X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

সম্পর্কের উন্নতি চাইলে সীমান্তের সেনা প্রত্যাহার করুন: চীনকে ভারত

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪০

বিতর্কিত হিমালয় সীমান্ত থেকে চীন-ভারতের সেনা প্রত্যাহারের মাধ্যমেই দু'দেশের সম্পর্ক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব মনে করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) শীর্ষ সম্মেলনের পার্শ্ব বৈঠকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-কে এ কথা বলেন তিনি।

তাজিকিস্তানের দুশানবেতে বৈঠকে বসেন দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বৈঠকের পর টুইট বার্তায় জয়শঙ্কর জানান, ‘চীন-ভারতের বিতর্কিত সীমান্ত থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। সীমান্তে শান্তি ও স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারে এর কোনও বিকল্প নেই। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার জরুরি’।

এদিকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং বলছেন, ‘চীন-ভারত সীমান্ত সমস্যা নিরসনে বেইজিং সব সময় ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়ে আসছে। সমস্যা সমাধানে দুই দেশের এক হয়ে কাজ করা উচিত’। 

২০২০ সালের মে মাসে পূর্ব লাদাখ সীমান্তের লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তীব্র বিরোধে জড়ায় ভারত ও চীন। প্রাণঘাতী সহিংসতার পর বিতর্কিত সীমান্ত এলাকা থেকে সৈন্য প্রত্যাহারে ধারাবাহিকভাবে কূটনৈতিক ও সামরিক পর্যায়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে উভয় দেশ। 

/এলকে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

তালেবানের সঙ্গে বসছেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানের সঙ্গে বসছেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিত যুক্তরাষ্ট্রের

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৩৬

সুদানে সামরিক অভ্যুত্থানের পর দেশটিতে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এ ঘোষণা দিয়েছেন। একইসঙ্গে তিনি দেশটিতে অবিলম্বে বেসামরিক সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান।

এক বিবৃতিতে সুদানে অভ্যুত্থানের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। তিনি বলেন, এই অভ্যুত্থান এবং দেশটির প্রধানমন্ত্রী হামদক-সহ বেসামরিক নেতাদের গ্রেফতার গ্রহণযোগ্য নয়। সামরিক বাহিনীকে গ্রেফতারকৃতদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং অবিলম্বে তাদের মুক্তি দিতে হবে।

অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেন, গণতন্ত্রের প্রতি সমর্থন জানাতে সুদানের জনগণের শান্তিপূর্ণভাবে সমবেত হওয়ার অধিকারকে যুক্তরাষ্ট্র দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর গোলাবারুদ ব্যবহার করেছে; এমন খবরে ওয়াশিংটন গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর সহিংসতা বন্ধ করা উচিত।

তিনি বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্র অবিলম্বে সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের জরুরি অর্থনৈতিক সহায়তা স্থগিত করছে।

সংকট উত্তরণে সুদানের সামরিক ও বেসামরিক প্রতিনিধিদের অবিলম্বে সংলাপে বসার তাগিদ দিয়েছে আফ্রিকান ইউনিয়ন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-এর পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল বলেছেন, দেশটিকে আগের অবস্থানে ফেরাতে আঞ্চলিক সহযোগী দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই।

২০১৯ সালে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে সরিয়ে দেওয়ার পর ক্ষমতা ভাগাভাগির দুর্বল একটি চুক্তিতে উপনীত হয় সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক গোষ্ঠীগুলো। ওই চুক্তির আলোকেই গত দুই বছর ধরে দেশটি পরিচালিত হয়ে আসছিল। গত সেপ্টেম্বরে ব্যর্থ এক অভ্যুত্থান চেষ্টা চালায় ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট বশিরের অনুগত সেনারা। ওই ঘট্নায় সরকারের সামরিক ও বেসামরিক অংশগুলো বিভক্ত হয়ে পড়ে। উভয়  পক্ষের মধ্যে আস্থার সংকট দেখা দেয়।

এর মধ্যেই সোমবার ভোরে দেশটিতে অভ্যুত্থানের খবর আসে। পরে সেনাপ্রধান আব্দেল ফাত্তাহ আল-বুরহান জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ২০১৯ সালে বেসামরিক ও সামরিক নেতৃত্বের মধ্যে ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে যে চুক্তি হয়েছিল সেটি দেশের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। সূত্র: আল জাজিরা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৭

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৭

সুদানে অভ্যুত্থানে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

সুদানে অভ্যুত্থানে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেবে রাশিয়া

