X
বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
১৭ মাঘ ১৪২৯

এটা অস্তিত্বের লড়াই, সরকারের পদত্যাগ চাই: জোনায়েদ সাকি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
১৮ নভেম্বর ২০২২, ২২:০০আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ২২:০০

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, ‘এবার আমরা লড়ছি- কারণ এটা আমাদের ও দেশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার সংগ্রাম। ৫২ বছরে কী দিয়েছে? আজ জনগণের মধ্যে গণজাগরণ সৃষ্টি হচ্ছে। এই গণজাগরণকে আর বৃথা যেতে দেওয়া হবে না। আমরা শাসনব্যবস্থা পরিবর্তনের লক্ষ্যে এই সরকারের পদত্যাগ চাই। আমরা অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই।’

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত গণতন্ত্র মঞ্চের সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। 

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘অনেকে বলেন, আপনারা এ সরকারকে পদত্যাগ করাতে চান কেন? কেন আমরা এই সরকারের পতন চাই? ওনারা বলেন, ওনারা (সরকারের লোকজন) নাকি উন্নয়ন করছেন। উন্নয়ন তো দৃশ্যমান দেখছি। বড় বড় স্থাপনা হচ্ছে। মনে রাখবেন, বড় বড় স্থাপনা অবকাঠামো এই মডেলটা কেমন পুরোনো লাগে না। আইয়ুব খানের আমলেও বড় বড় স্থাপনা হয়েছিল। এরশাদের আমলেও রাস্তাঘাট হয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ৭ নম্বর সেক্টর কমান্ডার ছিলেন লেফটেনেন্ট কর্নেল নুরুজ্জামান। তিনি এক সাক্ষাতকারে বলছিলেন, তিনি যখন দেশে ফিরেছেন তখন এক কৃষক তাকে বলছিলেন, আমার তো চোখ নেই। আমার চোখ আমি আপনার অন্তরে দিলাম। আমার চোখ দিয়ে বাংলাদেশে গিয়ে দেখবেন, কতটা বদলেছে। গাছের পাতা কী আরও সবুজ হয়েছে, শিশুরা কি হাসতে পারছে? বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমে খবর আসে, আমাদের দেশের নারীরা ওএমএসের লাইনে দাঁড়িয়ে চাল কেনার টাকা নেই। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষের কেনার ক্ষমতা নেই। এই হলো বাংলাদেশের মানুষদের অবস্থা। প্রধানমন্ত্রী ও তার উন্নয়ন ১৪ বছরে এসে দুর্ভিক্ষে পরিণত হয়েছে। এটা আমরা বলিনি, প্রধানমন্ত্রী নিজে বলেছেন।’

রিজার্ভ কমছে উল্লেখ করে গণসংহতি আন্দোলনের এই নেতা বলেন, ‘প্রতিদিন রিজার্ভ কমছে। কেন কমছে? এর কারণ বছরে ৭০-৭৫ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়ে যায়। এই টাকা কীভাবে যায়? এই বাংলাদেশ ব্যাংক গত এক বছরে আট হাজারের ওপরে লেনদেন পেয়েছে, যেগুলোকে তারা অস্বাভাবিক লেনদেন বলছে। এসব ব্যবসায়ীর সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ আছে। এই সরকারের আমলে ১০ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে।’

আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘২০১৪ সালে আপনারা (আওয়ামী লীগ) কাউকে দাঁড়াতে দেননি। ২০১৮ সালে সুষ্ঠু ভোট দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিলেন। আমরা কী দেখলাম? জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, পুলিশ রাতের আঁধারে ব্যালট বাক্স সিল মেরে ভরেছে। এটা উনি পৃথিবীর কোনও দেশে শোনেননি, বাংলাদেশে শুনেছেন। উনি যা বলেছেন, আমরা কি এটা অস্বীকার করতে পারি? তাছাড়া আমরা তো দেখেছি আপনারা কীভাবে রাতের আঁধারে ব্যালট বাক্স ভরেছেন। তারা আবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে। তাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কী? তারা ক্ষমতায় থাকবে, কিন্তু মানুষ ভোটের অধিকার থাকবে না। নির্বাচন নির্বাচন খেলা হবে কিন্তু সেখানে ভোট দিতে পারবে না।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুমসহ প্রমুখ।

/এফআর/
সর্বশেষ খবর
ইন্দিরা ও রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ড নিয়ে যে বিতর্ক জন্ম দিলেন বিজেপির মন্ত্রী
ইন্দিরা ও রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ড নিয়ে যে বিতর্ক জন্ম দিলেন বিজেপির মন্ত্রী
‘ইউক্রেন অস্ত্র না পেলে যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়বে ইউরোপে’
‘ইউক্রেন অস্ত্র না পেলে যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়বে ইউরোপে’
স্যার এ এফ রহমান হল ডিবেটিং ক্লাবের সভাপতি- রায়হান, সম্পাদক মেহেদী
স্যার এ এফ রহমান হল ডিবেটিং ক্লাবের সভাপতি- রায়হান, সম্পাদক মেহেদী
ভারতে বহুতল ভবনে আগুন, নিহত ১৪
ভারতে বহুতল ভবনে আগুন, নিহত ১৪
সর্বাধিক পঠিত
প্রাইজবন্ডের ড্র, প্রথম পুরস্কার ০০৮৮৭০৮
প্রাইজবন্ডের ড্র, প্রথম পুরস্কার ০০৮৮৭০৮
আবাসিক হোটেলটিতে গেলেই গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা হতো ভিডিও
আবাসিক হোটেলটিতে গেলেই গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা হতো ভিডিও
সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দিচ্ছিল বিএসএফ, বিজিবির বাধা
সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দিচ্ছিল বিএসএফ, বিজিবির বাধা
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে চাকরির সুযোগ
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে চাকরির সুযোগ
যুক্তরাষ্ট্রের ‘বার্মা অ্যাক্ট’ আঞ্চলিক সংঘর্ষ বাড়াতে পারে
সেমিনারে বিশ্লেষকরাযুক্তরাষ্ট্রের ‘বার্মা অ্যাক্ট’ আঞ্চলিক সংঘর্ষ বাড়াতে পারে