X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভারতে প্রশিক্ষণ নিয়ে যেভাবে অবৈধ অস্ত্রের ব্যবসা করতো চক্রটি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১২ মার্চ ২০২৪, ১৫:৪৩আপডেট : ১২ মার্চ ২০২৪, ১৫:৫৩

মো. মোখলেছুর রহমান সাগর। পেশায় ভাস্কর্য ও মূর্তি তৈরির কারিগর। কাজের দক্ষতার সুবাদে ভারতের কলকাতায় ও আসামের শিলিগুড়িতে ভাস্কর্য ও মূর্তি তৈরির কাজ করে আসছিল। সেখানে সুকুমার নামে অস্ত্র তৈরির একজন কারিগরের সঙ্গে পরিচয় হয়। সেই সূত্রে এক পর্যায়ে সাগরও

অস্ত্র তৈরির দক্ষতা অর্জন করে। পরে দেশে ফিরে এসে কোটিপতি হওয়ার আশায় শুরু করে অবৈধ অস্ত্র তৈরির কাজ।

সোমবার (১১ মার্চ) রাতে রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় অভিযান চালিয়ে চারটি পিস্তল ও অস্ত্র তৈরির বিপুল সরঞ্জামসহ ৬ জন অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের পর এসব তথ্য জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলো, অবৈধ অস্ত্র তৈরি ও অস্ত্র ব্যবসায়ী চক্রটির মূলহোতা মোখলেছুর রহমান সাগর (৪২), মো. তানভির আহম্মেদ (৩২), অনিক হাসান (২৮), মো. আবু ইউসুফ সৈকত (২৮), রাজু হোসেন (৩৮) ও মো. আমির হোসেন (৪০)।

মঙ্গলবার (১২মার্চ) দুপুরে রাজধানীর কাওরানবাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব-১০ এর অধিনায়ক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, এই চক্রটি ভারত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে অস্ত্র নিয়ে আসতো। দেশে উঠতি সন্ত্রাসীদের কাছে সেগুলো উচ্চমূল্যে বিক্রি করতো। এখনও পর্যন্ত তারা মোট ১৩টি অস্ত্র দেশে নিয়ে এসেছে। এর মধ্যে থেকে ৯টি অস্ত্র বিক্রি করেছে। প্রথম চালানে তারা ৮টি অস্ত্র এনে সবগুলা বিক্রি করে। পরে আরও  ৫টি অস্ত্র এনে তা থেকে একটি বিক্রি করে। বাকিগুলো বিক্রির সময় তারা গ্রেফতার হয়। চক্রের সদস্যরা মূলত  বেশি লাভের আশায় ভারতীয় অস্ত্র দেশে তৈরির কাজ শুরু করেছিল বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

 র‌্যাবের সংবাদ সম্মেলনে দেখানো হচ্ছে জব্দ করা অস্ত্র ও অন্যান্য সরঞ্জাম

তিনি জানান, সাম্প্রতিক সময়ে র‍্যাব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে, কিছু অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী কিছুদিন ধরে অবৈধভাবে পিস্তলসহ বিভিন্ন অস্ত্র তৈরি করে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করছে। অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন নাশকতাকারীদের কাছে মোটা টাকার বিনিময়ে অস্ত্র সরবরাহ করতো তারা। এরপর সোমবার রাতে র‍্যাব-১০ এর একটি দল রাজধানীর উত্তর বাড্ডা এলাকায় অভিযান চালায়।

অভিযানে প্রথমে চক্রটির মূলহোতা মো. মোখলেছুর রহমান সাগর ও মো. তানভির আহম্মেদকে গ্রেফতার করা হয়।  তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড্ডা থানার হাজী আব্দুল হামিদ রোডের পূর্ব-পদরদিয়া এলাকা থেকে চক্রের অপর চার সদস্যকে গ্রেফতার  করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন,  গ্রেফতার মো. মোখলেছুর রহমান সাগর পেশায় একজন ভাস্কর্য ও মূর্তি তৈরির কারিগর। এই দক্ষতার কারণে সে কলকাতা ও শিলিগুড়িতে প্রায় ১২ বছর ভাস্কর্য ও মূর্তি তৈরির কারিগর হিসেবে কাজ করে আসছিল। পরবর্তী সময়ে সেখানে সুকুমার নামে একজন অস্ত্র তৈরির কারিগরের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। ওই ব্যক্তির কাছ থেকে মোখলেছুর রহমান সাগর অস্ত্র তৈরির দক্ষতা অর্জন করে। পরে দেশে ফিরে সে তানভির, অনিক ও সৈকতকে নিয়ে অস্ত্র তৈরি ও সরবরাহের জন্য একটি সিন্ডিকেট গড়ে তোলে।

/কেএইচ/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
শ্রীমঙ্গলে অস্ত্র ও মাদকসহ ব্রিটিশ নাগরিক আটক
র‌্যাবের হাতে ভুয়া পুলিশ সদস্য গ্রেফতার
তাস খেলাকে কেন্দ্র করে যুবককে হত্যার অভিযোগ
সর্বশেষ খবর
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
সর্বাধিক পঠিত
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা