X
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

৭১-এর পা দিচ্ছেন মোদি, ৭১ স্থানে গঙ্গা পরিচ্ছন্ন করবে বিজেপি

আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০০

২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। ভোটের মাঠে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে এরইমধ্যে প্রচারের কর্মসূচি নির্ধারণ করে ফেলেছে বিজেপি। এবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ কর্মসূচির পরিকল্পনা করছে দলটি। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর মোদির জন্মদিন। এদিন ৭১ বছরে পা দেবেন তিনি। তাই তাকে সম্মান জানাতে রাজ্যের ৭১টি স্থানে গঙ্গা পরিচ্ছন্ন করার উদ্যোগ নিয়েছে গেরুয়া শিবির।

এছাড়া ওই দিন থেকে শুরু করে ২০ দিন ধরে সব রাজ্যে চলবে বিজেপির বিশেষ কর্মসূচি। ২০ বছর ধরে জনসেবা করছেন মোদি। সেই কাজকে সম্মান জানাতেই এই উদ্যোগ নিয়েছে তার দল। ইতোমধ্যেই দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা এ সংক্রান্ত নির্দেশাবলী পাঠিয়ে দিয়েছেন প্রত্যেক রাজ্যের বিজেপি কর্মীদের। শুরু হয়ে গেছে প্রস্তুতিও।

দলের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, রক্তদান শিবিরসহ একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ২০ দিন ধরে চলবে সেই উদযাপন। সব রাজ্য থেকে মোট পাঁচ কোটি পোস্ট কার্ড পাঠানো হবে নরেন্দ্র মোদিকে। জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হবে এসব কার্ডে। সূত্র: টিভি ৯।

/এমপি/

সম্পর্কিত

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৯

চীন সম্প্রতি পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম হাইপারসোনিক ক্ষেপণাস্ত্রের যে পরীক্ষা চালিয়েছে, সেই খবরকে অনেকে বর্ণনা করেছেন মোড় বদলানো একটা ঘটনা হিসাবে। এই পরীক্ষার খবর যুক্তরাষ্ট্রকে চমকে দিয়েছে। এটা আসলেই কতটা চমকে দেওয়ার মতো ঘটনা। সেটি ব্যাখ্যা করেছেন যুক্তরাজ্যের এক্সিটার ইউনিভার্সিটির স্ট্রাটেজি অ্যান্ড সিকিউরিটি ইনস্টিটিউটের জনাথান মার্কাস।

গ্রীষ্মকালে, চীনা সামরিক বাহিনী দুই বার মহাকাশে রকেট উৎক্ষেপণ করে, যে রকেট পৃথিবী পরিক্রমা করার পর তার লক্ষ্যবস্তুর দিকে দ্রুতগতিতে ছুটে যায়। প্রথমবার সেটি লক্ষ্যবস্তুর প্রায় ২৪ মাইল দূর দিয়ে চলে যায়, ফলে নিশানায় আঘাত করতে ব্যর্থ হয়। গোয়েন্দা তথ্য বিষয়ক এক ব্রিফিং থেকে যারা এ তথ্য জানতে পারেন, তাদের সঙ্গে কথা বলে প্রথম এই খবর প্রকাশ করে লন্ডন থেকে প্রকাশিত অর্থনীতি বিষয়ক প্রভাবশালী সংবাদপত্র ফিনান্সিয়াল টাইমস।

যুক্তরাষ্ট্রের কিছু রাজনীতিক এবং ভাষ্যকার চীনের কার্যত এই উন্নতিতে শঙ্কা প্রকাশ করেন। বেইজিং অবশ্য তড়িঘড়ি এই রিপোর্ট নাকচ করে দিয়ে বেশ জোরের সঙ্গে জানায়, তারা আসলে পুনর্ব্যবহারযোগ্য একটি মহাকাশ যান পরীক্ষা করছিল।

