X
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার প্রস্তুতি সম্পন্ন, অনুমতির অপেক্ষা

আপডেট : ০৪ মে ২০২১, ০৫:৩২

খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে পাঠানোর প্রস্তুতি প্রায় শেষ করে এনেছে বিএনপি। এয়ার অ্যাম্বুলেন্স নির্ধারণের পাশাপাশি গুছিয়ে আনা হয়েছে পারিবারিক অন্যান্য প্রস্তুতিও। রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য নিয়োজিত চিকিৎসকেরা দফায় দফায় তার শারীরিক পরীক্ষা ও মানসিক  অবস্থা নিরীক্ষা করছেন। তবে যেহেতু তিনি শর্ত সাপেক্ষে মুক্তিতে আছেন, এ কারণে সরকার অনুমতি দিলেই কেবল বিদেশে রওনা করতে পারবেন।

সোমবার (৩ মে) মধ্যরাত পর্যন্ত প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত বিএনপির উচ্চপর্যায়ে কয়েকজন ও খালেদা জিয়ার চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে। এদিন মধ্যরাতে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে উনার চিকিৎসকেরা বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্ত না হওয়ায় খালেদা জিয়ার শারীরিক পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য কোনও অগ্রগতি নেই। আর একইসঙ্গে পারিবারিক ও দলীয়ভাবেও দীর্ঘদিন ধরে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার কথা জোর দিয়ে বলা হয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর চলতি এপ্রিলে আবারও আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করা হয়েছে। সোমবার (৩) মে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার দলের নেত্রীর চিকিৎসা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে কথা বলেছেন।

সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ম্যাডামের অবস্থা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। আমরা পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে দিয়েছি। সেগুলোর প্রতিবেদন আসার পর চিকিৎসকেরা পর্যালোচনা করবেন।  এর আগে বলার কিছু নেই।’

এর আগে, সোমবার ভোর থেকে খালেদা জিয়ার শ্বাসকষ্ট শুরু হয় বলে জানান জাহিদ হোসেন।

তিনি জানান, দেশের বাইরের একাধিক চিকিৎসকের সঙ্গেও নিয়মিত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। একইসঙ্গে তার পুত্রবধূ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক চিকিৎসক ডা. জোবায়দা রহমানও পুরো কার্যক্রমের খোঁজখবর করছেন।

খালেদা জিয়াকে দেশের বাইরে নিয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে জাহিদ হোসেন বলেন, ‘এটা পুরোপুরি তার পরিবারের বিষয়। আমি এটা বলতে পারবো না। তবে তাকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে পরিবার থেকে দেড় বছর আগে থেকে বলা হয়েছে। দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে পুরো খরচ তারা বহন করবে। এটা তো অনেক আগে থেকেই তার পরিবারের চাওয়া।’

বেগম জিয়ার সঙ্গে কোনও কথা হয়েছে কিনা-এমন প্রশ্নে এই চিকিৎসক বলেন, কেমন বোধ করছেন, এসব একটু জানতে চাওয়া হয়। তার মনোবল কেমন রয়েছে, জবাবে জাহিদ হোসেন বলেন, আলহামদুলিল্লাহ, মনোবল ভালো আছে।

প্রস্তুতি সম্পন্ন, অপেক্ষা অনুমতির

বিএনপির উচ্চপযার্য়ের একাধিক নেতা বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠাতে সোমবার রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্স ঠিক করা হয়েছে। দেশের একটি খ্যাতনামা স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় এ প্রক্রিয়াটি বেশ এগিয়ে রয়েছে। এছাড়া পারিবারিকভাবে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারা যাবেন, এ বিষয়টিও ঠিক করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার পরিবারের কেউ উদ্ধৃত হতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে ডা জাহিদ হোসেন বলেন, ‘ম্যাডামের পরিবারের পক্ষ থেকে অনেক আগে থেকে বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। আর এখন নতুন সিনারিও আর সারা পৃথিবী জুড়ে করোনা মহামারির এই বাস্তবতায় বিষয়টি আরও প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়েছে।’

