X
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

‘ঘটনা ঘটান আপনারা আর বলেন বিএনপির হাত আছে’

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:৪০

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‍আমরা সবসময় বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করি। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান যারা আছেন, তাদের পাশে আমরা সবসময় ভাইয়ের মতো দাঁড়াই। বাবরি মসজিদের ঘটনার সময় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। আমি তখন উপজেলা চেয়ারম্যান। যখন বাবরি মসজিদের ঘটনা ঘটলো, ডিসি আমাকে ফোন করলেন, আপনারা দ্রুত একটু আসুন, একসঙ্গে কাজ করতে হবে। ডিসি বললেন, প্রধানমন্ত্রী জেলায় জেলায় ফোন করে বলেছেন, বাংলাদেশে কোথাও যেন সাম্প্রদায়িক সমস্যার সৃষ্টি না হয়। কোথাও যেন পূজামণ্ডপ অথবা মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। এভাবে ব্যবস্থা নিয়েছিলাম, সেদিন কোথাও অঘটন ঘটতে দিইনি। আর এই সরকার কি করেছে? ওটার সূত্র ধরে চাঁদপুর, নোয়াখালী আর চট্টগ্রাম তথা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করেছে। থামানোর চেষ্টা করা হয়নি।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকালে চট্টগ্রামের কাজীর দেউরীর টাইম স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম। মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে সভা পরিচালানা করেন নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর।

মির্জা ফখরুল বলেন, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বারবার বলছেন, এই ঘটনার পেছনে নাকি বিএনপি আছে। ঘটনা ঘটান আপনারা আর বলেন বিএনপির হাত আছে। এসব ঘটনা যদি না ঘটান তাহলে জনগণ অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন করবে। জনগণের আন্দোলনকে ঠেকানোর জন্য আপনারা এটা করছেন। এটা করতে না পারলে আপনাদের সমস্যা। পরিষ্কার করে বলতে চাই, এখানে বিরোধী রাজনীতির লোকদের জড়ানোর সুযোগ রাখা হচ্ছে না। আমাদের মিটিং করতে দেয় না। মিটিং করতে গেলে পুলিশ মারে, মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। এবারও পুলিশ মিথ্যা মামলা দেওয়া শুরু করেছে। চৌমুহনীর ঘটনায় আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। পুলিশ-র‌্যাবের সামনে সন্ত্রাসীরা মন্দির ভাঙচুর করলো আর আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রামে এসে দেখলাম এখানে অনেক ফ্লাইওভার করেছে। পাকা ড্রেন করেছে। কিন্তু সাধারণ মানুষের জন্য কি করেছে? সাধারণ মানুষের জন্য তারা কিছু দেখে না। দেড় বছর লকডাউন-লকডাউন খেলা করে সরকার মানুষের জীবিকা অর্জনের পথরুদ্ধ করে দিয়েছে। যারা হকারি করতেন, স্বল্প পুঁজি নিয়ে ব্যবসা করতেন, তারা নিঃস্ব হয়ে গেছেন। গরিব মানুষকে আড়াই হাজার টাকা করে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে, সেই টাকা পর্যন্ত আওয়ামী লীগের নেতারা লুট করে খেয়ে ফেলেছে। আমার কথা নয়, পত্রপত্রিকা খুললে দেখবেন আওয়ামী লীগ কীভাবে সারাদেশে লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন ড্রাইভার, তার অ্যাকাউন্টে ৪০০ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। দেশটাকে কোথায় নিয়ে গেছে তারা? আজ গরিব শুধু গরিব হচ্ছে। আওয়ামী লীগ মোটা থেকে আরও মোটা, তাজা থেকে আরও তাজা, বড়লোক থেকে আরও বড়লোক হচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অনেক অসুস্থ। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিদেশে। বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এমনকি ইউনিয়নের কর্মীদের পর্যন্ত মামলার আসামি করা হয়েছে। এক লাখ মামলায় ৩৫ লাখ নেতাকর্মী আসামি। ৫০০ জনকে খুন-গুম করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সরকারকে আমরা সরাতে পারিনি। আমরা গভীর সংকট পার করছি। বিগত কয়েক বছর দেশে গণতন্ত্র নেই। কথা বলার অধিকার, সভাসমাবেশের অধিকার নেই। গ্রেফতার করে মাসের পর মাস, বছরের পর বছর জেলে রাখছে। এই সরকার মুখে গণতন্ত্র বলে। কিন্তু মানে না। পরিকল্পিতভাবে গণতন্ত্রের মোড়কে একদলীয় শাসন কয়েম করেছে। জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারের গ্রহণযোগ্যতা কোথাও নেই। মিথ্যা কথা বলে। একটাও সত্য কথা কোথাও বলে না। জনগণের সঙ্গে সবসময় প্রতারণা করে এসেছে। গত নির্বাচন নিয়ে কথা বলে না এখন। নির্বাচন কমিশন নিয়ে কথা বলে না। বলে সার্চ কমিটি। ২০০৮ সালে অবৈধ মইনউদ্দিন-ফখরুদ্দীনের সহায়তায় ক্ষমতায় গেলো। তারপর আদালতকে ব্যবহার করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করলো।