ক্যালিফোর্নিয়ার মন্টেরেতে মিডলবেরি ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশানাল স্টাডিজে পূর্ব এশিয়ায় অস্ত্র বিস্তার রোধ বিষয়ক গবেষণার পরিচালক জেফ্রি লিউইস চীনের এই অস্বীকৃতিকে তাদের বিষয়টি ‘ঘোলাটে করার প্রয়াস’ হিসেবে দেখছেন। তিনি বলছেন, অন্যান্য সংবাদমাধ্যমে আমেরিকান কর্মকর্তারাও এই পরীক্ষার কথা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরও মনে করছেন, মহাকাশ কক্ষপথে এ ধরনের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে চীন পরীক্ষা চালিয়েছে বলে যে দাবি করা হচ্ছে, সেটা কারিগরি সক্ষমতার দিক থেকে এবং কৌশলগত কারণে চীনের পক্ষে করা খুবই সম্ভব।

ফিলাডেলফিয়ায় ফরেন পলিসি ইন্সটিটিউটের গবেষণা পরিচালক অ্যারন স্টেইন-এর মতে, ফিনান্সিয়াল টাইমসের খবর এবং চীনের অস্বীকৃতি দুটোই সত্য হতে পারে। তার ভাষায়, ‘পুনর্ব্যবহারযোগ্য একটি মহাকাশযানও একটি হাইপারসোনিক গ্লাইডার। গ্লাইডার জাতীয় প্রযুক্তির মাধ্যমে ফবস ব্যবহার করলে সেটা একটা পুনর্ব্যবহারযোগ্য মহাকাশযানের মতোই কাজ করবে। কাজেই দুই বক্তব্যের মধ্যে যে পার্থক্য আছে তা খুবই নগণ্য।’

কয়েক মাস ধরে বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন মার্কিন কর্মকর্তাও এমন ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন যে, চীন এই প্রযুক্তিতে অনেক উন্নতি করেছে।

ফবস আসলে নতুন কোন প্রযুক্তি নয়। শীতল যুদ্ধের সময় সোভিয়েত ইউনিয়ন এই প্রযুক্তির ধারণা নিয়ে কাজ করেছিল। চীন এখন দৃশ্যত সেই প্রযুক্তি নিয়ে অগ্রসর হচ্ছে। এই পদ্ধতিতে ছোঁড়া অস্ত্র পৃথিবীর কক্ষপথে আংশিকভাবে ঢোকে, ফলে কোন দিক থেকে সেটা লক্ষ্যবস্তুকে আঘাত করবে সেটি আন্দাজ করা সম্ভব হয় না।

ধারণা করা হচ্ছে, চীন এখন যা করেছে সেটি হলো, ফবস প্রযুক্তিকে হাইপারসোনিক গ্লাইডারের সঙ্গে সংযুক্ত করে নতুন একটি প্রযুক্তি তৈরি করেছে। এই প্রযুক্তিতে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্র পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের গা ঘেঁষে চলে, যে কারণে কোনও রাডারে তা ধরা পড়ে না কিংবা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থায় সেটিকে ধ্বংস করাও সম্ভব হয় না।

চীনের লক্ষ্য আসলে কী?

মিডলবেরি ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশানাল স্টাডিজের জেফ্রি লিউইস বলেন, ‘বেইজিং-এর আশঙ্কা চীনের পরমাণু প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ধ্বংস করতে যুক্তরাষ্ট্র তাদের আধুনিক পারমাণবিক অস্ত্র এবং ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থা সমন্বিতভাবে ব্যবহার করবে।’ অ্যারন স্টেইন বলছেন, পরমাণু শক্তিধর বড় দেশগুলোর বেশিরভাগই এখন হাইপারসোনিক মিসাইল ব্যবস্থা গড়ে তুলছে, তবে এই প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে তাদের দৃষ্টিভঙ্গিতে তফাৎ রয়েছে। তার যুক্তি, দৃষ্টিভঙ্গির এই তফাৎই এক দেশকে আরেক দেশের অভিপ্রায় নিয়ে অতিমাত্রায় সন্দিগ্ধ করে তুলছে এবং অস্ত্র প্রতিযোগিতায় মূল ইন্ধন যোগাচ্ছে।

অ্যারন স্টেইনের বিশ্বাস, চীন ও রাশিয়া মনে করে হাইপারসোনিক ক্ষেপণাস্ত্র, মিসাইল প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে পরাজিত করার নিশ্চিত একটা প্রযুক্তি। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে চায়, তাদের বিবেচনায় সেইসব লক্ষ্যবস্তুকে ধ্বংস করতে, যেগুলো পারমাণবিক অস্ত্রের কমান্ড এবং নিয়ন্ত্রণে ব্যবহার করা হয়। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

