জাফর ইকবালকে সিএমএইচ-এ ভর্তি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০১:৫৮, মার্চ ০৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪২, মার্চ ০৪, ২০১৮

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালঅধ্যাপক মুহম্মদ  জাফর  ইকবাল শনিবার রাত ১১টা ৫৮ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি শঙ্কামুক্ত। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ রাশিদুল হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

আইএসপিআর  জানায়,পরীক্ষা-নিরীক্ষার  পর আগামীকাল রবিবার (৪ মার্চ) সকাল ১১টায় জাফর ইকবালের শারিরীক অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

এর আগে শনিবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, বিশিষ্ট লেখক ড. জাফর ইকবালকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হয়েছে।

ড. জাফর ইকবালকে ঢাকায় নিয়ে আসার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জাফর ইকবালকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়েছে। তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এনে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তুলে দেন।

ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাহবুবুল হকের বরাত দিয়ে সিলেট প্রতিনিধি জানান, শনিবার রাত সোয়া ১০টার দিকে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে  অ্যাম্বুলেন্সে করে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে অবস্থিত বিমানবাহিনীর নিয়ন্ত্রণাধীন পুরনো বিমানবন্দরে পাঠানো হয়। সেখান থেকে জাফর ইকবালকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠান চলাকালে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে পেছন থেকে মাথায় ছুরিকাঘাত করে ২৪-২৫ বছর বয়সী এক তরুণ। এরপর তাকে সিলেটের ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন সিলেটের ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. দেবপদ রায়।

এদিকে, ড. জাফর ইকবালের হামলাকারীকে আটক করে র্যা বের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।  হামলাকারী তরুণের নাম ফয়জুর রহমান ফয়জুল। তার বাবার নাম মাওলানা আতিকুর রহমান। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের একটি দল সিলেটে গেছে।  সিটিটিসি সূত্র জানিয়েছে, অতীতে বিভিন্ন সময় ড. জাফর ইকবালকে বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠীর দেওয়া হুমকির বিষয়টি মাথায় রেখে ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।

ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ছাড়া, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পক্ষ থেকেও নিন্দা জানানো হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ‘এ’-এর সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ-মিছিল করেছেন ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা। সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবাগেও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ।

আরও পড়ুন:

‘ড. জাফর ইকবাল শঙ্কামুক্ত’

জাফর ইকবালের চিকিৎসায় বোর্ড গঠন

শাবিতে ড. জাফর ইকবালের মাথায় ছুরিকাঘাত

জাফর ইকবালকে দেখতে শিক্ষামন্ত্রী হাসপাতালে

জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীকে র‌্যাবে হস্তান্তর

জাফর ইকবালের পেছনেই দাঁড়িয়েছিল হামলাকারী যুবক

হামলাকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে সিলেট যাচ্ছে সিটিটিসি

অস্থিতিশীলতার ইঙ্গিত বলছে আ. লীগ, বিএনপি’র দাবি চক্রান্ত

জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ

জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীদের গ্রেফতারে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

জাফর ইকবালকে হত্যার টার্গেটে রাখা হয়েছিল সবসময়: গণজাগরণ মঞ্চ

‘নিরাপত্তার মধ্যে তাৎক্ষণিক সুযোগ পেয়ে জাফর ইকবালের ওপর হামলা করা হয়’

হামলাকারীর বাড়িতে অভিযান শেষ: মামা আটক, বইপত্র-ল্যাপটপ-সিডি জব্দ

প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় জাফর ইকবালের ওপর হামলা

ফয়জুলের পরিবার দিরাই থেকে সিলেটে আসে ১৫ বছর আগে

‘জাফর ইকবাল ইসলামের শত্রু, তাই তাকে মেরেছি’

মুক্তমনা মানুষদের রাষ্ট্রীয় সুরক্ষার দাবি ঢাবির বর্তমান ও সাবেক ভিসির

‘হামলাকারী ফয়জুল মিশতো না কারও সঙ্গে’

 

/জেইউ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