X
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
Bangla Tribune Eid

সেকশনস

করোনা চিকিৎসায় যাচ্ছিলেন ডাক্তার, মামলা দিলো পুলিশ

আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০২১, ১২:৫৩

রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের করোনা ইউনিটের চিকিৎসক ডা. নাজমুল ইসলাম। লকডাউনের প্রথম দিনের সকালেই তাকে পড়তে হয়েছে বিপত্তিতে। মুন্সীগঞ্জ থেকে হাসপাতালে ডিউটিতে যাওয়ার সময় রাজধানীর ওয়ারী এলাকায় পুলিশের চেকপোস্টে তাকে আটকে দেওয়া হলো। চিকিৎসক পরিচয় জানিয়ে আইডি কার্ড দেখালেও লকডাউনের মধ্যে বের হওয়ায় তাকে মামলা দেওয়া হয়। অথচ জরুরি সেবায় নিয়োজিতদের চলাফেরায় মুভমেন্ট পাস লাগবে না বলে জানিয়েছিল পুলিশ।

মঙ্গলবার মুভমেন্ট পাস অ্যাপ ও ওয়েবসাইট উদ্বোধনের সময় পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ বলেন, সাংবাদিকদের এই পাস নিতে হবে না। এছাড়া বিভিন্ন হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, ফায়ার সার্ভিস, পানি সরবরাহ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তি, বিদ্যুৎ বিতরণ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তি, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের বর্জ্য অপসারণকারী সদস্যসহ এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সদস্যরা জরুরি প্রয়োজনে বের হতে পারবেন। 

এক বছর ধরে স্কয়ার হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ডিউটি করছেন ডা. নাজমুল ইসলাম। নিজেও আক্রান্ত হয়েছিলেন করোনায়। মুন্সীগঞ্জ থেকে নিজের ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার করে হাসপাতালে যাতায়াত করেন তিনি। সরকার ঘোষিত লকডাউনে স্বাস্থ্য সেবার সঙ্গে সম্পৃক্তদের লকডাউনের আওতামুক্ত রাখা হয়। তারপরও লকডাউনে চলাচলের জন্য পুলিশের মুভমেন্ট পাস নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। তবে অনলাইনে সার্ভার জটিলতায় চেষ্টা করেও পাস নিতে পারেননি ডা. নাজমুল।

বাংলা ট্রিবিউনকে এই চিকিৎসক বলেন, ওয়ারীর কোডা মসজিদের কাছাকাছি একটা চেকপোস্ট ছিল। তখন প্রায় পৌনে ৮টা বাজে। সেখানে আমার গাড়ি থামলো, আমি আমার আইডি কার্ড দেখালাম, তাদের জানালাম আমি করোনা ইউনিটে ডিউটি করি। একজন পুলিশ কর্মকর্তা বললেন চলে যেতে। এরমধ্যে আরেকজন এসে বললো, মুভমেন্ট পাস না থাকলে মামলা হবে। তাদের আমি আইডি কার্ডও দেখলাম। কিন্তু তারা শেষ পর্যন্ত মামলা দিলেন। আমি অবাক হয়ে গেলাম।

ডা. নামজুল জানালেন, তার বাবা করোনা আক্রান্ত, দিন শেষে বাড়ি গিয়ে বাবার দেখাশোনা নিজেই করেন। পুলিশের চেকপোস্টে দেরি হওয়ায় তিনি হাসপাতালে পৌঁছান নির্ধারিত সময়ের ১৫ মিনিট পরে।

নাজমুল ইসলামের গাড়ির বিরুদ্ধে করা পুলিশের মামলার কপি বাংলা ট্রিবিউনের হাতে এসেছে। সেখানে লেখা আছে ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’-এর  ৯২(১) ধারার তাকে মামলা দেওয়া হয়েছে। এই ধারার  অন্তর্ভুক্ত অপরাধগুলো হচ্ছে, মোটরসাইকেলে তিন জন বসা, হেলমেট না পরা, ফুটপাতের ওপর মোটরসাইকেল চালানো, গাড়ি চালানোর সময় মোবাইলে কথা বললে, সিট বেল্ট না বাঁধা ইত্যাদি। আর এ জন্য পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা বা অনধিক এক মাসের কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ডের বিধান আছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাজমুল ইসলাম বলেন, আমার গাড়িটি নতুন, সব কাগজপত্র আপডেট। সে সময় আমার গাড়ির চালক মোবাইলে কথা বলেননি। আমরা সিট বেল্টও পরা ছিলাম। আর মামলা দেওয়ার সময় পুলিশ সদস্যরা বলছিলেন, লকডাউনে মুভমেন্ট পাস না থাকায় তারা মামলা দিচ্ছে।  এখন তারা কেন এই ধারায় মামলা দিলো তা তো আমি বুঝতে পারছি না ।

মামলার কেস  আইডি 1006087394, মামলাটি দেওয়া হয় নাজমুল ইসলামের গাড়িচালক নিজামুর রহমানের নামে। মামলাটি ২(১) ধারার দেওয়া হলেও মন্তব্যে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘সরকারি আদেশ অমান্য’।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিসি ট্রাফিক (ওয়ারী) বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সরকারের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী যাদের চলাচলের অনুমতি আছে তাদের বাধা দেওয়ার কোনও কারণ নেই। ডাক্তারদের বাধা দেওয়ার কোনও কারণ নেই।  আমার কাছে এমন কোনও অভিযোগ আসেনি।

তিনি আরও বলেন, এখন শত শত ঘটনার মধ্যে কোথাও ছোটখাটো ভুল বোঝাবুঝি থাকতে পারে। হয়তো অন্য কোনও সমস্যাও থাকতে পারে। পুলিশ ফ্রন্টলাইনার হিসেবে মানবিকভাবেই কাজ করে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন-

চেকপোস্টে নানান যুক্তি, মুভমেন্ট পাস না থাকলে ফেরত পাঠাচ্ছে পুলিশ

১ লাখ ৩৩ হাজার মুভমেন্ট পাস ইস্যু, মিনিটে ১৪ হাজার ভিজিট

মুভমেন্ট পাস নিয়ে ঘুড়ি কেনা!