নতুন বিপদে ব্রিটিশ তরুণীরা, ফোটানো হচ্ছে সুচ

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:০০

গত সোমবারের ঘটনা। নটিংহ্যামের একটি নাইটক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন লিজি উইলসন। আচমকা পিঠে সূক্ষ্ম একটা ব্যথা টের পেলেন। বুঝতে পারলেন কেউ একজন সুচ বিঁধিয়েছে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আততায়ী চলে গেলো আড়ালে। মিনিট দশেক পরই উইলসন টের পেলেন তিনি পা নাড়াতে পারছেন না। টলতে টলতে কোনোমতে ডাক দিলেন বন্ধুদের। তারাই এগিয়ে এসে উদ্ধার করে তাকে।

উইলসন আগে থেকেই জানতেন তরুণীদের টার্গেট করে ইদানীং ক্লাবগুলোর আশপাশে এভাবে চেতনানাশক ইনজেকশন পুশ করা হচ্ছে। তাই দেরি না করে বন্ধুদের বললেন, দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে। কারণ তিনি জানেন, একটু পরই তার পুরো শরীর অবশ হয়ে পড়বে।

‘এমন পরিস্থিতিতে কাউকেই যেনও যেতে না হয়।’ নটিংহামের কলেজপড়ুয়া উইলসন জানালেন নিউ ইয়র্ক টাইমসকে। বললেন, ‘আমার মনে হচ্ছিল, আমার নিজের ওপর কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই।’

স্পাইকিংয়ের শিকার তরুণী লিজি উইলসন

গত এক বছর ধরেই ব্রিটেনে তরুণীদের ওপর সহিংসতা বেড়েছে উদ্বেগজনক হারে। অপহরণ, খুন- এসবই এখন দেশটির বড় ইস্যু। এমনকি বিভিন্ন স্থানে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদও হচ্ছে। নাইটক্লাব কিংবা রাতে ঘুরতে বের হওয়া উঠতি বয়সী মেয়েদের টার্গেট করে এমন হামলা চালানোর নেপথ্যে কেউ দায়ী করছেন সম্প্রতি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা করোনা-পরবর্তী অপসংস্কৃতিকে।

এর আগে কিশোরী ও তরুণীদের গায়ে এভাবে সুচ ফোটানোর বিষয়টি ছিল বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এখন একই ধরনের ভিকটিমের সংখ্যা বাড়ছেই। শুধু নটিংহ্যাম্পশায়ারেই সম্প্রতি এমন ১২টি ঘটনা ঘটেছে। স্কটল্যান্ডের পুলিশের কাছেও আসছে এমন ঘটনার (স্থানীয় ভাষায় যাকে বলা হচ্ছে স্পাইকিং) অভিযোগ।

স্পাইকিংয়ের শিকার তরুণীরা বেশি হলেও, কিছু তরুণও এমন ঘটনার শিকার হয়েছেন। নটিংহ্যাম্পশায়ার পুলিশ বলছে, ইনজেকশন পুশ করেই সটকে পড়ছে আততায়ী। এখন পর্যন্ত এমন কোনও ঘটনার সঙ্গে কোনও ধরনের যৌন নির্যাতনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি। আততায়ীরা মূলত নাইটক্লাবগুলোকে টার্গেট করেই এ কাজটা করছে।

এমন উন্মুক্ত স্থানেও ঘটেছে স্পাইকিংয়ের ঘটনা

নারী অধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করছেন নটিংহ্যাম্পশায়ারের সাবেক পুলিশ প্রধান ‍সু ফিশ। তিনি জানালেন, ‘আচরণের এরচেয়ে অবনতির কথা ভাবা যায় না। এমন ঘটনার শিকড় আরও গভীরে গাঁথা।’

ইউনিভার্সিটি অব লিভারপুল-এর অধ্যাপক ও সেখানকার অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ফিয়োনা মিশাম জানালেন, “জাতীয় পর্যায়ে প্রতি বছরই কয়েকশ’ স্পাইকিংয়ের ঘটনা ঘটে থাকে। এর ঝুঁকি এখনও কম হলেও প্রতিটি অভিযোগকেই গুরুত্ব দিয়ে আলাদাভাবে তদন্ত করতে হবে। আমার মনে হয় এখানে ভীতিটা কাজ করছে বেশি। নাইটক্লাবগুলোর প্রতি ক্ষোভটাও এড়িয়ে যাওয়া যাচ্ছে না।”