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫৬

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেওয়ার কথা জানিয়েছে রাশিয়া। সোমবার রুশ প্রেসিডেন্টের আফগানিস্তান বিষয়ক দূত জমির কাবুলোভ এ ঘোষণা দেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।

বুধবার ইরানের উদ্যোগে আয়োজিত আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলোর বৈঠকে মস্কো অংশ নেবে বলে জানান জমির কাবুলোভ।

তিন পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া এবং আফগানিস্তানের প্রতিবেশী পাকিস্তানের সমন্বয়ে গঠিত সম্প্রসারিত ট্রয়কা-ও আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে আফগানিস্তান ইস্যুতে মিলিত হবে। পাকিস্তানে অনুষ্ঠিতব্য এই বৈঠকেও অংশ নেবে মস্কো।

যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তান বিষয়ক সাবেক দূত জালমে খলিলজাদের পদত্যাগের পর তার স্থলাভিষিক্ত হওয়া টম ওয়েস্ট এ সম্মেলনে অংশ নেবেন। এই কূটনীতিক জানিয়েছেন, তিনি এই বৈঠকের অপেক্ষায় রয়েছেন।

জমির কাবুলোভ বলেন, ট্রয়কা বৈঠকে আমরা কিভাবে জাতিসংঘকে নিয়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির পুনর্গঠনে কাজ করতে পারি সে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি ন্যাটো জোটের অন্য দেশগুলোকেও আফগানিস্তানের পুনর্গঠনে অংশ নেওয়ার তাগিদ দেন কাবুলোভ। নভেম্বরের গোড়ার দিকে ইউরোপীয় দেশগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে তার বৈঠকের পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান রুশ প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র।

এদিকে তালেবানকে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যেতে পারে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের এমন মন্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছে আফগানিস্তান। এ নিয়ে কথা বলেছেন আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আবদুল কাহার বালখি। তিনি বলেন, ইসলামিক আমিরাত অব আফগানিস্তানের নেতাদের নাম নিষিদ্ধ তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়ে রুশ প্রেসিডেন্টের মন্তব্যকে স্বাগত জানায় আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে তিনি বলেন, যুদ্ধের অধ্যায় যেমন শেষ হয়েছে, তেমনি বিশ্বের দেশগুলোকেও আফগানিস্তানের প্রতি তাদের দৃষ্টিভঙ্গিতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে। আমরা পারস্পরিক সম্পর্কের নীতির ভিত্তিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্ক চাই।

সম্প্রতি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানান, সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকা থেকে তালেবানের নাম বাদ দেওয়া যেতে পারে। তিনি বলেন, নিঃসন্দেহে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি তালেবানের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আমাদের সবার প্রত্যাশা, তারা ইতিবাচক উপায়ে দেশটির অগ্রসর হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করবে। সূত্র: ফার্স্টপোস্ট।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

শীতে লাখ লাখ আফগান অনাহারে থাকার আশঙ্কা!

শীতে লাখ লাখ আফগান অনাহারে থাকার আশঙ্কা!

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩৬

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা মাকো। মঙ্গলবার সকালে রাজপরিবার ত্যাগ করে দীর্ঘদিনের সহপাঠী এবং বন্ধু কেই কোমুরোর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তবে এর জন্য তাকে যাবতীয় রাজকীয় মর্যাদা ত্যাগ করতে হয়েছে।

জাপানের আইন অনুযায়ী, রাজপরিবারের কোনও নারী সদস্য বাইরের কোনও সাধারণ পুরুষকে বিয়ে করলে তার রাজকীয় মর্যাদা হারান। পুরুষ সদস্যদের ক্ষেত্রে অবশ্য এই নিয়ম নেই।

প্রিন্সেস মাকো রাজকীয় মর্যাদা হারানোর পাশাপাশি রাজপরিবারের সদস্যদের বিয়ের ক্ষেত্রে যেসব আনুষ্ঠানিকতা পালন করা হয়, সেগুলোও পরিহার করেছেন। রাজকন্যা চলে গেলে তাকে অর্থ সাহায্য করা হয়, যা দিয়ে তার পরবর্তী জীবন কাটবে। মাকো ১৩ লাখ ডলারের সেই অর্থ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। অর্থাৎ, রাজকীয় তহবিলও প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিয়ে নিবন্ধনের জন্য টোকিওর বাসভবন ছাড়েন তিনি। বাড়ি ছাড়ার আগে মা-বাবাকে সম্মান প্রদর্শন করেন। জড়িয়ে ধরেন প্রিয় ছোট বোনকে। তারপর গাড়িতে করে বিয়ে করতে যান নিজের দীর্ঘদিনের বন্ধুকে।

