‘রামায়ণের সময় উড়ন্ত যান ছিল, অর্জুনের তীরে ছিল পরমাণু শক্তি!’

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৫৯, জানুয়ারি ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০১, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

রামায়ণের সময় উড়ন্ত যান ছিল! আর অর্জুনের তীরে ছিল পরমাণু শক্তি! এমনটাই দাবি করেছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মঙ্গলবার একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি বলেন, ‘বিংশ শতাব্দী নয়। রামায়ণেই উড়ন্ত যানের উল্লেখ রয়েছে। মহাভারতের সঞ্জয়ের মুখে এ কথা শোনা গেছে।’
এতোটুকু বলেই অবশ্য ক্ষান্ত দেননি জগদীপ ধনখড়। এরপর তিনি বলেন, ‘অর্জুনের তীরে পরমাণু শক্তি ছিল। তাই যুগ যুগ ধরেই ভারতকে কেউ উপেক্ষা করতে পারে না। ভারতকে উপেক্ষা করা যাবে না।’

ভারতে বিজেপি নেতাদের এমন বক্তব্য অবশ্য নতুন নয়। ২০১৪ সালে গণপতি উৎসবে মহারাষ্ট্রের মাটি থেকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের অভাবনীয় আবিষ্কার কথা শুনিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বলেছিলেন, গণেশের মাথাই হলো দুনিয়ার প্রথম প্লাস্টিক সার্জারির উদাহরণ।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব বলেছেন, মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট ছিল। কখনও আবার বলেছেন হাঁস নিঃশ্বাস ছাড়লে পানিতে অক্সিজেন বাড়ে। সম্প্রতি বিজেপি-র পশ্চিমবঙ্গে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, গরুর দুধে সোনা আছে। গরুর কুঁজে স্বর্ণনাড়ি আছে। তাতে সূর্যের আলো পড়লেই সোনা বের হয়।

সর্বশেষ মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের কথা শুনে একজন বামপন্থী অধ্যাপক টিপ্পনি কেটে বলেন, ‘রাজ্যপাল বিজেপি-র এজেন্ট জানতাম। কিন্তু আরএসএস-এর এমন একনিষ্ঠ ছাত্র তা জানা ছিল না!’ সূত্র: দ্য ওয়াল।

/এমপি/

লাইভ

টপ