X
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
১০ আষাঢ় ১৪৩১

ছাত্রলীগ নেতাদের এডিসি হারুনের মারধর: আরও সময় চায় তদন্ত কমিটি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৫:০৯আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৬:৫৪

শাহবাগ থানায় নিয়ে ছাত্রলীগের দুই নেতাকে মারধরের ঘটনায় নির্ধারিত দুই দিনে তেমন কোনও তথ্য বের করতে পারেনি পুলিশের তদন্ত কমিটি। এজন্য আরও পাঁচ দিন সময় বাড়িয়ে দেওয়ার আবেদন করেছে তারা।

মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা ছিল। তবে তদন্ত কমিটির পক্ষ থেকে আরও পাঁচ কর্মদিবস সময় চেয়ে ডিএমপি কমিশনার বরাবর আবেদন করা হয়েছে।

বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (নিউমার্কেট জোন) শাহেন শাহ জানান, আমরা চেষ্টা করেছি দুই দিনের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে। তবে সেটা সম্ভব হয়নি। সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে বিশ্লেষণ, সাক্ষ্যগ্রহণ, জিজ্ঞাসাবাদসহ অনেক কাজ বাকি।

তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির সভাপতি করা হয়েছে ডিএমপি সদর দফতরের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপারেশনস) আবু ইউসুফকে। দুই সদস্য হলেন রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (নিউমার্কেট জোন) শাহেন শাহ এবং অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা-মতিঝিল বিভাগ) মো. রফিকুল ইসলাম।

গত শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাতে তুলে নিয়ে শাহবাগ থানা হেফাজতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠে পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে।

ভুক্তভোগী দুই জন হলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাবির শহীদুল্লাহ হলের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ মুনিম ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফজলুল হক হলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন নাঈম।

শনিবার রাতে একটি ঘটনার জেরে শাহবাগ থানায় তাদের নির্যাতনের পর মারধর করা হয়। পরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার জেরে রাতে শাহবাগ থানার সামনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভিড় করেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশ কর্মকর্তারা থানায় গিয়ে মধ্যরাতে ঘটনা মীমাংসা করেন।

ঢাবি ছাত্রলীগের একাধিক সূত্র জানায়, এডিসি হারুন শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাতে আরেক নারী পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে বারডেম হাসপাতালে আড্ডা দিচ্ছিলেন। ওই সময় নারী কর্মকর্তার স্বামী রাষ্ট্রপতির সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) আজিজুল হক মামুন ছাত্রলীগের দুই নেতাকে সঙ্গে নিয়ে সেখানে যান। তখন তাদের সঙ্গে এডিসি হারুনের বাগবিতণ্ডা হয়।

পরে এডিসি হারুন দুই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতাকে শাহবাগ থানায় তুলে নিয়ে যান। সেখানে তাদের ওপর চালানো হয় নির্যাতন। এরপর অবস্থা খারাপ হলে ওই দুজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে, গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এডিসি হারুন ও এডিসি সানজিদা আফরিন দাবি করেছেন, ঘটনার জন্য সানজিদার স্বামী রাষ্ট্রপতির এপিএস মামুন দায়ী। ছাত্রলীগ নেতাদের নিয়ে তিনিই প্রথম হারুনের ওপর হামলা চালান।

আরও পড়ুন- 

এডিসি হারুনকে বাঁচাতে তৎপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের একাংশ

এডিসি হারুনকে ছাত্রলীগ নেতাদের মারধরের বর্ণনা দিলেন এডিসি সানজিদা

অনুমতি ছাড়া বক্তব্য দিয়ে এডিসি সানজিদা ঠিক করেননি: ডিএমপি কমিশনার

এডিসি হারুনকে পাঠানো হচ্ছে রংপুর রেঞ্জে

‘তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারা দোষী বলা যাচ্ছে না’

এডিসি হারুনের ওপর আগে হামলা চালান রাষ্ট্রপতির এপিএস মামুন, জানালেন ডিবির হারুন

এডিসি হারুন ইস্যু: তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে ডিএমপি

এডিসি হারুন ইস্যুতে ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে দেখা করলেন ছাত্রলীগ নেতারা

প্রত্যাহার নয়, বদলি হলেন এডিসি হারুন

এডিসি হারুনকে প্রত্যাহার

/কেএইচ/এফএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
চিড়িয়াখানার দর্শনার্থীদের ‘অভ্যর্থনা’ হয় দুর্গন্ধে
খিলগাঁওয়ে ট্রেনে কাটা পড়া শিশু রাবিয়া মারা গেছে
সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা 
সর্বশেষ খবর
স্ত্রী-ছেলেসহ মতিউরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
স্ত্রী-ছেলেসহ মতিউরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে স্পেশাল ট্রেন চলাচলের সময় বাড়লো
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে স্পেশাল ট্রেন চলাচলের সময় বাড়লো
অস্ট্রেলিয়া-ভারতের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভাসলে কী হবে?
অস্ট্রেলিয়া-ভারতের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভাসলে কী হবে?
মায়ের শাড়িতে বিয়ে, সংবর্ধনা চিরাচরিত লালে
মায়ের শাড়িতে বিয়ে, সংবর্ধনা চিরাচরিত লালে
সর্বাধিক পঠিত
ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
‘কক্সবাজারে সেনানিবাস না থাকলে দখল করে নিতো আরাকান আর্মি’
‘কক্সবাজারে সেনানিবাস না থাকলে দখল করে নিতো আরাকান আর্মি’
হিজবুল্লাহ’য় যোগ দিতে ইচ্ছুক ইরান-সমর্থিত হাজারো যোদ্ধা
ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধহিজবুল্লাহ’য় যোগ দিতে ইচ্ছুক ইরান-সমর্থিত হাজারো যোদ্ধা
ওসিকে ধাক্কা দিয়ে চাকরি হারালেন সেই এএসআই
ওসিকে ধাক্কা দিয়ে চাকরি হারালেন সেই এএসআই
আঠাবিহীন কাঁঠাল চাষে চমক, তিন মাসেই ফল, দেবে বারো মাস
আঠাবিহীন কাঁঠাল চাষে চমক, তিন মাসেই ফল, দেবে বারো মাস