X
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

৫ বছর পর পর নির্বাচনি সহিংসতার অভিঘাতে পর্যটন খাত

চৌধুরী আকবর হোসেন
০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১০:০০আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১০:০০

বাংলাদেশে পর্যটনের ভরা মৌসুম নভেম্বর-ডিসেম্বর। বছরের এই সময়ে দেশি-বিদেশি পর্যটকে মুখরিত থাকে দেশের পর্যটন কেন্দ্রগুলো। কিন্তু হরতাল-অবরোধ রাজনৈতিক অস্থিরতায় পর্যটন গন্তব্যগুলো এখন অনেকটাই পর্যটকশূন্য। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতি ৫ বছর পর পর জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অস্থিরতাও দেখা দেয় পর্যটনে ভরা মৌসুমে। পর্যটন খাতকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখা, পর্যটনে ভরা মৌসুম থেকে নির্বাচনের সময় পরিবর্তন করার দাবি এ খাত সংশ্লিষ্টদের।

ভরা মৌসুমেও পর্যটক নেই কক্সবাজারে। শুধু সমুদ্রসৈকতে নয়, সুন্দরবন, কুয়াকাটা, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, সিলেটসহ অন্যান্য পর্যটন গন্তব্যেও পর্যটক নেই। সারা দেশের হোটেল-মোটেল ও গেস্ট হাউজগুলো প্রায় ফাঁকা। পর্যটন এলাকার রেস্তোরাঁ, পরিবহনসহ সংশ্লিষ্টদের দিন কাটছে শঙ্কায়। পর্যটনের ওপর নির্ভরশীল মানুষরা জীবিকার সংকটে পড়েছেন। নভেম্বর-ডিসেম্বর ভরা মৌসুম হলেও রাজনৈতিক অস্থিরতা পর্যটন ব্যবসায়ীদের বড় ধরনের লোকসানের মধ্যে ফেলছে। প্রতি ৫ বছর পরপর এই সংকট দেশের পর্যটনের খাতের অগ্রগতির জন্য বড় ধরনের বাধা।

কক্সবাজারে সমুদ্রসৈকতে পর্যটকদের ছবি তুলে সংসার চালান মোহাম্মদ আতাউল। তিনি বলেন, ‘লোকজন একদম নেই বললে চলে। আশা নিয়ে বিচে আসি, খালি হাতে ফিরে যেতে হয়। কোনোরকমে টিকে থাকার লড়াই করে যাচ্ছি। কিন্তু পর্যটক আরও কমে গেলে আমাদের সংসার চালানোই কঠিন হয়ে পড়বে।’

পর্যটকের খরা হলে সবচেয়ে বেশি ভোগেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীসহ পর্যটনের ওপর নির্ভরশীল মানুষরা। তাদের জীবিকার সংকটে প্রকট হয়ে দেখা দেয়। কুয়াকাটায় ফেরি করে বিভিন্ন ধরনের খেলনা বিক্রি করেন মান্নান মিয়া। ভরা মৌসুমে ব্যবসা ভালো হবে এই আশায় ঢাকা থেকে খেলনা কিনে এনেছেন। কিন্তু এখন পরিস্থিতি উল্টো। প্রতিদিনের ঘরের বাজার খরচের টাকা তুলতে তার চিন্তা বাড়ছে। মান্নান মিয়া বলেন, ‘বেচাবিক্রি শেষ করে ঘরে বাজার করে ফিরি। যেদিন বিক্রি নাই, সেদিন মুদি দোকান থেকে বাকি নিই। কিন্তু তারা আর কত দিন বাকি দিবে?’

