সীমান্ত উত্তেজনা নিরসনে সম্মত ভারত-চীন

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:৫১, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৫৫, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা নিরসনে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (অ্যাকচুয়াল লাইন অব কন্ট্রোল) অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন না করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে দিল্লি ও বেইজিং। যৌথ বিবৃতিকে উদ্ধৃত করে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) মলডোতে দুই দেশের সেনা পর্যায়ের বৈঠকে আলোচনার মধ্য দিয়ে পারস্পরিক ভুল বোঝাবুঝি এড়ানোর ব্যাপারে মতৈক্য হয়েছে।   

লাদাখে নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে মলডোতে সোমবার ভারত-চীন সেনা পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকেই নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা প্রশমণের লক্ষ্যে আলোচনা এগিয়েছে বলে দুই দেশই যৌথ বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে। তবে, ভারত-চিন বিরোধ এলাকা থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে ওই বিবৃতিতে কিছু বলা হয়নি।

ধারণা করা হচ্ছে, নিয়ন্ত্রণরেখায় সামরিক আক্রমনাত্মক আচরণে নতুন করে যাতে উত্তেজনা না ছড়ায় তাই দু’দেশের সেনাস্তরে এই সিদ্ধান্তে সহমত পোষণ করা হয়েছে।

লাদাখে নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনার আবহে সেপ্টেম্বরের শুরুতে মস্কোয় ভারত-চীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক হয়। সেখানেই দুই দেশের সীমান্তে উত্তেজনা কমাতে পাঁচটি বিষয়ে সহমত হয়েছিলেন দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিল্লি-বেইজিং সেনা স্তরের ষষ্ঠ বৈঠক হয় মলডোতে।

মঙ্গলবারের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘২১ সেপ্টেম্বর প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় স্থিতাবস্থা ফিরিয়ে আনতে ভারত-চীন সেনাস্তরে আলোচনা হয়েছে। স্থিতাবস্থা ফেরানোর প্রশ্নে দু’দেশের রাজনৈতিক নেতারা যে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন, তা বাস্তবায়িত করতে তৃণমূলে যোগাযোগ বাড়ানো, আলোচনা ও পারস্পরিক ভুল বোঝাবুঝি এড়াতেও রাজি হয়েছে দু’পক্ষ। সীমান্তে নতুন করে বাড়তি সেনা মোতায়েন করা হবে না বলে সম্মত হয়েছে দু’দেশ। কোনও দেশ একক ভাবে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পরিবর্তনের চেষ্টা করবে না কিংবা সীমান্ত পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে এমন কোনও পদক্ষেপ নেবে না।’

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘সেনা পর্যায়ে সপ্তম বৈঠকের জন্য রাজি ভারত ও চীন। দ্রুত তা হবে। সীমান্ত সুরক্ষা ও সেখানে স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে এ ধরণের বৈঠক খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

তবে, ভারত-চীন বিরোধপূর্ণ এলাকা থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা সেই বিষয়ে বিবৃতিতে কিছু বলা হয়নি।

মলডোতে ভারতীয় দলের নেতৃত্বে ছিলেন লেহতে নিয়োজিত ভারতীয় সেনাবাহিনীর ১৪ কর্পস বাহিনীর কম্যান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং। চীনা দলের নেতৃত্ব দেন দক্ষিণ শিনজিয়াং সামরিক অঞ্চলের কম্যান্ডার মেজর জেনারেল লিউ লিন।

/এফইউ/বিএ/

লাইভ

টপ