X
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

পেঁয়াজ নিয়ে খেলে কারা?

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৬

হিলি সীমান্তে আমদানি বাড়ায় কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম নেমেছে ৪০ টাকায়। দেশি পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে ৫৫-৬০ টাকা কেজিতে। কয়েক দিনের মধ্যেই সেটাও কমে ৪০-৪৫ টাকা হবে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

দেখা গেছে, কয়েকবছর ধরেই একটা মৌসুমে পেঁয়াজ নিয়ে এক ধরনের খেলা শুরু করে একটি অসাধু সিন্ডিকেট। সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে হঠাৎ বাড়তে থাকে পেঁয়াজের দাম। প্রথম দিকে কেজিতে ৫-১০ টাকা বাড়লেও এক সপ্তাহের মধ্যে তা ৭৫-৮০ টাকায় ওঠে। এ দাম কিছুদিন স্থায়ী হয়। এরপর আবার কমতে শুরু করে।

সরকারি-বেসরকারি ও কৃষকদের দেওয়া তথ্যমতে এ বছর পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছে। সরবরাহেও কমতি নেই। চাহিদার সঙ্গে মিল রেখে আমদানিও হচ্ছে। তা হলে দাম বাড়লো কেন? কারা বাড়িয়েছে?

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশের পেঁয়াজের বাজারে হিলি স্থলবন্দর একটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। হিলি দিয়ে আমদানি বাড়লে দেশের বাজারে দাম কমে। আবার ওই বন্দরে আমদানি কমলে দেশের বাজার অস্থির হয়ে ওঠে। তবে দাম যে গতিতে বাড়ে, সে গতিতে কখনোই কমে না।

বাংলাদেশ কৃষি বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, চলতি বছর পেঁয়াজের উৎপাদন প্রায় ৩০ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে। যা সাধারণত ২৩-২৪ লাখ টনে থাকে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে চাল, আলু ও পেঁয়াজের প্রাপ্যতা ও দামের অস্থিরতা নিয়ে একটি গবেষণা প্রতিবেদন গত ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশ হয়। তাতে দেখা যায়, গত ১০ বছরে পেঁয়াজের উৎপাদন প্রায় ৬০ শতাংশ বেড়েছে।

কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, আগাম পেঁয়াজের উৎপাদন ২ লাখ টন বেড়েছে। এ মৌসুমে উৎপাদিত হয়েছে প্রায় সাড়ে ৬ লাখ টন। বাড়তি উৎপাদনের কারণে সরবরাহ ভালো। আমদানিও কমেছে।

কৃষি বিপণন অধিদফতর থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়া নিয়ে একটি প্রতিবেদন দেওয়া হয়। এতে দেখা যায়, ২০২০ সালের নভেম্বরে ৪৬ হাজার টন পেঁয়াজ এসেছিল। চাহিদা কমতে থাকায় জানুয়ারিতে তা ২৫ হাজার টনে নেমে আসে।

কৃষি অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, দেশে পেঁয়াজের সংকট নেই। আমদানিরও দরকার নাই।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন, দেশে প্রায় ৫ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ মজুত রয়েছে। ভারত ও মিয়ানমার থেকে আমদানি অব্যাহত রয়েছে। টিসিবি ভর্তুকি মূল্যে ট্রাক সেলে পেঁয়াজ বিক্রি অব্যাহত রেখেছে। আমদানি সহজ ও দ্রুত করতে শুল্কও প্রত্যাহার করা হয়েছে। বন্দরে দ্রুত খালাসের জন্য এনবিআরকে অনুরোধ করা হয়েছে এবং পেঁয়াজ আমদানির অনুমতিপত্র দ্রুত প্রদানের জন্য কৃষি বিভাগকে নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

চালবাজিটা শ্যামবাজারে

এত কিছুর পরও এক সপ্তাহের মধ্যে দাম দ্বিগুণ হয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেলো, শ্যামবাজারই হচ্ছে সারা দেশের পেঁয়াজের বড় পাইকারি বাজার। আমদানিকারকরাও এখানে ব্যবসা করেন। পেঁয়াজ নিয়ে মূল চালটা শুরু হয় এখান থেকেই। শ্যামবাজারের ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরাই সুযোগ বুঝে আচমকা দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। তাদের এই ‘খেলা’ কখনও দীর্ঘ সময়, আবার কখনও স্বল্প সময়ের হয়।

পেঁয়াজ (ফাইল ছবি)

সরকারি দায়িত্বপ্রাপ্তরা বলছেন, শ্যামবাজার থেকেই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে একটি ভীতিকর বার্তা ছড়িয়ে দেওয়া হয়। তাতেই অস্থির হয়ে ওঠে পেঁয়াজ, রসুন ও আদার বাজার। ওই বার্তা কানে এলেই খুচরা দোকানিরা বাড়িয়ে দেয় দাম।

এখানকার পাইকারি ও আমদানিকারকরা বিষয়টি অস্বীকার করলেও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার  প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা গেছে। খুচরা ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, এখানকার পাইকারি ব্যবসায়ীরা কখনোই পেঁয়াজ, রসুন ও আদা বিক্রি করে রশিদ বা মেমো দিতে চান না। সরকারি আদেশের পরও এটি কার্যকর হয়নি।