দেশটির হোম অ্যাফেয়ার্স সিলেক্ট কমিটির প্রধান ইভেট কুপার জানালেন, ‘সমস্যাটার মাত্রা কতটা তা নিয়ে এখনও বাস্তবধর্মী কোনও গবেষণা হয়নি। এখনও এসব ক্ষেত্রে ভিকটিমের ওপর দোষ চাপানোর প্রবণতা দেখা যাচ্ছে।’

নটিংহ্যামের নাইটক্লাবগুলোতে বাড়ানো হচ্ছে নিরাপত্তা

তরুণীদের ওপর এমন সহিংসতার প্রেক্ষাপটে দেখা দিয়েছে প্রতিবাদ ও বিতর্ক। ব্রিটিশ তরুণীদের একটি অংশ প্রতিবাদ হিসেবে ক্লাবগুলোকে সাময়িক বর্জন করার আহ্বান জানিয়েছে। তাদের কথা হলো, ক্লাবগুলোতে নিরাপত্তা বাড়াতে হবে। প্রত্যেককে তল্লাশি করতে হবে। অন্যদিকে কিছু কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলছে, রাতে বাইরে বের হলে তরুণীরা যেনও শক্তপোক্ত পোশাক পরে।

এর প্রতিবাদে নিউ ইয়র্ক টাইমসকে কয়েকজন তরুণী বলেছেন, ‘আমরা তো আর বর্ম পরে ঘুরে বেড়াতে পারবো না।’ আগে দেখা যেত পানীয়র মধ্যে চেতনানাশক দেওয়া হচ্ছে। তখন কাপ ঢেকে রাখার পরামর্শ দেওয়া হতো তাদের। এখন তো খাঁচায় ঢুকে চলাফেরা করা সম্ভব নয়।

কিছু তরুণী পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতের দাবিতে ক্লাব বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন

অ্যালি ভ্যালেরো নামের ২০ বছর বয়সী এক তরুণী জানালেন, ক্লাব বর্জনের আহ্বান মানে এই নয় যে আমরা ঘরে বসে থাকতে বলছি। আমরা ক্লাব ম্যানেজারদের বলতে চাচ্ছি তারা যেনও তাদের পরিবেশটাকে আরও নিরাপদ করে।

এদিকে কিছু ইউনিভার্সিটির টুইট নিয়েও খেপেছেন ব্রিটিশ তরুণীরা। সম্প্রতি এক টুইটে ইংল্যান্ডের একটি বিশ্ববিদ্যালয় বলেছে, তরুণীরা যেনও ইনজেকশন ফোটানোর ঝুঁকিযুক্ত স্থানগুলো এড়িয়ে চলে। প্রতিবাদের তোপে সেই টুইট মুছে ফেলতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ।

এ প্রসঙ্গে সাবেক পুলিশ প্রধান সু ফিশ বললেন, ‘নারীরা অনেক দিন ধরেই এসব মেনে চলছেন। এখন সময় এসেছে পুরুষের আচরণ বদলানোর।’

 

/এএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

অনিরাপদ দেশে অভিবাসীদের ফেরত পাঠাবেন না: পোপ ফ্রান্সিস

অনিরাপদ দেশে অভিবাসীদের ফেরত পাঠাবেন না: পোপ ফ্রান্সিস

বাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে থাকতে আপত্তি, তাই কারাগারে যাওয়ার আবেদন

বাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে থাকতে আপত্তি, তাই কারাগারে যাওয়ার আবেদন

নতুন সেনাবাহিনী তৈরির পরিকল্পনা ইউরোপের পাঁচ দেশের

নতুন সেনাবাহিনী তৈরির পরিকল্পনা ইউরোপের পাঁচ দেশের

সুদানের প্রধানমন্ত্রী গৃহবন্দি, আটক চার মন্ত্রী

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১০:১৯

উত্তর আফ্রিকার দেশ সুদানের প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লা হামদককে গৃহবন্দি করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। ২৫ অক্টোবর সোমবার ভোরে সেনাবাহিনীর অজ্ঞাত একটি ফোর্স তার বাড়ি ঘিরে ফেলে। এর পরপরই রাজনৈতিক সংকটে টালমাটাল দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। তবে সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীকে গৃহবন্দি করার পাশাপাশি তার সরকারের চার মন্ত্রীকেও আটক করেছে অজ্ঞাত সেনাসদস্যরা। আবদাল্লা হামদকের সংবাদমাধ্যম বিষয়ক উপদেষ্টাকেও আটক করা হয়েছে। 

