X
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
২ বৈশাখ ১৪৩১

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়ালের প্রভাব যেন পশু ও মাছে না পড়ে: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৪৬আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৪৬

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মো. আবদুর রহমান বলেছেন, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স (এএমআর) একটি জরুরি জনস্বাস্থ্য সমস্যা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। রোগসৃষ্টিকারী জীবাণুগুলো অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ওষুধগুলোর প্রতি তাদের প্রতিরোধক্ষমতা দিন দিন বাড়ছে। ফলে বিশ্বজুড়ে এটি মারাত্মক জনস্বাস্থ্যঝুঁকি হিসেবে দেখা দিয়েছে।

বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল দেশগুলো এই সমস্যায় সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে আছে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, প্রাণিস্বাস্থ্য সুরক্ষায় যে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ব্যবহার করা হয়, তা যেন যথাযথ হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকার গুলশানে বিশ্ব প্রাণী স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউওএএইচ) কারিগরি সহায়তায় অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স প্রতিরোধে অ্যান্টিবায়োটিকের সঠিক ব্যবহার ও করণীয় বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. মো. এমদাদুল হক তালুকদারের সভাপতিত্বে কর্মশালায় মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক সৈয়দ মো. আলমগীর, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন) মো. সালাউদ্দিন, বিশ্ব প্রাণী স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডা. নাহোকো ইডা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ট্যারেন্স টিনো ফুসায়ার কর্মশালায় বক্তব্য দেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল মানুষ ও প্রাণী উভয়ের জন্য একটি জীবন রক্ষাকারী ওষুধ। অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ব্যবহারে প্রাণিস্বাস্থ্যের ওপর যেমন প্রভাব রয়েছে, তেমনি পরিবেশের ওপরও প্রভাব রয়েছে। তবে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স প্রতিরোধে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়ালসের ব্যবহারের পরিমাণ জানা এবং এগুলোর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা জরুরি।

এএমআর জনস্বাস্থ্যের জন্য উদ্বেগজনক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, একটা সময় জীবন বাঁচানোর তাগিদে আমরা অ্যান্টিবায়োটিক পাওয়ার জন্য উদগ্রীব ছিলাম। বর্তমানে এর যথেচ্ছ ব্যবহারের কারণে এটি ভয়ানক রূপ ধারণ করেছে। অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্সের অশুভ প্রভাব যেন গবাদিপশু, মাছ ও মাংসে না পড়ে, সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে।

প্রাণী চিকিৎসায় রেজিস্টার্ড ভেটেরিনারিয়ানের প্রেসক্রিপশন ও পরামর্শ ছাড়া অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ব্যবহার করা উচিত নয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, মানব ও প্রাণিস্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে এএমআরের প্রভাব সম্পর্কে আমাদের কৃষকদের সচেতন করা দরকার। তিনি অ্যান্টিমাইক্রোবিয়ালের যৌক্তিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে প্রাণিসম্পদ অধিদফতর এবং বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল খামার পর্যায়ে কার্যকর নিয়ন্ত্রকের কাজ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

আবদুর রহমান বলেন, প্রাণিজ আমিষ যেমন মাছ, মাংস, ডিম উৎপাদনে আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। দুধ উৎপাদনে বর্তমানে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও অচিরেই তা কাটিয়ে উঠতে পারবো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ম্যাজিক্যাল নেতৃত্বে যেমন বাংলাদেশ সব ক্ষেত্রে একযোগে এগিয়ে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, তেমনি অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্সের বিরুদ্ধেও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারবো।

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্সের বিরুদ্ধে মানুষের মধ্যে একধরনের চেতনাবোধ আগে থেকেই আছে উল্লেখ করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, এই রেজিস্ট্যান্সের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা বা ক্যাম্পেইন করা হলে মানুষ আরও সচেতন হবে।

প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ ভোটের মাধ্যমে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, সায়মা ওয়াজেদ তার জীবন মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত করেছেন। স্বাস্থ্যসেবায় তার গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কথা তুলে ধরেন তিনি।

মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ জাতীয় অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স (এএমআর) সার্ভিলেন্স কর্মপরিকল্পনা ২০২০-২০২৫ প্রণয়ন করেছে। একই সঙ্গে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স বিষয়ক জাতীয় কর্মকৌশল এবং কর্মপরিকল্পনা (২০২৩-২০২৭) চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই কর্মকৌশল ও কর্মপরিকল্পনার আওতায় মানবস্বাস্থ্য, প্রাণিস্বাস্থ্য ও পরিবেশসহ সব খাত এএমআর মোকাবিলায় ওয়ান হেলথ পদ্ধতিতে একসঙ্গে কাজ করবে।

মন্ত্রী এএমআরের গুরুত্ব বিবেচনা করে প্রাণিসম্পদ অধিদফতরকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অংশীজনদের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করার পরামর্শ দেন।

/জেইউ/এনএআর/
সম্পর্কিত
মৌসুমের আগেই চোখ রাঙাচ্ছে ডেঙ্গু, পরিস্থিতি কোন দিকে যাবে?
ডেঙ্গু চিকিৎসায় যেসব পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
পুলিশের অসুস্থ সদস্যদের দেখতে হাসপাতালে আইজিপি
সর্বশেষ খবর
ত্বকে নিয়মিত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করলে কী হয়?
ত্বকে নিয়মিত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করলে কী হয়?
ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় স্যালাইনের সংকট হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় স্যালাইনের সংকট হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন আগামী মাসে
সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন আগামী মাসে
তুষারের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো গাজী টায়ার্স
তুষারের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো গাজী টায়ার্স
সর্বাধিক পঠিত
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন
ইসরায়েলের সঙ্গে উত্তেজনা এড়াতে ইরানের প্রতি তুরস্কের আহ্বান
ইসরায়েলের সঙ্গে উত্তেজনা এড়াতে ইরানের প্রতি তুরস্কের আহ্বান