যদিও খালেদা জিয়াকে কোন দেশে নিয়ে যাওয়া হবে, এ নিয়ে কেউই মন্তব্য করতে রাজি নন। তবে তার ছেলে তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর পরিবার লন্ডনে থাকায় সেখানে নেওয়ার বিষয়টিই বেশি আলোচনায়। নাম প্রকাশে একাধিক নেতা এটাও ধারণা করছেন, সিঙ্গাপুর বা ব্যাংককেও নেওয়া হতে পারে বেশি জটিলতা থাকলে।

এদিকে, খালেদা জিয়ার দেশের বাইরে যাওয়ার বিষয়ে সরকার প্রধানের কাছে আবেদনের পর বিষয়টি নিয়ে অনুমতির অপেক্ষা করছে বিএনপি। দলটির প্রভাবশালী একাধিক দায়িত্বশীল জানান, বিএনপির চেয়ারপারসনের উন্নত চিকিৎসার বিষয়টি পুরোপুরি সরকারের ওপর নির্ভর করছে। ইতোমধ্যেই সরকার প্রধানের কাছে পারিবারিকভাবে আবেদন করা হয়েছে। এখন আইনিভাবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদনের পর আইনি প্রক্রিয়া দেখভাল করে মতামত দেবে আইন মন্ত্রণালয়। এরপর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ার পরই ফাইনালি বিদেশ যেতে পারবেন খালেদা জিয়া।

দলীয় সূত্র জানায়, এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে আবেদনের পর কোনও অগ্রগতি না হওয়ায় সোমবার বিএনপির মহাসচিব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। বিশেষ করে, সোমবার বিকালে খালেদা জিয়াকে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে এভার কেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে স্থানান্তর করার বিষয়টি অবহিত করেন।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) রাতে খালেদা জিয়াকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন বিএনপি প্রধানের চিকিৎসার জন্য ১০ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়। গতকাল সোমবার বিকালে তাকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

এরআগে, গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ওইদিন বিকালে আনুষ্ঠানিকভাবে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

সোমবার রাতে চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ম্যাডামের অবস্থা ন্যাচারাল আছেন। হাইপ্রোফাইল রাজনীতিক হওয়ায় স্বাভাবিক কারণে উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছে। তবে তিনি এখন ভালো আছেন, অক্সিজেন নিচ্ছেন। চিকিৎসকেরা দেখভালো করছেন।’

সর্বশেষ ২০১৭ সালের ১৬ জুলাই চিকিৎসার জন্য লন্ডন যান খালেদা জিয়া। সেখান থেকে এক মাসের মধ্যেই ফেরার কথা থাকলেও চিকিৎসায় সময় লাগায় হওয়ায় দেশে ফিরতে দেরি হয়। ওই বছর ১৮ অক্টোবর দেশে ফেরেন তিনি।

আরও পড়ুন-

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরিবারের আবেদন

সিসিইউতে খালেদা জিয়া

খালেদা জিয়া হাসপাতালে ভর্তি

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল: ডা. জাহিদ

/এফএস/

সম্পর্কিত

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

হাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

হাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া

হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে খালেদা জিয়া

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে খালেদা জিয়া

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনায় বিপিপি’র নিন্দা

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৫৫

দেশের বিভিন্ন স্থানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ (বিপিপি)। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিপিপি’র কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. নূরুজ্জামান এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতি দেন। এসব ঘটনায় দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি তুলেছে সংগঠনটি।

বিপিপি নেতারা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে, সাম্প্রতিক সময়ে দেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপনকালীন একটি কুচক্রীমহল ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী পরিকল্পিতভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে। এ কারণে বিভিন্ন পূজামণ্ডপ, মন্দির ও হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা হয়েছে। সবশেষ তাদের পরিকল্পনায় রংপুর জেলার পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের কারণে ১৮টি পরিবার এখন নিঃস্ব। এসব রাষ্ট্রবিরোধী ঘৃণ্য কাজের তীব্র নিন্দা ও জোরালো প্রতিবাদ জানাই আমরা।’