মাকোর স্বামী একজন মার্কিন আইনজীবী। বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রেই স্থায়ী হবেন তিনি।

জাপানের সংবাদমাধ্যমে বেশ কিছু দিন ধরেই মাকো এবং কোমুরোকে নিয়ে আলোচনা চলছে। বিয়ের জন্যই যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরেন কোমুরো।

জাপানি মিডিয়ার একাংশ এই নবদম্পতিকে প্রিন্স হ্যারি এবং মেগান ম্যার্কেলের সঙ্গে তুলনা করতে শুরু করেছে। জাপানের হ্যারি-মেগান বলা হচ্ছে তাদের। সূত্র: ডিডব্লিউ।

/এমপি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেবে রাশিয়া

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেবে রাশিয়া

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

ছায়াপথের বাইরে প্রথম কোনও গ্রহের লক্ষণ দেখতে পেলেন বিজ্ঞানীরা

ছায়াপথের বাইরে প্রথম কোনও গ্রহের লক্ষণ দেখতে পেলেন বিজ্ঞানীরা

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৭

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৭

সুদানে সোমবারের সামরিক অভ্যুত্থানের পর দেশটিতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলের খবর ছড়িয়ে পড়তেই রাজধানী খার্তুমসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে রাজপথে নেমে আসে বিক্ষুব্ধ জনতা। এক পর্যায়ে বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি চালায় সেনাবাহিনী। এতে অন্তত সাত বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে আরও ১৪০ জন। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিভিন্ন স্থানে টায়ার পুড়িয়ে রাস্তা বন্ধ করে দেয় আন্দোলনকারীরা। বিক্ষোভের তীব্রতায় এক পর্যায়ে খার্তুম বিমানবন্দর বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে সেখানে সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট স্থগিত রয়েছে। বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট ও অধিকাংশ ফোনের সংযোগ।

এদিন সেনাসদস্যদের গুলিতে আহত হওয়া একজন বিক্ষোভকারী সাংবাদিকদের জানান, সেনাসদরের বাইরে তার পায়ে গুলি চালানো হয়।  

তিনি বলেন, সেনারা প্রথমে স্টান গ্রেনেডের বিস্ফোরণ ঘটায়। তারপর গুলি ছোড়ে। আল-তায়েব মোহাম্মদ আহমেদ নামের একজন বলেন, ‘চোখের সামনে দুই জন মানুষ নিহত হয়েছে।’

খার্তুমের একটি হাসপাতালে রক্তাক্ত পোশাক ও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে, এমন বহু মানুষকে দেখা গেছে।

টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে বিরোধীদলীয় জোট ‘ফোর্সেস অব ফ্রিডম এন্ড চেঞ্জ’ জানিয়েছে, সামরিক বাহিনীকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করতে তারা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ ও অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিয়েছে।

সোমবারের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে রাজধানী খার্তুমে ব্যাপক ধরপাকড় চালানো হয়। সেনাসদস্যরা ঘরে ঘরে গিয়ে স্থানীয় বিক্ষোভের আয়োজকদের আটক অভিযানে নামে।

২০১৯ সালে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে সরিয়ে দেওয়ার পর ক্ষমতা ভাগাভাগির দুর্বল একটি চুক্তিতে উপনীত হয় সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক গোষ্ঠীগুলো। ওই চুক্তির আলোকেই গত দুই বছর ধরে দেশটি পরিচালিত হয়ে আসছিল। গত সেপ্টেম্বরে ব্যর্থ এক অভ্যুত্থান চেষ্টা চালায় ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট বশিরের অনুগত সেনারা। ওই ঘট্নায় সরকারের সামরিক ও বেসামরিক অংশগুলো বিভক্ত হয়ে পড়ে। উভয়  পক্ষের মধ্যে আস্থার সংকট দেখা দেয়। এর মধ্যেই সোমবার ভোরে দেশটিতে অভ্যুত্থানের খবর আসে।

এই অভ্যুত্থানের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি বলছে, এর ঘটনায় সুদানের গণতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হবে। চলমান পরিস্থিতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছে আফ্রিকান ইউনিয়ন। সংকট উত্তরণে সামরিক ও বেসামরিক দলের প্রতিনিধিদের অবিলম্বে সংলাপে বসার তাগিদ দিয়েছে ইউনিয়ন নেতারা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-এর পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল বলেন, দেশটিকে আগের অবস্থানে ফেরাতে আঞ্চলিক সহযোগী দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সুদানে অভ্যুত্থানে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