হরতাল-অবরোধসহ রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে পর্যটন ব্যবসায় ধস নেমেছে। বিভিন্ন পর্যটন গন্তব্যের হোটেলগুলোর বুকিং বাতিল হচ্ছে। কক্সবাজার হোটেল-মোটেল ও রিসোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম নেওয়াজ বলেন, ‘পর্যটনের ভরা মৌসুম শুরু হয় নভেম্বর থেকে। মার্চ পর্যন্ত চলে পর্যটকদের আনাগোনা। প্রতি ৫ বছর পর পর ডিসেম্বর বা জানুয়ারি মাসে ভোট হয়। ভোটের আগে এক মাস নির্বাচনকেন্দ্রিক অস্থিরতা দেখা দেয়। এবার নভেম্বর মাস থেকেই রাজনৈতিক অস্থিরতা শুরু হয়েছে। যেহেতু জানুয়ারিতে ভোট, ফলে ডিসেম্বর মাসেও এই সংকট থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

সেলিম নেওয়াজ বলেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা থাকলে নির্বাচন কোনও সমস্যা নয়। নির্বাচন হবে, তাতে পর্যটনের কোনও ইস্যু নেই। কিন্তু রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে পর্যটক নেই, আর ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

কক্সবাজারে কলাতলী-মেরিন ড্রাইভ সড়ক হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মৌখিম খান বলেন, ‘টানা অবরোধে পর্যটন ব্যবসায় হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। হোটেল-মোটেল থেকে শুরু করে সৈকতে বিভিন্ন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীসহ পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে আড়াই লাখ মানুষের জীবিকা জড়িত। পর্যটনকে রাজনীতির প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে।’

এ প্রসঙ্গে ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টোয়াব) প্রেসিডেন্ট শিবলুল আজম কোরায়েশি বলেন, ‘দেশে যেকোনও সংকট দেখা দিলে সেটার আঘাত প্রথমেই আসে পর্যটনে। করোনা মহামারিতেও ২ বছর পর্যটন খাত ভয়ানকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে না উঠতে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অস্থিরতা শুরু হয়েছে। নির্বাচন বছরের যে সময়টা হয়, সেই সময়টা পর্যটনের ভরা মৌসুম। ৫ বছর পর পর পর্যটনের ভরা মৌসুমে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অস্থিরতা হলে এই খাতের ব্যবসায়ীরা দীর্ঘ মেয়াদে টিকে থাকতে পারবেন না। ব্যবসার পরিবেশে না থাকলে বিদেশি বিনিয়োগও আসবে না।’

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘নিরাপত্তার বিষয়টি পর্যটনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। পর্যটকরা নির্বিঘ্নে ঘোরাফেরা না করতে পারলে কেউ কোথাও যাবেন না। নিরাপত্তার বিষয়ে সহায়তা করতে আমরা ট্যুরিস্ট পুলিশকে জানিয়েছি। এছাড়া, স্থানীয় প্রশাসনও যেন সহায়তা করে সে বিষয়েও ট্যুরিজম বোর্ডের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিষয়ে আমাদের দেশের রাজনৈতিক দলগুলো আন্তরিক হবে, এটা আমরা প্রত্যাশা করি।’

/ইউএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
ঢাকা আইনজীবী সমিতি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা
ঋণ দেওয়ার আগে ভোটের ফল খতিয়ে দেখতে আইএমএফ’কে ইমরানের চিঠি
বাংলাদেশ-তুরস্কের বাণিজ্য ১.৫ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে: পর্যটনমন্ত্রী
সর্বশেষ খবর
জাতিসংঘ পরিবেশ সম্মেলনে যোগ দিতে কেনিয়া যাচ্ছেন সাবের হোসেন চৌধুরী
জাতিসংঘ পরিবেশ সম্মেলনে যোগ দিতে কেনিয়া যাচ্ছেন সাবের হোসেন চৌধুরী
আজকের আবহাওয়া: লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত
আজকের আবহাওয়া: লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত
ওয়াহিদ কায়সারের অনুবাদে ‘আমি আছি অন্ধকারে’
অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২৪ওয়াহিদ কায়সারের অনুবাদে ‘আমি আছি অন্ধকারে’
মুসলিমদের আবেদন খারিজ, জ্ঞানবাপী চত্বরে পূজার আদেশ এলাহাবাদ হাইকোর্টের
মুসলিমদের আবেদন খারিজ, জ্ঞানবাপী চত্বরে পূজার আদেশ এলাহাবাদ হাইকোর্টের
সর্বাধিক পঠিত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
আইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
সম্পত্তি নিয়ে বিরোধআইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার
‘শবে বরাত’ কী, এই রাতের কেন এত মর্যাদা?
‘শবে বরাত’ কী, এই রাতের কেন এত মর্যাদা?