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রকৌশলীদের বক্তব্য, ‘সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, অসাম্প্রদায়িক গণআন্দোলনের মহান নেতা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক নীতির সুবাদেই মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জিত হয়েছিল। তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। দেশরত্ন জননেত্রীর নেতৃত্বে দেশ যখন সামাজিক ও অর্থনৈতিক সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক তখনই কিছু ধর্মান্ধ, সাম্প্রদায়িক ও জঙ্গিবাদী শক্তির পৃষ্ঠপোষক, বিএনপি-জামায়াতের অশুভ জোট পরিকল্পিতভাবে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে চাচ্ছে।’

সংগঠনটির মন্তব্য, ‘বাংলাদেশের মানুষ অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মভীরু, কিন্তু ধর্মান্ধ নয়। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে দেশের সাধারণ মানুষের মাঝে শান্তি-শৃঙ্খলা ও সম্প্রীতি ফিরিয়ে আনতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও অপপ্রচারকারীদের চিহ্নিত করা জরুরি। সাম্প্রদায়িক হামলার সঙ্গে জড়িত প্রতিক্রিয়াশীল ব্যক্তি ও গোষ্ঠীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

/এসএস/জেএইচ/

সম্পর্কিত

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

নেতা যেখানে, অফিস সেখানে

নেতা যেখানে, অফিস সেখানে

দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা খুবই অস্বস্তিকর: ১৪ দল

দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা খুবই অস্বস্তিকর: ১৪ দল

২০ দলীয় জোট: নেতা এলে অফিস খোলে

২০ দলীয় জোট: নেতা এলে অফিস খোলে

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৪১

বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেছেন, ‘ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দুর্নীতি-দুর্বৃত্তায়ন, অপশাসন ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে। বিভক্তি, বিভাজন ও সহিংস রাজনীতির কারণে সাধারণ মানুষের বেঁচে থাকার গণতান্ত্রিক দাবিগুলো হারিয়ে যাচ্ছে।’ বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ঢাকায় নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা, খুলনার গণমানুষের নেতা নুরুল ইসলাম দাদুর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণসভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

নাগরিক স্মরণ মঞ্চ আয়োজিত অনুষ্ঠানে নুরুল ইসলাম দাদুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব। তার ভাষ্য, ‘করোনা দুর্যোগে দেশের সাধারণ ও শ্রমজীবী মানুষ আরও নিঃস্ব হয়েছে। আর ভোটের অধিকার না থাকায় তারা রাজনৈতিকভাবেও গুরুত্ব হারিয়েছে। সরকারের লুটেরা ব্যাবসায়ী সিন্ডিকেটের স্বার্থরক্ষার নীতির কারণে জনগণের বেঁচে থাকাই দায় হয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে নুরুল ইসলাম দাদুর মতো নেতৃত্ব খুবই প্রয়োজন ছিল।’

এনডিপি মহাসচিব ও নাগরিক স্মরণ মঞ্চের সমন্বকারী মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা'র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (বিজিএ) চেয়ারম্যান এআরএম জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও যুগ্ম মহাসচিব ফয়সাল আহমেদ, বাংলাদেশ ন্যাপের ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, এশিয়া স্বপনপুরী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এ জে আলমগীর, সাবেক ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম শুভ।

/এসটিএস/জেএইচ/

সম্পর্কিত

নেতা যেখানে, অফিস সেখানে

নেতা যেখানে, অফিস সেখানে

দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা খুবই অস্বস্তিকর: ১৪ দল

দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা খুবই অস্বস্তিকর: ১৪ দল

২০ দলীয় জোট: নেতা এলে অফিস খোলে

২০ দলীয় জোট: নেতা এলে অফিস খোলে

হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলায় চরমোনাই পীরের উদ্বেগ

হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলায় চরমোনাই পীরের উদ্বেগ

জাতীয় পার্টির সম্প্রীতি সমাবেশ শুক্রবার

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩০

জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আগামীকাল (২২ অক্টোবর) সকালে সম্প্রীতি সমাবেশ করবে। ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই আয়োজনে বক্তৃতা দেবেন দলটির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তার প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী এসব তথ্য জানান। 

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় সম্প্রীতি সমাবেশে জাপা কো-চেয়ারম্যান ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার সভাপতিত্বে দলের কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতারা অংশ নেবেন।

