অন্য কোনও প্রার্থী অংশ গ্রহণ করেননি। সে কারণে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।’

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফারাজী বেনজীর আহমেদ জানান, যাচাই-বাছাই ও প্রত্যাহারের পর একক প্রার্থী থাকায় সবাইকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

সর্বশেষ

ল্যাবএইডে ১১ পদে চাকরি, আবেদন করুন ঘরে বসেই

ল্যাবএইডে ১১ পদে চাকরি, আবেদন করুন ঘরে বসেই

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

চলমান স্থিতিশীলতা বিনষ্টের চেষ্টা করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

চলমান স্থিতিশীলতা বিনষ্টের চেষ্টা করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

© 2021 Bangla Tribune