X
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
সিনেমা সমালোচনা

আদিম: ‘বস্তি ঘনিষ্ঠ’ এক অপরূপ ছবি!

আহসান কবির
০১ জুন ২০২৩, ১৭:১৯আপডেট : ০৪ জুন ২০২৩, ১৪:০৩

ভিন্ন চোখে দেখা জীবন ঘনিষ্ঠ এক ছবির নাম ‘আদিম’! গণ অর্থায়নে চিত্রায়িত এক ‘বস্তি ঘনিষ্ঠ’ ছবি ‘আদিম’। যারা কখনও নাটক বা সিনেমায় অভিনয় করেননি, এমন শিল্পীদের ছবি ‘আদিম’। মুখ চেনা শিল্পীদের বাইরে প্রান্তিক কিছু মানুষের ছবি ‘আদিম’। মানুষের সব রিপুর এক আটপৌরে বহিঃপ্রকাশ ‘আদিম’। প্রচলিত বাংলা ছবির ভিড়ে মাদকজীবী মানুষের জীবনযাপনের এক ভিন্ন গল্পের ছবি ‘আদিম’। বস্তিতে থাকা মানুষের জীবনের প্রতি ‘সৎ’ থাকার এক গল্প ‘আদিম’। যে জীবন দোয়েলের, যে জীবন ফড়িংয়ের, মানুষের সাথে তার কোনও কালে দেখা না হবার এক বাস্তব ছবি ‘আদিম’!

টঙ্গি ব্যাংক মাঠ বস্তির কালা আর সোহাগীর জীবন ঘিরে ছবিটির গল্প। কালা নিজে নেশা করে, বেঁচে থাকার জন্য কিংবা নেশা করার জন্য সে গাঁজার পুরিয়া বিক্রি করে। জড়িয়ে যায় মাদক চক্রের সঙ্গে। সংসার চালানোর সব দায় যেন সোহাগীর। কালা সোহাগী নির্ভর হলেও তাকে সন্দেহ করে কালা। এই সন্দেহের কারণে কালার আগের বউ চলে গিয়েছিল। আসলে ব্যাংক মাঠ বস্তির কেউ চুরি করে, কেউ ট্রেন চলা শুরু করলেই যাত্রীদের মোবাইল বা ব্যাগ ঝাপটা মেরে নিয়ে যায়। বস্তিতে মাদক ব্যবসা ও প্রভাব বিস্তারের জন্য রতন খুন হয়। আর অন্য এলাকায় আরেক খুনের আসামী হিসেবে পলাতক হয়ে বস্তিতে আসে একজন। ক্র্যাচ নির্ভর খুঁড়িয়ে হাটার জন্য বস্তিতে তার নাম হয়ে যায় ‘ল্যাংড়া’। ল্যাংড়ার সাথে রাতে ঘুমোনোর জায়গা নিয়ে ঝগড়া বাধে। সাদেক তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। সাদেককে পছন্দ করলেও মাদক ব্যবসার কারণে কালা সম্পর্ক গড়ে তোলে ল্যাংড়ার সঙ্গে। ল্যাংড়াকে সে ঘরে নিয়ে যায়, টাকার বিনিময়ে সে তিনবেলা খায় কালার ঘরে। এরপর চলে আসে সেই আদিম রিপু, সোহাগীকে চেইন আর লিপস্টিক কিনে দেয় ল্যাংড়া। সোহাগী স্বপ্ন দেখা শুরু করে। পরকীয়ায় জড়িয়ে যায়। একদিন পালায় সে ল্যাংড়ার সাথে। কালা খুঁজতে থাকে ল্যাংড়াকে। কালাকে সাহায্য করে দুই হাতে দুই ক্র্যাচ নিয়ে হাঁটা সাদেক, তারা খুঁজতে থাকে ল্যাংড়াকে।
 
মাদকের সাথে জড়ানো বস্তির বাসিন্দাদের জীবনের গল্প এমনই। মাদক নির্ভর প্রতিটা ঘরের গল্পই এক। সোহাগী ঘরের সব কাজ করলেও কালার কাছে সে নিগ্রহ ছাড়া ভালোবাসা পায় না। খুব সহজেই তার ল্যাংড়ার প্রতি আসক্তি বাড়ে। আবার সোহাগী পালানোর পর তাকে ফিরে পাওয়ার জন্য পুরুষত্ব জেগে ওঠে কালার। সোহাগীকে ল্যাংড়া যেখানে নিয়ে যায়, সেখানের গল্প শুনে সে চুপসে যায়। সে ফিরে আসতে বাধ্য হয় কালার কাছে!