/এসটিএস/জেএইচ/

সম্পর্কিত

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

ব্যর্থতা ঢাকতেই সাম্প্রদায়িকতাকে আনা হয়েছে: রিজভী

ব্যর্থতা ঢাকতেই সাম্প্রদায়িকতাকে আনা হয়েছে: রিজভী

সরকার সন্ত্রাসীদের কঠোর হস্তে দমনের উদ্যোগ নিয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

সরকার সন্ত্রাসীদের কঠোর হস্তে দমনের উদ্যোগ নিয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:২৬

শেখ হাসিনা সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘একটি শক্তিশালী ও দায়িত্বশীল বিরোধী দলের যে প্রত্যাশা তা পূরণে ব্যর্থ বিএনপি নেতারা। তারা নিজেদের অক্ষমতা আড়াল করতে পুরনো রেকর্ড বাজিয়ে যাচ্ছেন। বিএনপি নেতারা এখন আর নতুন কোনও বক্তব্য না পেয়ে পুরনো অভিযোগগুলোই বারবার নতুন করে বলছেন।’

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জনগণও চায় একটি বিরোধীদল জনগণের চোখ ও মনের ভাষা বুজুক। যাদের রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সক্ষমতা থাকবে; যারা জনগণের বিপদে-আপদে পাশে দাঁড়াবে, দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবে এবং সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করবে।’

বিএনপিকে গুজব ও অপপ্রচার না চালিয়ে জনগণের পক্ষে কথা বলার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে বিরোধী রাজনৈতিক দলের দায়িত্ব ভুলে গিয়ে বিএনপি এখন দায়িত্বহীন এক পরশ্রীকাতর দলে পরিণত হয়েছে। বিএনপি জনগণের আশেপাশে না গিয়ে এখন বিচরণ করছে মিডিয়া আর ভার্চুয়াল জগতে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে বিএনপি নেতারা এখন রাজনীতি নয়, অফিসিয়াল দায়িত্ব পালন করছেন। ফরমায়েশি তথা নির্দেশিত হয়ে তারা বক্তব্য বিবৃতি দিচ্ছেন, যার সঙ্গে দেশ ও জনগণের কোনও সম্পর্ক নেই।’

‘সরকার জনগণের দুঃখ-দুর্দশা উপলব্ধি করতে পারে না’, বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে দেশের মানুষ জানে, শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ সবার আগে যেকোনও দৈব-দুর্বিপাকে জনমানুষের পাশে দাঁড়ায়। বিএনপি মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে মিডিয়ায় শুধু কথামালার ফুলঝুরি ছড়ায়। বিএনপির সুবিধাবাদী চরিত্র এবং ক্ষমতা-লিপ্সা জনগণের কাছে এখন স্পষ্ট থেকে স্পষ্টতর।’

তিনি বলেন, ‘একটি অশুভ মহল দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করার লক্ষ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে বিভিন্ন ধরনের গুজব, অপপ্রচার চালাচ্ছে, যা আমাদের গণতন্ত্র ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতি হুমকিস্বরূপ।’ এ বিষয়ে আরও সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে দেশের জনগণকে এসব গুজব ও অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। একইসঙ্গে ফেসবুক ও ইউটিউব কর্তৃপক্ষকে এর অপব্যবহার রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানান তিনি।

এর আগে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ‘ওয়েস্টার্ন বাংলাদেশ ব্রিজ ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্ট এর অধীনে নির্মাণাধীন ৩৫টি সেতু ও রংপুর জোনের ২টিসহ মোট ৩৭টি সেতুর উদ্বোধনী করেন। মন্ত্রী তার বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালি এতে যুক্ত হন।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘নির্মাণাধীন সেতুগুলো দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমূহের মধ্যে সড়ক নেটওয়ার্ক স্থাপন এবং সাসেক করিডোর, এশিয়ান হাইওয়ে, বিমসটেক ও সার্ক হাইওয়ের সঙ্গে সংযুক্তি ঘটাতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বর্তমানে সারাদেশে সড়ক নেটওয়ার্কে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন হয়েছে। কিন্তু যতই উন্নয়ন হোক সড়ক ও পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা জরুরি।’ তিনি নিরাপদ সড়কের জন্য যেকোনও উপায়ে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে বলে জানান।

 

 