অভ্যুত্থান ঠেকাতে নাগরিকদের রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানিয়েছে গণতন্ত্রপন্থী একটি গ্রুপ।

রাজধানী খার্তুমে ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে একাধিক স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। খার্তুম থেকে আল জাজিরার প্রতিনিধি হিবা মর্গান জানান, দেশটিতে টেলিযোগাযোগ সীমিত করে দেওয়ায় সঠিক তথ্য পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে।

২০১৯ সালে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে সরিয়ে দেওয়ার পর ক্ষমতা ভাগাভাগির দুর্বল একটি চুক্তিতে উপনীত হয় সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক গোষ্ঠীগুলো। ওই চুক্তির আলোকেই গত দুই বছর ধরে দেশটি পরিচালিত হয়ে আসছিল। গত সেপ্টেম্বরে ব্যর্থ এক অভ্যুত্থান চেষ্টা চালায় ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট বশিরের অনুগত সেনারা। ওই ঘট্নায় সরকারের সামরিক ও বেসামরিক অংশগুলো বিভক্ত হয়ে পড়ে। উভয়  পক্ষের মধ্যে আস্থার সংকট দেখা দেয়। এর মধ্যেই সোমবার ভোরে দেশটিতে অভ্যুত্থানের খবর আসে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

অবৈধ শোধনাগারে বিস্ফোরণ, নাইজেরিয়ায় নিহত অন্তত ২৫

অবৈধ শোধনাগারে বিস্ফোরণ, নাইজেরিয়ায় নিহত অন্তত ২৫

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

ব্রিটিশ সতর্কতা জারির পর উগান্ডায় বোমা হামলা

ব্রিটিশ সতর্কতা জারির পর উগান্ডায় বোমা হামলা

‘দাবিটা সরল, তালেবানকে বসতে দেবেন না’

‘দাবিটা সরল, তালেবানকে বসতে দেবেন না’

অবৈধ শোধনাগারে বিস্ফোরণ, নাইজেরিয়ায় নিহত অন্তত ২৫

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৫

নাইজেরিয়ার রিভারস প্রদেশের একটি অবৈধ তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণে কয়েকটি শিশুসহ অন্তত ২৫ জন নিহত হয়েছে। রবিবার স্থানীয় এক নেতা এবং এক বাসিন্দা ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, গত শুক্রবার ওই বিস্ফোরণ ঘটে।

স্থানীয় কমিউনিটি নেতা ইফায়েনি ওমানো বলেন, ‘হতাহতের সংখ্যা খুব বেশি... আমরা ২৫টি মরতেহ গুনেছি। তাদের পরিচয় সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত নই।’ নিহতদের মধ্যে শিশু থাকার কথা নিশ্চিত করেন তিনি।

ইফায়েনি ওমানো এবং স্থানীয় বাসিন্দা চিকওয়েম গডউইন জানান, শুক্রবার ভোরের দিকে ওই বিস্ফোরণে বেশ কয়েকটি জনগোষ্ঠীর মানুষ নিহত হয়েছে।

এর আগে স্থানীয় পুলিশের এক মুখপাত্র বিস্ফোরণের কথা জানান। তবে হতাহতের সংখ্যা প্রকাশ করেননি তিনি।

নাইজেরিয়ার তেল সমৃদ্ধ ডেল্টা অঞ্চলে অবৈধ শোধনাগার থাকা বেশ স্বাভাবিক ঘটনা। স্থানীয় দরিদ্র বাসিন্দারা পাইপলাইন থেকে তেল চুরি করে বিক্রি করে থাকে। অপরিশোধিত জ্বালানি তেল ড্রামে উত্তপ্ত করে শোধন করা হয়, যা খুবই বিপজ্জনক।