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, আমরা খুব দ্রুত কাজ করছি। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দিনরাত কাজ করছেন। নেতা যারা আছেন, তারা কাজ করছেন। দলকে দ্রুত সংগঠিত করে, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলন শুরু করে একটি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে এই সরকারকে সরে যেতে বাধ্য করা হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে, নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা হবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

কাউন্সিলরসহ দুজনকে হত্যা: আরও ২ আসামি রিমান্ডে

কাউন্সিলরসহ দুজনকে হত্যা: আরও ২ আসামি রিমান্ডে

চট্টগ্রামে এবার খালে পড়ে পথশিশু নিখোঁজ

চট্টগ্রামে এবার খালে পড়ে পথশিশু নিখোঁজ

পদত্যাগের আগে চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসনে ছিলেন ডা. মুরাদ

পদত্যাগের আগে চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসনে ছিলেন ডা. মুরাদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

কাউন্সিলরসহ দুজনকে হত্যা: আরও ২ আসামি রিমান্ডে

কাউন্সিলরসহ দুজনকে হত্যা: আরও ২ আসামি রিমান্ডে

চট্টগ্রামে এবার খালে পড়ে পথশিশু নিখোঁজ

চট্টগ্রামে এবার খালে পড়ে পথশিশু নিখোঁজ

পদত্যাগের আগে চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসনে ছিলেন ডা. মুরাদ

পদত্যাগের আগে চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসনে ছিলেন ডা. মুরাদ

ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের

ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের

ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৯ রোহিঙ্গা আটক

ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৯ রোহিঙ্গা আটক

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু

সিনহা হত্যা মামলা: লিখিত বক্তব্য দিচ্ছেন বরখাস্ত এসআই নন্দ দুলাল

সিনহা হত্যা মামলা: লিখিত বক্তব্য দিচ্ছেন বরখাস্ত এসআই নন্দ দুলাল

তিন লাখ ইয়াবা ফেলে পালালো পাচারকারীরা

তিন লাখ ইয়াবা ফেলে পালালো পাচারকারীরা

বাসচাপায় প্রাণ গেলো পথচারীর

বাসচাপায় প্রাণ গেলো পথচারীর

সর্বশেষ

বিএনপি নেতা বাবু হত্যা: ১৪ আসামি কারাগারে

বিএনপি নেতা বাবু হত্যা: ১৪ আসামি কারাগারে

ব্রাজিলিয়ান-জাদুতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আবাহনী

ব্রাজিলিয়ান-জাদুতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আবাহনী

ডা. মুরাদের পদত্যাগে সরিষাবাড়ীতে আনন্দ মিছিল

ডা. মুরাদের পদত্যাগে সরিষাবাড়ীতে আনন্দ মিছিল

পার্বত্য চুক্তি পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবি বিশিষ্টজনদের

পার্বত্য চুক্তি পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবি বিশিষ্টজনদের

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

সৌদি আরবে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বাংলাদেশি নিহত

© 2021 Bangla Tribune