X
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২
২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব পাঁচ

রেকর্ডিং কোম্পানিগুলোর কাছে যোগ্য সম্মানি পাননি কে. মল্লিক

শহীদ মাহমুদ জঙ্গী
১৩ জুন ২০২২, ১১:৩৪আপডেট : ১৩ জুন ২০২২, ১৩:১১

মূলত সংগীত নিয়ে স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেওয়া এবং নিজে কিছু করার জন্যই কলকাতা আসেন কে. মল্লিক। তবে সেই সময়ে তাঁর নাম ছিল মুন্সী মোহাম্মদ কাশেম। কলকাতা আসার আগে ছিলেন বর্ধমান জেলার কালনা মহকুমার কুসুম গ্রামে। কাশেমের চাচাতো ভাই ইব্রাহিম মুন্সী ছিলেন জমিদার। কাশেম ভালো গাইতেন। এ কারণে জমিদার তাঁকে খুব ভালোবাসতেন, কাছাকাছিই রাখতেন। জমিদারের পৃষ্ঠপোষকতায় কাশেম ভালোই ছিলেন। কিন্তু কলেরায় আক্রান্ত হয়ে জমিদার ইব্রাহিম মুন্সীর মৃত্যু হলে পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটে। পরিবারসহ কাশেম অভাবে পড়েন। এবং মুন্সী মোহাম্মদ কাশেমের কলকাতায় আগমন ঘটে।

তিনি কলকাতার তুলাপট্টিতে অল্প বেতনে কাজ নেন। কিছু দিন পর আর একটু ভালো কাজের আশায় কানপুরে যান। সেখানে হাকিম সাহেবের কাছে সংগীতে তালিম নেন। তারপর আবার কলকাতায় ফিরে আসেন। 

একদিন বন্ধুদের অনুরোধে তুলাপট্টির মোড়ে গান ধরলেন। একটার পর একটা গান গাইছেন। কখন যে ভিড় জমে গেছে, খেয়ালই করেননি। পুলিশের ডাকে বাস্তবে ফিরে আসেন। ওই ভিড়ের মধ্যে আটকে পড়ে গান শোনেন রেকর্ডিং কোম্পানির এক কর্মকর্তা। তিনি মুন্সী মোহাম্মদ কাশেমকে গ্রামোফোন রেকর্ডে গান গাওয়ার প্রস্তাব দিলেন।
 
পরের দিন গান রেকর্ডের জন্য গেলে তাঁকে জানানো হলো ভক্তিগীতি গাইতে হবে। যেহেতু হিন্দু ভক্তিগীতি গাইতে হবে তাই মুন্সী মোহাম্মদ কাশেম নামটি বদলাতে হবে। তিনি নতুন নাম নিলেন কে. মল্লিক। রেকর্ডে প্রকাশিত তাঁর প্রথম গান, ‘হরি দিবানিশি ডাকি তাই’।

গজল, ইসলামি গান, শ্যামা সংগীত কে. মল্লিকের সংগীত জীবনের বড় একটা অংশ দখল করে আছে। ১৯০৯ থেকে ১৯৪৮ সাল পর্যন্ত কে. মল্লিকের বিপুল জনপ্রিয়তা এবং সংগীত জগতে আধিপত্য ছিল। 

কে. মল্লিকের জন্ম ১৮৮৮ সালে।

নজরুল ১৯২৮ সালে এইচ এম ভি-এর সাথে চুক্তি করার পর কে. মল্লিক প্রথম যে দুটি নজরুলসংগীত গেয়েছিলেন, সে দুটো হচ্ছে- ‘বাগিচায় বুলবুলি তুই’ এবং ‘আমারে চোখ ইশারায় ডাক দিলে হায়’। রেকর্ড প্রকাশের সাথে সাথেই হিট। 
নজরুলের প্রচুর গান গেয়েছেন কে. মল্লিক। তাঁর সাথে ভালো সখ্যও ছিল। নজরুলের গান তিনি কে. মল্লিক, কাশেম আবার মোহাম্মদ কাশেম নামেও গেয়েছেন। তবে সর্বাধিক গেয়েছেন কে. মল্লিক নামেই।
 
কে. মল্লিক নজরুলগীতি ছাড়াও রবীন্দ্রসংগীত, দ্বিজেন্দ্রগীতি, রজনীকান্ত, অতুলপ্রসাদের গানও গেয়েছেন কে. মল্লিক। আবার হিন্দি ভক্তিগীতিকেও তিনি জনপ্রিয়তার শীর্ষে নিয়ে গেছেন। প্রচুর বিক্রি ছিল তাঁর গাওয়া সব ধরনের গানের রেকর্ডের। 
গানের ধরন অনুযায়ী রেকর্ডে তাঁর নাম বদলে গেছে বারবার। কখনও কে. মল্লিক, কখনও মোহাম্মদ কাশেম আবার কখনও শুধুই কাশেম। 