‘আদিম’ ছবির শুটিং হয়েছে টঙ্গি রেলস্টেশন ও ব্যাংক মাঠ বস্তিতে। ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে। পরিচালক যুবরাজ শামীম সাত মাস থেকেছেন ব্যাংক মাঠ বস্তিতে। পুনরায় ছবির শুটিং শুরু করেন ২০১৮ এর ফেব্রুয়ারিতে। শীতের প্রভাব থাকায় শুটিংয়ের জন্য ২০১৯ এর জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। যে গল্প নিয়ে ছবি বানানোর ইচ্ছে ছিল সেই গল্প ভুলেছেন এখানকার ব্যাংক মাঠের বাসিন্দাদের দেখে। মাদকাসক্ত ও মাদক ব্যবসায় জড়িতদের গল্প তিনি তুলে আনার সিদ্ধান্ত নেন। তার মনে হয় বস্তির বাস্তব এবং জীবন্ত চরিত্রই এই সিনেমায় অংশগ্রহণ করুক, কোনও অভিনেতা অভিনেত্রী এই সিনেমায় অভিনয় না করুক। ব্যাংক মাঠ বস্তির দুলাল করেছেন কালার চরিত্র। এই নামটা বদলে দিলেও সোহাগীর চরিত্রে সোহাগী অভিনয় করেছেন। ল্যাংড়ার আড়ালে নামটা হারিয়ে গেলেও এই চরিত্রের মূল মানুষটার নাম বাদশা। সাদেক এর চরিত্রে সাদেক আর প্রথমেই খুন হয়ে যাওয়া রতনের চরিত্র করেছেন মাহবুব।

আহসান কবির ছবি বানানোর জন্য ‘লগ্নি’ প্রয়োজন। পরিচালকের ভাষ্য অনুযায়ী এই ছবি নির্মিত হয়েছে গণমানুষের অর্থায়নে। ২০২৩ সালের ২৬ মে বাংলাদেশে মুক্তি পাবার আগে কয়েকটি দেশে এটি প্রদর্শিত হয়েছে। আদিম  নয়টা দেশের ফিল্ম ফেস্টিভালে প্রদর্শিত হয়। এরমধ্যে ৪৪তম মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে স্পেশাল জুরি অ্যাওয়ার্ড, ১২তম কুইন্স ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অ্যামেরিকাতে বেস্ট ফর দ্য ফেস্ট অ্যাওয়ার্ড, ১০ম হিউম্যান রাইটস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল নেপালে বেস্ট ইন্টারন্যাশনাল ফিকশন অ্যাওয়ার্ড জেতে।

এই ছবিতে কোনও আবহসংগীত ব্যবহার করা হয়নি। ট্রেনের আসা যাওয়ার সময়েও কোনও সংলাপ মার খায়নি। পরিবেশ পরিস্থিতির স্বাভাবিক শব্দই ছবিতে ব্যবহৃত হয়েছে। মাদক বা বস্তির অন্ধকারাচ্ছন্ন জীবনের রংয়ের সাথে মিল রেখে সাদা কালো ফরম্যাটে এই ছবির চিত্রায়ন করা হয়েছে।
 
বস্তিতে থাকা মানুষের বিশ্বাসকে কেন্দ্র করে যে মাজার গড়ে ওঠে সেখানে আসা মানুষের গাওয়া গান ব্যবহার করা হয়েছে। ‘বুড়ি হইলাম তোর কারণে’সহ প্রচলিত লোকগানের সাথে আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘গোলাপি এখন ট্রেনে’ ছবির ‘আছেন আমার মোক্তার’ গানটিও এই ছবিতে ব্যবহৃত হয়েছে।
 