সুদানে অভ্যুত্থানে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

সুদানে সরকার ভেঙে জরুরি অবস্থা জারি

সুদানে সরকার ভেঙে জরুরি অবস্থা জারি

সুদানের প্রধানমন্ত্রী গৃহবন্দি, আটক চার মন্ত্রী

সুদানের প্রধানমন্ত্রী গৃহবন্দি, আটক চার মন্ত্রী

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৬

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধান মিন অং হ্লাইং-কে বাদ দিয়েই মঙ্গলবার পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের। ভার্চুয়াল এই সম্মেলন থেকে তার বাদ পড়াকে তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা হিসেবে দেখা হচ্ছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের এই শীর্ষ সম্মেলনে আমন্ত্রণ পাননি বার্মিজ জান্তাপ্রধান। জোটের পক্ষ থেকে মিয়ানমারকে জান্তাপ্রধানের বদলে একজন অরাজনৈতিক প্রতিনিধির নাম দিতে বলা হয়েছিল। তবে ওই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে সম্মেলনে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নেন মিয়ানমার।

২৬ থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত তিন দিনের এই ভার্চুয়াল সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-ও অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।

সম্মেলনের প্রথম দিনে আলোচ্যসূচির শীর্ষে রয়েছে মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থান এবং পরবর্তী সময়ে বিরোধীদের ওপর ব্যাপক মাত্রায় দমনপীড়নের বিষয়টি।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনাবাহিনী অং সান সু চির নির্বাচিত সরকারকে উৎখাতের পর থেকেই দেশটিতে বিশৃঙ্খলা চলছে। ওই সময়ে দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেন সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং। দেশটির ভেতর ও বাইরে তৈরি হয় তীব্র ক্ষোভ। চলমান জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে এ পর্যন্ত এক হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। আটক হয়েছে আরও কয়েক হাজার মানুষ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেবে রাশিয়া

আফগানিস্তান ইস্যুতে সিরিজ বৈঠকে অংশ নেবে রাশিয়া

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধীদের হামলায় তিন কর্মকর্তাসহ ৫ সেনা নিহত

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধীদের হামলায় তিন কর্মকর্তাসহ ৫ সেনা নিহত

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

আফগানিস্তানে ফের কূটনৈতিক মিশন চালু করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন?

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তালেবানের সঙ্গে বসছেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানের সঙ্গে বসছেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

চীনের হাইপারসোনিক পরীক্ষা কি নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ইঙ্গিত?

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

আটকেপড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে মোদিকে চিঠি

‘আফগানিস্তানের প্রভাব পড়তে পারে কাশ্মিরেও’

‘আফগানিস্তানের প্রভাব পড়তে পারে কাশ্মিরেও’

শাহরুখ বিজেপিতে যোগ দিলে মাদক হয়ে যাবে চিনি: মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী

শাহরুখ বিজেপিতে যোগ দিলে মাদক হয়ে যাবে চিনি: মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী

চীনে আবারও বাড়ছে করোনা, ‘দ্য উহান ম্যারাথন’ স্থগিত

চীনে আবারও বাড়ছে করোনা, ‘দ্য উহান ম্যারাথন’ স্থগিত

সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করতে মোদিকে চিঠি

সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করতে মোদিকে চিঠি

ভোটের পর রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পাবে কাশ্মির: অমিত শাহ

ভোটের পর রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পাবে কাশ্মির: অমিত শাহ

আরএসএস’র অনেক আদর্শই বামপন্থী, চাঞ্চল্যকর দাবি সাধারণ সম্পাদকের

আরএসএস’র অনেক আদর্শই বামপন্থী, চাঞ্চল্যকর দাবি সাধারণ সম্পাদকের

সর্বশেষ

সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা সরকারের পরিকল্পিত, অভিযোগ বিএনপির

সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা সরকারের পরিকল্পিত, অভিযোগ বিএনপির

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

‘নগদ-ডিআরইউ’ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলা ট্রিবিউনের শাহেদ শফিকসহ ২২ জন

‘নগদ-ডিআরইউ’ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলা ট্রিবিউনের শাহেদ শফিকসহ ২২ জন

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

উখিয়ায় ছয় রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪

চাকরি দিচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

চাকরি দিচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

© 2021 Bangla Tribune