তাবিথের ওপর হামলার প্রতিবেদনম্যাজিস্ট্রেট বলছেন ফৌজদারি অপরাধ, পুলিশ বলছে ‘ধর্তব্য নয়’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৩:৩৫, জানুয়ারি ২৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৪১, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

 বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের মিছিলে হামলার অভিযোগঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলার অভিযোগে পৃথক দুটি প্রতিবেদন জমা পড়েছে রিটার্নিং কর্মকর্তার দফতরে। ওই ঘটনাকে ফৌজদারি অপরাধ উল্লেখ করে প্রতিবেদন দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট। অপরদিকে দারুস সালাম থানা পুলিশের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই ঘটনা ঠেলাঠেলি ও ধাক্কাধাক্কি; যা অধর্তব্য প্রকৃতির অপরাধ।
এদিকে দুই প্রতিবেদন পাওয়ার পর সামনের দিনগুলোতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে পথসভা ও ঘরোয়া সভা আয়োজনের ২৪ ঘণ্টা আগে তা পুলিশকে জানাতে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের চিঠি দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাশেম বলেন, ‘প্রতিবেদন পেয়েছি। এতে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলা হয়েছে। বিস্তারিত তদন্ত ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করা যাবে না। এটার জন্য সময় প্রয়োজন। তাই প্রতিবেদন নির্বাচন কমিশনে পাঠিয়ে দেবো। কমিশন আইনগত ব্যবস্থা নেবে।’
গত ২১ জানুয়ারি রাজধানীর দারুস সালাম থানার বড়বাজার এলাকায় তাবিথ আউয়াল ও তার সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মুজিব সরোয়ার মাসুম ও তার নেতাকর্মী সমর্থকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তাবিথ আউয়াল। এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দিতে নির্দেশ দেয় ইসি। অন্যদিকে মাসুমের প্রার্থিতা বাতিল ও শাস্তি নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশনে চিঠি দেন তাবিথ আউয়াল।
এদিকে ওই ঘটনায় পুলিশ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘প্রচারণা চালানোর বিষয়ে থানাকে অবহিত না করে তাবিথ আউয়াল ২০০ থেকে ৩০০ জন নেতাকর্মী ও সমর্থক নিয়ে মিছিলের মতো নির্বাচনি প্রচার চালিয়ে বড়বাজার নামের স্থানে যান। ওই এলাকায় ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মুজিব সরোয়ার মাসুমের নেতৃত্বে ২০০ জনের মতো নেতাকর্মী প্রচার চালিয়ে গলি থেকে বেরিয়ে মেইন রাস্তায় মেয়র প্রার্থীর নেতাকর্মী-সমর্থকদের মুখোমুখি হয়ে পড়ে। সরু রাস্তায় দুই দলের নেতাকর্মী-সমর্থকেরা মুখোমুখি হওয়ায় তাদের মধ্যে ঠেলাঠেলি ও ধাক্কা-ধাক্কি হয় বলে জানা যায়।’ এতে আরও বলা হয়, দুই দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা মুখোমুখি হয়ে পড়লে টহলে থাকা পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে উভয়পক্ষকে দুই দিকে দুই রাস্তায় সরিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।’ ওই প্রতিবেদনে এ ধরনের ঘটনাকে অধর্তব্য অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।
অপরদিকে ওই ঘটনায় আরেক তদন্ত কর্মকর্তা ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান শাহরিয়ার তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন, ‘তাবিথ আউয়ালের আনা অভিযোগ ফৌজদারি অপরাধ সংশ্লিষ্ট যা মোবাইল কোর্টে নয়, দণ্ডবিধি-১৮৬০ মতে বিচার্য। এ বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে।’

 আরও পড়ুন: তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলার তদন্তের নির্দেশ ইসির

                  মিরপুরে তাবিথের প্রচারণায় হামলার অভিযোগ

 
/ইএইচএস/ওআর/

লাইভ

টপ