৭ দিনের ‘সর্বাত্মক বিধিনিষেধ’ শুরু: যা করবেন না

আধা লকডাউন কতটা কার্যকর?

কঠোর বিধিনিষেধ মানাবে কে?

যেসব কারণে পুলিশের মুভমেন্ট পাস নেওয়া যাবে

লকডাউনে চলাচলে লাগবে ‘মুভমেন্ট পাস’

কোথায় পাবেন মুভমেন্ট পাস

যাদের মুভমেন্ট পাস লাগবে না

 

/সিএ/এফএস/

/এফএস/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আরও দুই ইসলামি বক্তাকে খুঁজছে পুলিশ

আরও দুই ইসলামি বক্তাকে খুঁজছে পুলিশ

সীমিত আকারের ঈদ

সীমিত আকারের ঈদ

চন্দ্রিমায় তিল ধারণের ঠাঁই নেই

চন্দ্রিমায় তিল ধারণের ঠাঁই নেই

ভারতে আরও তিন লাখ ৪৩ হাজার করোনা শনাক্ত

ভারতে আরও তিন লাখ ৪৩ হাজার করোনা শনাক্ত

‘কল অব ডিউটি’

‘কল অব ডিউটি’

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৬ কোটি ১৯ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৬ কোটি ১৯ লাখ ছাড়িয়েছে

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

‘করোনা বলে কোনও রোগ নেই’

‘করোনা বলে কোনও রোগ নেই’

অক্সিজেন সংকটে ভারতের এক হাসপাতালে ৭৪ করোনা রোগীর মৃত্যু

অক্সিজেন সংকটে ভারতের এক হাসপাতালে ৭৪ করোনা রোগীর মৃত্যু

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালানো সম্ভব’

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালানো সম্ভব’

‘শ্রমিক কল্যাণের টাকা কোথায় যায় তা নেতারাই জানেন’

‘শ্রমিক কল্যাণের টাকা কোথায় যায় তা নেতারাই জানেন’

সর্বশেষ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: গান শোনাবেন তারা...

ঈদের দ্বিতীয় দিন: গান শোনাবেন তারা...

অক্সিজেন লাগবে, অক্সিজেন?

অক্সিজেন লাগবে, অক্সিজেন?

শনিবার সারপ্রাইজ: মুখোমুখি বসছেন তাহসান-মিথিলা!

শনিবার সারপ্রাইজ: মুখোমুখি বসছেন তাহসান-মিথিলা!

ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

ডিজিটাল উপকূল-৫ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: ভিন্ন আয়োজনে ‘ইত্যাদি’ ও অন্যান্য

ঈদের দ্বিতীয় দিন: ভিন্ন আয়োজনে ‘ইত্যাদি’ ও অন্যান্য

রংপুর মেডিক্যালে ঈদে রোগীদের চিকিৎসাসেবা না পাওয়ার অভিযোগ

রংপুর মেডিক্যালে ঈদে রোগীদের চিকিৎসাসেবা না পাওয়ার অভিযোগ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: যত নাটক টেলিছবি ও স্বল্পদৈর্ঘ্য

ঈদের দ্বিতীয় দিন: যত নাটক টেলিছবি ও স্বল্পদৈর্ঘ্য

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

কর্মচারীদের গাফিলতিতে হাসপাতাল থেকে পালায় করোনা রোগীরা

কর্মচারীদের গাফিলতিতে হাসপাতাল থেকে পালায় করোনা রোগীরা

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আরও দুই ইসলামি বক্তাকে খুঁজছে পুলিশ

আরও দুই ইসলামি বক্তাকে খুঁজছে পুলিশ

সীমিত আকারের ঈদ

সীমিত আকারের ঈদ

চন্দ্রিমায় তিল ধারণের ঠাঁই নেই

চন্দ্রিমায় তিল ধারণের ঠাঁই নেই

‘কল অব ডিউটি’

‘কল অব ডিউটি’

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত

রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালানো সম্ভব’

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরপাল্লার গণপরিবহন চালানো সম্ভব’

‘শ্রমিক কল্যাণের টাকা কোথায় যায় তা নেতারাই জানেন’

‘শ্রমিক কল্যাণের টাকা কোথায় যায় তা নেতারাই জানেন’

সমিতির কেউ আমাদের খোঁজ রাখেনি

পরিবহন শ্রমিকের ক্ষোভসমিতির কেউ আমাদের খোঁজ রাখেনি

ঈদে নেই চিরচেনা কোলাকুলি

ঈদে নেই চিরচেনা কোলাকুলি

লকডাউন প্রত্যাহারের পর ঢাকায় ফেরার অনুরোধ তাপসের

লকডাউন প্রত্যাহারের পর ঢাকায় ফেরার অনুরোধ তাপসের

© 2021 Bangla Tribune