X
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪
৯ আষাঢ় ১৪৩১

রাইসির মৃত্যুতে উল্টে গেছে পাশার দান, আলোচনায় খামেনির ছেলে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২১ মে ২০২৪, ২২:২৫আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ২২:৪৪

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ইরানি প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির একজন সম্ভাব্য উত্তরসূরি হিসেবে বিবেচনা করা হতো। তার মৃত্যুতে সর্বোচ্চ নেতা তৈরির চলমান প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়েছে। সর্বোচ্চ নেতার সম্ভাব্য উত্তরসূরিদের তালিকায় উঠে আসছে খামেনির ছেলে মোজতবার নাম। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানিয়েছে।

অবশ্য বিশ্লেষকরা বলছেন, ইরানি নেতৃত্বের মনে কী ছিল, তা নিশ্চিতভাবে জানা অসম্ভব। বেশ কয়েক দশক ধরে রাইসি ইরানের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন। এর ফলে খামেনির পর ভবিষ্যতে সর্বোচ্চ নেতা হওয়ার ক্ষেত্রে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে তার নাম আলোচনায় ছিল।

ইরানের সংবিধান অনুসারে, দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করেন। তাকে নিয়োগ দেয় বিশেষজ্ঞদের একটি কমিটি। পররাষ্ট্রনীতিসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে ৮৫ বছর বয়সী খামেনির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। আয়াতুল্লাহ খোমেনির মৃত্যুর ১৯৮৯ সাল থেকে সর্বোচ্চ নেতার দায়িত্বে রয়েছেন খামেনি।

বার্লিনভিত্তিক থিংকট্যাংক সেন্টার ফর মিডলইস্ট অ্যান্ড গ্লোবাল অর্ডারের পরিচালক আলি ফাথোল্লাহ-নেজাদ বলেছেন, রাইসিকে খামেনির উত্তরসূরি হিসেবে দেখা হতো কিনা তা বলা খুব কঠিন। কিন্তু খামেনি দীর্ঘদিন ধরে তাকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়ে আসছিলেন।

তিনি আরও বলেছেন, এর মধ্যে রয়েছে বিচার  বিভাগ ও প্রেসিডেন্সি, যা সর্বোচ্চ নেতা হিসেবে তাকে গড়ে ওঠার সুযোগ দেওয়ার আকাঙ্ক্ষার ইঙ্গিত দেয়।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইসিস গ্রুপের বিশ্লেষক আলি ভায়েজ ও নায়সান রাফাতি বলেন, ইরানের দুর্বোধ্য রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে রাইসি ভবিষ্যতে সর্বোচ্চ নেতা হতে পারতেন কিনা তা শীর্ষস্থানীয় অল্প কয়েকজন নেতা ছাড়া কারও জানার কথা নয়। কিন্তু তাকে যদি এই দায়িত্বের জন্য বিবেচনা করা হয়ে থাকে তাহলে তার মৃত্যু খামেনির উত্তরসূরি কে হবেন তা নিয়ে বড় প্রশ্ন হাজির করেছে। 

উল্টে গেছে পাশার দান

রাইসি বাদে সর্বোচ্চ নেতার উত্তরসূরি হিসেবে আলোচনায় যার নাম রয়েছে তিনি হলেন খামেনির ছেলে মোজতবা। ৫৪ বছর বয়সী এই ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে খুব দেখা যায় না। তবে পর্দার আড়ালে তিনি খুব প্রভাবশালী বলে মনে করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। 

ফাথোল্লাহ-নেজাদ বলেছেন, নিজের উত্তরসূরি হিসেবে মোজতবাকে দায়িত্ব দেওয়ার আকাঙ্ক্ষা রয়েছে খামেনির। পর্দার আড়ালে মোজতবা একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।

তিনি উল্লেখ করেছেন, ইরানের নেতৃস্থানীয়দের মধ্যে পারিবারিক শাসন নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে। শাহের শাসনকে উৎখাত করার সময় ইসলামি বিপ্লবীরা পারিবারিক শাসনের বিরোধিতা করেছিলেন। কিন্তু এখন, রাইসির মৃত্যুতে খামেনির উত্তরসূরি হওয়ার পাশার দান উল্টে গেছে। মনোযোগ মোজতবার ওপর ফিরে এসেছে।

প্রকাশ্যে খুব বেশি না আসা, সংবাদে প্রায় উল্লেখ না থাকা এবং সরকারি কোনও দায়িত্বে না থাকা মোজতবা খামেনিকে অনেক বিশ্লেষক দেশটির সর্বোচ্চ নেতার সেকেন্ড-ইন-কমান্ড বলে মনে করেন। খামেনির কার্যালয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রধান দায়িত্ব পালন করে আসছেন মোহাম্মদ গোলপায়েগানি। 

মোজতবা ইরানের কতটা গুরুত্বপূর্ণ সে বিষয়ে ২০১৯ সালের নভেম্বরে একটি ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। ওই সময় মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, খামেনি নিজের কিছু দায়িত্ব মোজতবাকে দিয়েছেন। 