ছবির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক, বস্তির জীবন যাপন আর ট্রেনকে ঘিরে মানুষের আবর্তনের প্রতি সৎ থাকা। কুকুরকে খাওয়ানো আবার খাবার খেতে না পারা একজনের সেই কুকুরকে মারা, প্রভাব বিস্তার নিয়ে খুনের নৃশংসতা, গাঁজা খাওয়া কিংবা ছিনতাই এর জান্তব দৃশ্য, মাতাল হয়ে গান শোনা, ট্রেনের আশেপাশে ভাসমান মানুষের ঘুম, খাওয়া-দাওয়ার দৃশ্যগুলো সময়কে তুলে ধরে। 

বিভিন্ন মেটাফোরের ব্যবহার আর মানুষের সাথে সম্পৃক্ততার কারণে বহুদিন পরও এই ছবি বর্তমান বাংলাদেশকে উপস্থাপন করবে। 

জয় হোক বাংলা ছবির। 

যুবরাজ শামীম আদিম: রেটিং ৮/১০
চিত্রনাট্য ও পরিচালনা: যুবরাজ শামীম

প্রযোজক: গণঅর্থায়ন

অভিনয়ে: বাদশা, সোহাগী, দুলাল প্রমুখ

চিত্রগ্রাহক: আমির হামযা

ব্যানার: কোম্পানি রসায়ন

ভাষা: বাংলা

মুক্তি: ২৬ মে ২০২৩

সমালোচক: রম্যলেখক, সাংবাদিক ও কবি

আরও সমালোচনা:

পাপ: শেষ না হওয়া এক থ্রিলার গল্পের ছবি

কিল হিম: বড়শি দিয়ে মাছ ধরেন অনন্ত, কিন্তু সেটা নড়ে না!

লিডার: স্বস্তি আর অস্বস্তির পাঁচ-ছয়

লোকাল: রাজনীতির ব্যানারে প্রেম ও প্রতিশোধের ছবি!

জ্বীন: ‘জিন ছাড়ানো’র কুসংস্কারাচ্ছন্ন ছবি!

/এমএম/
সম্পর্কিত
কথা রাখলেন জয়া আহসান
কথা রাখলেন জয়া আহসান
নির্বাচন বন্ধ করার জন্য অনেক খেলা হবে: শামীম ওসমান
নির্বাচন বন্ধ করার জন্য অনেক খেলা হবে: শামীম ওসমান
এক মাস পর প্রেক্ষাগৃহে দেশের দুই সিনেমা
এ সপ্তাহের ছবিএক মাস পর প্রেক্ষাগৃহে দেশের দুই সিনেমা
হলিউড-বলিউডে কোণঠাসা দেশের ছবি!
হলিউড-বলিউডে কোণঠাসা দেশের ছবি!
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
২৪-এ হচ্ছে না বনি-কৌশানির বিয়ে
২৪-এ হচ্ছে না বনি-কৌশানির বিয়ে
আমি পুরোপুরি সিঙ্গেল: শ্রুতি হাসান
আমি পুরোপুরি সিঙ্গেল: শ্রুতি হাসান
ইতিহাসের পাতায় পায়েল কাপাডিয়া
কান উৎসব ২০২৪ইতিহাসের পাতায় পায়েল কাপাডিয়া
ফারিণের অভিষেক, নিরব-স্পর্শিয়ার অভিমান!
এ সপ্তাহের ছবিফারিণের অভিষেক, নিরব-স্পর্শিয়ার অভিমান!
শিক্ষার্থী নির্মাতাদের বিভাগে ভারতীয় তরুণ-তরুণীর জয়
কান উৎসব ২০২৪শিক্ষার্থী নির্মাতাদের বিভাগে ভারতীয় তরুণ-তরুণীর জয়