আফ্রিকার সবচেয়ে বড় তেল রফতানিকারক নাইজেরিয়া। কর্মকর্তাদের আশঙ্কা পাইপলাইন থেকে চুরির কারণে প্রতিদিন দেশটি গড়ে প্রায় ২ হাজার ব্যারেল তেল হারায়। যা দেশটির উৎপাদনের ১০ শতাংশের বেশি। তেল চুরি এবং পাইপলাইন নষ্টের কারণে পরিবেশেরও মারাত্মক ক্ষতি হয়ে থাকে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

সুদানের প্রধানমন্ত্রী গৃহবন্দি, আটক চার মন্ত্রী

সুদানের প্রধানমন্ত্রী গৃহবন্দি, আটক চার মন্ত্রী

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

ব্রিটিশ সতর্কতা জারির পর উগান্ডায় বোমা হামলা

ব্রিটিশ সতর্কতা জারির পর উগান্ডায় বোমা হামলা

সহকর্মীকে গুলি, পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দিচ্ছেন না নার্সরা

সহকর্মীকে গুলি, পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দিচ্ছেন না নার্সরা

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৩

তাজিকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তে রাশিয়ার নেতৃত্বে ছয় দিনের সামরিক মহড়া শেষ হয়েছে। এই মহড়ার উদ্দেশ্য হলো দক্ষিণ দিক থেকে কোনও আগ্রাসন আসলে দুসানবে রক্ষায় রাশিয়ার প্রস্তুতি দেখানো।

কাবুলের তালেবান নেতৃত্বের সঙ্গে শুরু থেকেই তাজিকিস্তানের সম্পর্ক খারাপ। সীমান্তের উভয় পাশে সেনা সমাবেশে উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে মস্কো। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দেশ তাজিকিস্তানে সামরিক ঘাঁটি  রয়েছে রাশিয়ার।

কালেক্টিভ সিকিউরিটি ট্রিটি অর্গানাইজেশন (সিএসটিও) আয়োজিত এই মহড়ায় বেলারুশ, আর্মেনিয়া, কাজাখাস্তান এবং কিরগিজস্তান অংশ নেয়। প্রায় চার হাজার সেনার পাশাপাশি ট্যাংক, কামান এবং বিমান অংশ নেয়।

তাজিক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শেরালি মিরজো বলেন, প্রথমবারের মতো এতো বড় আকারে মহড়া অনুষ্ঠিত হলো।

সিএসটিও মহাসচিব স্টানিসলাভ জাস বলেন, এই মহড়ার লক্ষ্য হচ্ছে তাজিকিস্তানে কোনও আগ্রাসন সহ্য করা হবে না- তা দেখানো। তিনি বলেন, ‘বিপদের মুখে আমরা তাজিকিস্তানকে একা ছেড়ে যাবো না।’

লাখ লাখ তাজিক আফগানিস্তানে বসবাস করেন। তারাই আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী। আফগানিস্তানে সরকার গঠনে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীকে অন্তর্ভুক্ত করতে ব্যর্থ হওয়ায় তালেবানের কঠোর সমালোচনা করেছেন তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রাখমোন।

রুশ সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে ইমোমালি রাখমোনের সরকার উৎখাতে নৃতাত্ত্বিক তাজিক সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে জোট গড়তে চাইছে তালেবান।

/জেজে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৩
শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া
২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৯
০৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯

সম্পর্কিত

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

শেষ হলো আফগান সীমান্তে রুশ নেতৃত্বাধীন মহড়া

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

‘ইরাকে সরকার গঠনে বিদেশি হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য নয়’

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের নিয়ে বৈঠক আহ্বান ইরানের

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: পুতিন

কাজের বিনিময়ে গম কর্মসূচি চালু করলো তালেবান

কাজের বিনিময়ে গম কর্মসূচি চালু করলো তালেবান

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

‘আফগানিস্তানের প্রভাব পড়তে পারে কাশ্মিরেও’

‘আফগানিস্তানের প্রভাব পড়তে পারে কাশ্মিরেও’

সর্বশেষ

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় প্রথম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় প্রথম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া ডিও লেটার

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া ডিও লেটার

আইডি নাম্বার পাচ্ছে সব সিটি ও পৌর সড়ক

আইডি নাম্বার পাচ্ছে সব সিটি ও পৌর সড়ক

© 2021 Bangla Tribune