রেকর্ড যুগের শুরুর অল্প কয়েক বছর পরেই কে. মল্লিকের প্রথম গানের রেকর্ড প্রকাশ হয়। সংগীত ভাবনা, গায়কি, সর্বোপরি তাঁর রেকর্ড বিক্রির পরিমাণ, রেকর্ড কোম্পানিগুলোর কাছে কে মল্লিকের চাহিদার পারদ ক্রমশই ওপরের দিকে উঠেছিল। কে. মল্লিকের বিপুল জনপ্রিয়তার কারণে অনেকে সেই সময়কে মল্লিক-যুগও বলে থাকেন।
 
জনপ্রিয়তার শীর্ষে তখন তিনি। কলকাতার আপার সার্কুলার রোডের বাড়িতে স্ত্রী জারীয়াতুল হাফসা খাতুনকে নিয়ে ছিলেন। ভালোই ছিলেন। ১৯৪৬ সালের দিকে, হয়তো প্রাণের টানে ফিরে গেলেন নিজের কুসুম গ্রামে। ১৯৬১ সালে মৃত্যুর আগে পর্যন্ত বিভিন্ন শ্রেণির মানুষকে তিনি গান শোনাতেন। বিনিময়ে কিছুই নিতেন না। 

কে. মল্লিকের একশ পঁচিশ বছর জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে সূত্রধর প্রকাশনা আয়োজিত অনুষ্ঠানে সুধীর চক্রবর্তী বলেন, ‘জনপ্রিয় শিল্পী হওয়া সত্ত্বেও রেকর্ডিং কোম্পানিগুলোর কাছে যোগ্য সম্মানী কে. মল্লিক পাননি।’

চলবে…

লেখক: প্রাবন্ধিক ও গীতিকবি

তথ্যসূত্র:
eisamay.indiatimes.com
25 June 2013 
আঁধার থেকে আলোর যাত্রী, কে  মল্লিক
আনন্দবাজার পত্রিকা। এপ্রিল ১, ২০১৯
বাংলা গানের বিস্মৃত যুবরাজ
মৌনি মন্ডল 
bongodorshon.com 
জুলাই ১৩, ২০২১

প্রথম পর্ব: অ্যাঞ্জেলিনা ইয়ার্ড থেকে সুপার স্টার গওহর জান হয়ে ওঠার ইতিহাস

দ্বিতীয় পর্ব: শিল্পীদের আয়ের বিজ্ঞানসম্মত পথ খুলে দেয় গ্রামোফোন

তৃতীয় পর্ব: গান-বাণিজ্যে গওহর জান নায়িকা হলে, লালচাঁদ বড়াল নায়ক

চতুর্থ পর্ব: ‘সেকালের কলকাতার লোকেরা ছিলেন সংগীত-ছুট’

/এমএম/এমওএফ/
সম্পর্কিত
পংকজের কণ্ঠ-সুর: কবিগুরু থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বিস্তৃত
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব ১৪ (গ)পংকজের কণ্ঠ-সুর: কবিগুরু থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বিস্তৃত
পংকজ-রাইচাঁদ জুটি: বাংলা ও হিন্দি সিনেমায় প্লে-ব্যাক শুরুর ইতিহাস
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব ১৪ (খ)পংকজ-রাইচাঁদ জুটি: বাংলা ও হিন্দি সিনেমায় প্লে-ব্যাক শুরুর ইতিহাস
পংকজ মল্লিক: বাড়ি বাড়ি টিউশনি থেকে বেতার-সিনেমা ও রেকর্ডিংয়ে অবদান
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব ১৪ (ক)পংকজ মল্লিক: বাড়ি বাড়ি টিউশনি থেকে বেতার-সিনেমা ও রেকর্ডিংয়ে অবদান
রবীন্দ্রনাথের পরে দিলীপকুমারের ওপরেই দাবি ছিল সর্বাধিক
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব ১৩রবীন্দ্রনাথের পরে দিলীপকুমারের ওপরেই দাবি ছিল সর্বাধিক
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
বাংলাদেশের ৩ ঐতিহ্য প্রচারণায় সিসিমপুর
বাংলাদেশের ৩ ঐতিহ্য প্রচারণায় সিসিমপুর
জেদ্দায় সুলতান সুলেমানের স্ত্রী হুররাম!
জেদ্দায় সুলতান সুলেমানের স্ত্রী হুররাম!
‘১৮ বছর হলে মেয়েকে এমন একটা সিঙ্গেল ট্রিপে পাঠাবো’
৫০ পর্বে মামানামা- আউট অব দ্য বক্স‘১৮ বছর হলে মেয়েকে এমন একটা সিঙ্গেল ট্রিপে পাঠাবো’
নয়তো নেপথ্যে চলে যাবো: আফজাল হোসেন
মুখোমুখিনয়তো নেপথ্যে চলে যাবো: আফজাল হোসেন
পংকজের কণ্ঠ-সুর: কবিগুরু থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বিস্তৃত
গানের শিল্পী, গ্রামোফোন, ক্যাসেট ও অন্যান্য: পর্ব ১৪ (গ)পংকজের কণ্ঠ-সুর: কবিগুরু থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বিস্তৃত