X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

জিন হাজির করে চিকিৎসার নামে যৌন হয়রানি, যুবক আটক

আপডেট : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৩

বগুড়ার শিবগঞ্জে জিন হাজির করে চিকিৎসার কথা বলে যৌন হয়রানির অভিযোগে রুম্মান হাসান (২৪) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার বিহার ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রাম থেকে তাকে আটক করে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। 

আটককালে হাসানের কাছ থেকে মানুষের মাথার খুলি, যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট, তাবিজ, জাদুর ঝুলি ও সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি বিহার ফকিরপাড়া গ্রামের আজাহার আলী ফকিরের ছেলে। রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম এ তথ্য জানান। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মানিকগঞ্জের সিংগাইরে মাদ্রাসায় পড়াশোনা করতে গিয়ে অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ায় হাসানকে সেখান থেকে বিতাড়িত করা হয়। এরপর থেকে নিজেকে হাফেজ ও তান্ত্রিক পরিচয় দিয়ে এলাকার নিঃসন্তান নারীদের জিন হাজির করে চিকিৎসা দেওয়া, অবাধ্য সন্তানকে বাধ্য, স্বামী-স্ত্রীর মাঝে সুসম্পর্ক, প্রেম অটুট ও প্রেমের সম্পর্ক স্থাপন করাসহ নানা ধরনের চিকিৎসা শুরু করেন। বাড়িতেই আস্তানা খুলে বসেন হাসান।

সম্প্রতি অভিযোগ ওঠে, জিন হাজিরের মাধ্যমে চিকিৎসা দেওয়ার নামে নারীদের যৌন হয়রানি ও ব্লাকমেইল করে টাকা হাতিয়ে নেন হাসান। ভুক্তভোগীরা সম্মানের ভয়ে বিষয়টি গোপন করেন।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আটমুল ইউনিয়নের চককানু গ্রামের এক ব্যক্তি ৯৯৯ নম্বরে কল করে হাসানের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাতেই আস্তানায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটককালে নিজেকে নিরপরাধ ও সফল চিকিৎসক দাবি করেন হাসান।

ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, হাসান একজন প্রতারক। সে নিজেকে হাফেজ ও তান্ত্রিক দাবি করলেও তা সঠিক নয়। আজ দুপুর পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কেউ মামলা করেনি। ভুক্তভোগীদের কেউ মামলা দিলে তাকে রিমান্ডে নেওয়া হবে। আর মামলা না করলে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে চালান দেওয়া হবে।

/এসএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ৪

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩০

কক্সবাজারের উখিয়ায় দুই রোহিঙ্গা গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে চার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১০ রোহিঙ্গা। তাদের মধ্যে চার জনকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ভোরে উখিয়ার ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোহিঙ্গারা হলেন উখিয়ার বালুখালী-২ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা মো. ইদ্রীস (৩২), ইব্রাহীম হোসেন (২২), আজিজুল হক (২৬) ও মো. আমীন (৩২)।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে চার জন নিহত হওয়ার খবর পেয়েছি। নিহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। আমি ঘটনাস্থলে আছি। পরে বিস্তারিত জানাবো।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক পুলিশ সুপার শিহাব কায়সার বলেন, শুক্রবার ভোরে উখিয়া বালুখালী ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে চার রোহিঙ্গা নিহত হয়। এ সময় আহত হয় ১০ রোহিঙ্গা। 

ঘটনার পরপরই এপিবিএন এবং জেলা পুলিশ বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার এবং অস্ত্রধারীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে। পুলিশ এ পর্যন্ত একজনকে আটক করেছে বলে জানিয়েছেন শিহাব কায়সার। 