/পিএইচসি/আইএ/

সম্পর্কিত

আ. লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভা বৃহস্পতিবার

আ. লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভা বৃহস্পতিবার

বিএনপি নেতারা মিথ্যাচারকে শিল্পে রূপ দিয়েছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি নেতারা মিথ্যাচারকে শিল্পে রূপ দিয়েছে: ওবায়দুল কাদের

ব্যর্থতা ঢাকতেই সাম্প্রদায়িকতাকে আনা হয়েছে: রিজভী

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩:০৬

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘সরকার পরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের কাজ করছে। তারা দলে দলে বিভাজনের পর এখন সম্প্রদায়ের মাঝেও বিভেদ-বিভাজন তৈরি করেছে। দেশে তো কখনও আমরা সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা দেখিনি। তারা সাম্প্রদায়িকতার ঘুমন্ত দানবকে জাগিয়ে তুলছে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য।’

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় এই দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল। এ সময় বেগম খালেদা জিয়ার আরোগ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন রুহুল কবির রিজভী।

রিজভী অভিযোগ করেন, সাম্প্রদায়িক সব ঘটনার সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের জড়িত থাকার কথা বেরিয়ে আসছে গণমাধ্যমের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে। আগে ছাত্রনেতা দেখলে মানুষ সম্মান করতো। এখন সেটা নেই। সরকারের লোকেরা ঘটনা ঘটায় আর মামলা হয় বিএনপির নেতাদের নামে। বরকত উল্লাহ বুলু ও যুবদলের নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।’

‘আওয়ামী লীগ দেশের গণতন্ত্রকে কবরে পাঠিয়ে দিয়েছে। কিন্তু মনে রাখবেন, সেই সাম্প্রদায়িকতার ঘুমন্ত দানব কিন্তু আপনাদেরও ঘাড় মটকে দেবে,’-যোগ করেন রিজভী।

রুহুল কবির বলেন, ‘রংপুরের পীরগঞ্জের ঘটনা সরকারের নীল নকশা। তাদের ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও তাদের অনুগতরাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। সরকার তাদের ভয়াবহ দুর্নীতি, লুটপাট, অন্যায় অবিচার ঢাকার জন্য গণতন্ত্রের মাতা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি রেখেছে।’

মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম মাহাতাবের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. আবদুর রহিমের পরিচালনায় মিলাদপূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, মৎস্যজীবী দলের নাদিম চৌধুরী, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া প্রমুখ।

 

/এসটিএস/আইএ/

সম্পর্কিত

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

জাতীয় পার্টির সম্প্রীতি সমাবেশ শুক্রবার

জাতীয় পার্টির সম্প্রীতি সমাবেশ শুক্রবার

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

সরকারও চায় দেশে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল থাকুক: ওবায়দুল কাদের

সরকার সন্ত্রাসীদের কঠোর হস্তে দমনের উদ্যোগ নিয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

সরকার সন্ত্রাসীদের কঠোর হস্তে দমনের উদ্যোগ নিয়েছে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

হাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

আরোগ্য কামনায় প্রার্থনা কর্মসূচিহাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া

হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে খালেদা জিয়া

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে খালেদা জিয়া

বিকালে এভার কেয়ারে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

বিকালে এভার কেয়ারে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়লো

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়লো

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে, আবেদন শিগগিরই

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে, আবেদন শিগগিরই

‘খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা এখনও রয়েছে’

‘খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা এখনও রয়েছে’

টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন খালেদা জিয়া

টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন খালেদা জিয়া

‘খালেদা জিয়ার বিদেশে আধুনিক চিকিৎসা প্রয়োজন’

‘খালেদা জিয়ার বিদেশে আধুনিক চিকিৎসা প্রয়োজন’

সর্বশেষ

এবার অস্কারে যাচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’

এবার অস্কারে যাচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’

জিততে কী করতে হবে বাংলাদেশকে

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজিততে কী করতে হবে বাংলাদেশকে

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

রেলের বেদখল সব জায়গা দখলমুক্ত করা হবে: রেলমন্ত্রী

রেলের বেদখল সব জায়গা দখলমুক্ত করা হবে: রেলমন্ত্রী

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

‘দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে’

© 2021 Bangla Tribune