স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়াই একমাত্র পথ

গত বছর দেশে পেঁয়াজের বার্ষিক চাহিদা ছিল ২৫ লাখ মেট্রিক টন। ২০১৯-২০ অর্থবছর ফলন হয়েছে ২৫ লাখ ৫৭ হাজার মেট্রিক টন। ১৭ থেকে ২৫ শতাংশ প্রসেস লস বাদ দিলে মোট উৎপাদন দাঁড়ায় ১৯ লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন। ঘাটতি দাঁড়ায় ৬ থেকে সাড়ে ৬ লাখ টন। এই পরিমাণ পেঁয়াজ ভারত থেকে আমদানি করা হয়। কোনও কারণে আমদানিতে গড়বড় দেখা দিলে বাজার অস্থির হয়। যার প্রভাব দেশে উৎপাদিত ২৫ লাখ টনেও পড়ে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পেঁয়াজ নিয়ে জটিলতা কাটাতে উৎপাদন বাড়িয়ে আমদানি নির্ভরতা কমাতে হবে। স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়াই একমাত্র পথ। শুধু উৎপাদন বাড়ালেই চলবে না, সংরক্ষণও করতে হবে। কারণ, পেঁয়াজ পচনশীল। উৎপাদনের ১৭ থেকে ২৫ ভাগই পচে যায়।

ক্ষেত থেকে পেঁয়াজ তুলে আনছেন কৃষক (ফাইল ছবি)

এ ছাড়া সরকার যেমন ধান-চাল সংগ্রহ করে, তেমনি পেঁয়াজও সংগ্রহ করতে পারে। তবে যে পরিমাণ পচে যায় সেটার দায়িত্ব কে নেবে, এ প্রশ্ন থেকে যায়।

দেশি পেঁয়াজ ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে থাকলে মানুষ আমদানি করা পেঁয়াজ নেবে না। সংশ্লিষ্টদের এ নিয়ে ভাবতে হবে বলেও জানান বিশেষজ্ঞরা।

/এফএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

৮ টাকার সবজি যেভাবে ৮০ টাকা হয়

৮ টাকার সবজি যেভাবে ৮০ টাকা হয়

পেঁয়াজ ও ব্রয়লার মুরগির দাম চড়া, সবজির দাম কমতির দিকে

পেঁয়াজ ও ব্রয়লার মুরগির দাম চড়া, সবজির দাম কমতির দিকে

সম্পর্কিত

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

হিলিতে কমেছে পেঁয়াজের দাম

হিলিতে কমেছে পেঁয়াজের দাম

দুই দিনে হিলিতে পেঁয়াজের দাম বাড়লো ৫ টাকা

দুই দিনে হিলিতে পেঁয়াজের দাম বাড়লো ৫ টাকা

একদিনেই হিলিতে পেঁয়াজের দাম বাড়লো ৩-৪ টাকা

একদিনেই হিলিতে পেঁয়াজের দাম বাড়লো ৩-৪ টাকা

তুলার দাম বেশি, লেপ-তোশক কিনতে এসে ফিরে যাচ্ছেন ক্রেতা

তুলার দাম বেশি, লেপ-তোশক কিনতে এসে ফিরে যাচ্ছেন ক্রেতা

দুই দিনের ব্যবধানে আবারও বাড়লো পেঁয়াজের দাম

দুই দিনের ব্যবধানে আবারও বাড়লো পেঁয়াজের দাম

দাম কমে এক কেজি পেঁয়াজ ২৩ টাকা   

দাম কমে এক কেজি পেঁয়াজ ২৩ টাকা  

সর্বশেষ

ভারত বসলো সিংহাসনে

ভারত বসলো সিংহাসনে

যুক্তরাজ্যে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে দাপুটে হয়ে উঠতে পারে ওমিক্রন: বিশেষজ্ঞ

যুক্তরাজ্যে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে দাপুটে হয়ে উঠতে পারে ওমিক্রন: বিশেষজ্ঞ

রাশিয়াতেও ওমিক্রন শনাক্ত

রাশিয়াতেও ওমিক্রন শনাক্ত

৪ ডাইং কারখানার মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

৪ ডাইং কারখানার মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান

স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, ১২ ঘণ্টার মধ্যে চার্জশিট দিলো পুলিশ 

স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, ১২ ঘণ্টার মধ্যে চার্জশিট দিলো পুলিশ 

মাদককারবারিরা প্রদীপকে ফাঁসিয়েছেন: রানা দাশগুপ্ত

মাদককারবারিরা প্রদীপকে ফাঁসিয়েছেন: রানা দাশগুপ্ত

বাংলাদেশ-ভারত অমীমাংসিত বিষয় নিষ্পন্ন করার তাগিদ

বাংলাদেশ-ভারত অমীমাংসিত বিষয় নিষ্পন্ন করার তাগিদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোভের খেসারত দিচ্ছেন পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

৮ টাকার সবজি যেভাবে ৮০ টাকা হয়

৮ টাকার সবজি যেভাবে ৮০ টাকা হয়

পেঁয়াজ ও ব্রয়লার মুরগির দাম চড়া, সবজির দাম কমতির দিকে

পেঁয়াজ ও ব্রয়লার মুরগির দাম চড়া, সবজির দাম কমতির দিকে

গণপরিবহন বন্ধের প্রভাব নিত্যপণ্যের বাজারে

গণপরিবহন বন্ধের প্রভাব নিত্যপণ্যের বাজারে

© 2021 Bangla Tribune