/এএম/

সম্পর্কিত

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

মাজার থেকে যেভাবে কোরআন নিয়ে পূজামণ্ডপে যান ইকবাল

মাজার থেকে যেভাবে কোরআন নিয়ে পূজামণ্ডপে যান ইকবাল

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৮

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে। বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে এক অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এ এইচ মাহমুদ আলী বলেন, যারা এদেশের স্বাধীনতা মেনে নিতে পারেনি, যারা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি মেনে নিতে পারছে না, তারাই দেশে পরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। বিভিন্ন স্থানে মণ্ডপে ভাঙচুর, হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটাচ্ছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তাদের সব মুখোশ উম্মোচন করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়ে আবারও এদেশে অপশক্তিকে বিতাড়িত করতে সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার গাওসুল আযম বিএনএসবি আই হসপিটাল দিনাজপুর-এ গ্লুকোমা, রেটিনা ও কর্ণিয়া সাব-স্পেসিয়ালটি ইউনিট স্থাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসার ক্ষেত্রে অত্যন্ত উদার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা জনগণের কল্যানের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর এই দেশের সব মানুষ শান্তিতে বসবাস করে আসছে। করোনাকালেও উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা পিছিয়ে যায়নি। সব ক্ষেত্রেই উন্নয়ন করেছেন শেখ হাসিনা। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিরা উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতেই হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে বিবাদ তৈরি করছে। কিন্তু শেখ হাসিনা ভয় পাওয়ার মানুষ নয়, সব অপশক্তিকে প্রতিহত করা হচ্ছে।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিপিএম, রংপুর বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক আব্দুল মোতালেব সরকার, দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আব্দুল লতিফ, সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুস, বাংলাদেশ জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি দিনাজপুরের সাধারণ সম্পাদক ডা. চৌধুরী মোসাদ্দেকুল ইজদানী প্রমুখ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৩

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলার দায় রাজনৈতিক নেতারা এড়িয়ে যেতে পারেন না বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।

বৃহস্পতিবার বিকালে নোয়াখালী সার্কিট হাউস মিলনায়তনে নোয়াখালীর সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, চৌমুহনীর মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে বোঝা গেলো দেশে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিকাশ ঘটছে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য তারা বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে।তৃণমূল পর্যায়ে ১৪ দল এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করা না গেলে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না।

সভায় ১৪ দল নেতৃবৃন্দ চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের শুক্রবার থেকে প্রয়োজনীয় খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি প্রশাসনিকভাবে পূর্ণ নিরাপত্তা দেওয়ার দাবি জানান।

সভায় আওয়ামী লীগের সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপি, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, জাসদের যুগ্ম সম্পাদক মো. মহসীন, জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক শহিদ উল্লাহ খানসহ সনাতন ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে দুপুরে ১৪ দল নেতৃবৃন্দ চৌমুহনীতে ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির পরিদর্শন করেন এবং সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজনের খোঁজখবর নেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪১

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলা চালানোর ঘটনায় আব্দুর রহিম সুজন (১৯) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে তার বাড়ি থেকে লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় সুজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে তাকে নোয়াখালী  আদালতে সোপর্দ করা হয়। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার আব্দুর রহিম সুজন বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার করিমপুর গ্রামের খালপাড় ইউসুফ মিয়ার বাড়ির মৃত আবুল কাশেমের ছেলে।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানিয়েছেন, গ্রেফতারকৃত আসামির বাড়ি থেকে লুণ্ঠিত লাক্স সাবান ছয়টি, টুথপেস্ট ছয়টি, দুধের প্যাকেট একটি, শ্যাম্পু ১৩টি, কফি, ডিটারজেন্ট পাউডার চারটি, ভিম সাবান তিনটি ও হুইল সাবান একটি উদ্ধার করা হয়।গ্রেফতারকৃত আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। 

/এএম/

সম্পর্কিত

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩২

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলি করা হয়েছে। উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও দুইজন নিহতের ঘটনায় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তার প্রত্যাহার দাবি করে আসছিল।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টায় জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম পিপিএম প্রেরিত এক চিঠিতে মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলির আদেশ দেওয়া হয়।

এর আগে, কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলির অনুমতির জন্য নির্বাচন কমিশন বরাবর চিঠি পাঠানো হয়। বেগমগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার কারণে বেগমগঞ্জ মডেল থানা নির্বাচন কমিশনের অধীনে রয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম পিপিএম জানান, মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশে বদলি করা হয়েছে। তার জায়গায় মীর জাহেদুল হক রনিকে পদায়ন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে চৌমুহনী শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে কয়েক হাজার মুসল্লি কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন। এ সময় তারা চৌমুহনী ডিবি রোড (ফেনী-নোয়াখালী সড়ক), কলেজ রোড, ব্যাংকিং রোড ও দক্ষিণ বাজার গিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের মণ্ডপ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ চালায়। এ ঘটনায় নিহত হন যতন সাহা (৪১) ও প্রান্ত চন্দ্র দাস (২৬)। হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের পক্ষ থেকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে বেগমগঞ্জ থানার ওসির প্রত্যাহার দাবি করা হয়।

/এমপি/

সম্পর্কিত

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

জামালপুরে জেলা জামায়াতের আমিরসহ ১৪ নেতাকর্মী আটক

জামালপুরে জেলা জামায়াতের আমিরসহ ১৪ নেতাকর্মী আটক

সর্বশেষ

রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ৪

রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ৪

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

© 2021 Bangla Tribune