ব্রুকিংস ইনস্টিটিউশনের পররাষ্ট্রনীতি প্রকল্পের পরিচালক সুজানে ম্যালোনি বলেছেন, রাইসির মৃত্যুতে সম্ভাব্য উত্তরসূরি নির্বাচনের প্রক্রিয়া নতুন মোড় নেবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে খামেনির পর সর্বোচ্চ নেতা হওয়ার ক্ষেত্রে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রাইসির নাম ছিল তালিকার উপরের দিকে। 

তিনি বলেছেন, রাইসিকে বাদ দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন মোজতবা খামেনি। পর্দার আড়ালে তিনি অনেক প্রভাবশালী। কিন্তু তার ধর্মীয় যোগ্যতার পাশাপাশি বংশগত শাসন নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

বিশ্লেষকরা খামেনির সম্ভাব্য উত্তরসূরিদের প্রার্থীদের তালিকা থেকে আলি জেরা আরাফির নাম বাদ দিতে রাজি নন। তিনি দেশটির গুরুত্বপূর্ণ বিশেষজ্ঞ পরিষদ ও গার্ডিয়ান কাউন্সিল উভয়ের সদস্য।

বিক্ষোভের পুনরুজ্জীবন

স্থিতিশীলতা ও ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করা ইরানি নেতৃত্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হবে। বিশেষ করে ২০২২ সালে দেশজুড়ে বিক্ষোভে তরুণরা শাসক ও সামাজিক বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে নিজেদের হতাশার কথা জানান দিয়েছে। 

গত কয়েক বছরে ইরানের ক্ষমতা রক্ষণশীলদের হাতে কেন্দ্রীভূত হয়েছে। চলতি বছরের পার্লামেন্ট নির্বাচনে এই প্রবণতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এতে ভোটার ছিল অনেক কম।

ইরানি প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা ছিল সীমিত। তবু রাইসির মৃত্যু ইরানের জন্য একটি বড় ধাক্কা। দায়িত্ব পালনকালে নিহত ইরানি প্রেসিডেন্টের মধ্যে তিনি ছিলেন দ্বিতীয়। তার আগে, ১৯৮১ সালে ক্ষমতা গ্রহণের এক মাসের কম সময়ের মধ্যে বোমা হামলায় নিহত হয়েছিলেন মোহাম্মদ আলি রাজাই।

ফাথোল্লাহ-নেজাদ বলেছেন, ২০২২ সালের বিক্ষোভ ও পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার মুখে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সংকট, নতুন সর্বোচ্চ নেতার কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর দেশটির কর্তৃপক্ষের জন্য একটি ঝুঁকিপূর্ণ সময় হয়ে দেখা দিতে পারে।

তিনি বলেছেন, খামেনির যদি মৃত্য হয় বা মোজতবাকে তার উত্তরসূরি ঘোষণা করা হয় তাহলে খুব বড় বিক্ষোভের সম্ভাবনা কম। বড় প্রশ্ন হলো, ক্ষমতার কাঠামোতে এমন শূন্যতার মুহূর্তে বা বিরোধপূর্ণ উত্তরসূরি নির্বাচন হলে দেশটির ক্ষমতা ও নিরাপত্তা কাঠামোর মধ্যে ফাটল দেখা দিতে পারে। যা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পথ খুলে দিতে পারে।

 

/এএ/
টাইমলাইন: ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত
২১ মে ২০২৪, ২২:২৫
রাইসির মৃত্যুতে উল্টে গেছে পাশার দান, আলোচনায় খামেনির ছেলে
২০ মে ২০২৪, ১৫:০৪
সম্পর্কিত
আহত ফিলিস্তিনিকে জিপে বেঁধে ইসরায়েলি সেনাদের অভিযান
হরিয়ানায় কারখানায় বিস্ফোরণ , নিহত ৪
বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে জড়িত, পশ্চিমবঙ্গে যুবক আটক
সর্বশেষ খবর
কেমন ছিল পঁচাত্তর পরবর্তী আওয়ামী লীগ
কেমন ছিল পঁচাত্তর পরবর্তী আওয়ামী লীগ
আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা নিয়ে যা বলেছিলেন বঙ্গবন্ধু
আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা নিয়ে যা বলেছিলেন বঙ্গবন্ধু
গুলবাদিন-নাভিনের বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারালো আফগানিস্তান
গুলবাদিন-নাভিনের বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারালো আফগানিস্তান
আহত ফিলিস্তিনিকে জিপে বেঁধে ইসরায়েলি সেনাদের অভিযান
আহত ফিলিস্তিনিকে জিপে বেঁধে ইসরায়েলি সেনাদের অভিযান
সর্বাধিক পঠিত
দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
নায়িকার বিয়ে মাদ্রাসায়, দেনমোহর ৯ টাকা
নায়িকার বিয়ে মাদ্রাসায়, দেনমোহর ৯ টাকা
তিস্তা প্রকল্পে যুক্ত হওয়ার ঘোষণা ভারতের
তিস্তা প্রকল্পে যুক্ত হওয়ার ঘোষণা ভারতের
দীর্ঘায়ু পেতে চাইলে এই ৭ সুপার ফুড রাখুন পাতে
দীর্ঘায়ু পেতে চাইলে এই ৭ সুপার ফুড রাখুন পাতে
ইন্দো-প্যাসিফিক ওশেনস ইনিশিয়েটিভে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের
ইন্দো-প্যাসিফিক ওশেনস ইনিশিয়েটিভে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের