বিচ্ছেদ চান ফ্লয়েডের ‘হত্যাকারী’র স্ত্রী, নাম সংশোধনের অনুরোধ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:২৫, জুন ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৮, জুন ০৪, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যার দায়ে গ্রেফতার ও অভিযুক্ত হওয়া পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক চাওভিনের স্ত্রী কেলি চাওভিন বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেছেন। একইসঙ্গে নিজের নামের সঙ্গে যুক্ত হওয়া স্বামীর নামের অংশটুকু বাদ দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কেলি ও ডেরেক

২৫ মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের বৃহত্তম শহর মিনিয়াপলিসে হত্যার শিকার হন জর্জ ফ্লয়েড। সেদিন ফ্লয়েডের গাড়িতে জালনোট থাকার খবর পেয়ে তাকে আটক করতে গিয়েছিল পুলিশ। একজন প্রত্যক্ষদর্শীর ধারণ করা ১০ মিনিটের ভিডিওতে দেখা গেছে, হাঁটু দিয়ে তার গলা চেপে ধরে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ডেরেক চাওভিন নামের ওই শ্বেতাঙ্গ পুলিশ সদস্য। নিহত ফ্লয়েড নিরস্ত্র ছিলেন। নিশ্বাস নিতে না পেরে তাকে কাতরাতে দেখা যায়। কৃষ্ণাঙ্গদের দাবি, বর্ণবিদ্বেষের বলি হয়েছেন ফ্লয়েড। এই হত্যার ঘটনায় বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র।

গত ২৯ মে ফ্লয়েড হত্যার ঘটনায় চাওভিনকে অভিযুক্ত করা হয়। আর তার একদিন আগেই স্বামীর কাছ থেকে আলাদা হয়ে যান স্ত্রী কেলি।

বিচ্ছেদের আবেদনপত্রে বলা হয়েছে, ‘এ বৈবাহিক সম্পর্কের ভাঙন অনিবার্য’ এবং কোনোভাবেই তা টিকিয়ে রাখা সম্ভব নয়।

আবেদনপত্রে কেলি আরও উল্লেখ করেছেন, তিনি তার নামের শেষ অংশটুকু বাদ দিতে চান। বিচ্ছেদ চূড়ান্ত হলে নামের শেষ অংশ কী হবে তা উল্লেখ করেননি তিনি। তবে পিটিশনে বলা হয়েছে, বিয়ের আগে কেলি থাও এবং কেলি জিওং নামে পরিচিত ছিলেন তিনি।

/এফইউ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