X
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২
১৩ আষাঢ় ১৪২৯

নারী অভিবাসীদের নিয়ে ৭৯ ভাগ খবরই নেতিবাচক

আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ২১:০৫

অভিবাসন ও অভিবাসীর সমস্যা নিয়ে খবর প্রকাশ বা প্রচারের ক্ষেত্রে শব্দ ব্যবহারে আরও সতর্ক হওয়ার পরামর্শ এসেছে একটি ওয়েবিনারে। অনলাইনে আয়োজিত সভায় উপস্থাপিত গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নারী অভিবাসীদের সমস্যা নিয়ে যেসব খবর প্রকাশ বা প্রচার হচ্ছে সেখানে এমন সব শব্দ ব্যবহার করা হয় যেগুলো ভবিষ্যত অভিবাসীদের মধ্যে ভীতি তৈরি করে। ফলে এ ধরনের খবর প্রচারে শব্দ প্রয়োগে সতর্ক হওয়া দরকার। শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) ইকোনোমিক রিপোর্টার্স ফোরাম, গবেষণা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি ইন্ট্রিগ্রেশন ফর ডেভেলপমেন্ট (র‌্যাপিড) ও দৃষ্টি রিসার্চ সেন্টার যৌথভাবে ‘নারী অভিবাসীদের গণমাধ্যমে উপস্থাপন: একটি জটিল মূল্যায়ন’ শীর্ষক ওয়েবিনারটি আয়োজন করে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন। অনুষ্ঠানে পারিবারিক ও সমাজ জীবনে প্রবাসী আয়ের ভূমিকা, নারী অভিবাসীদের সমস্যা এবং তা নিয়ে প্রকাশিত খবরের প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন বক্তারা।

ড. মুনিরুছ সালেহীন বলেন, সমস্যা অস্বীকার করা যাবে না। সমস্যাগুলোর প্রচারেও আপত্তি নেই। তবে সমস্যার পাশাপাশি আরও সত্য আছে, সাফল্যও আছে। সেগুলোও প্রচার করা দরকার। সরকার, এজেন্সি, যিনি যাচ্ছেন- প্রত্যেকের দায়িত্ব আছে। সমন্বিতভাবে এই দায়িত্ব পালন করার দরকার।

অনুষ্ঠানে গবেষণা প্রতিবেদন তুলে ধরেন অর্থনীতিবিদ ড. নাজনীন আহমেদ। গবেষণার বরাত দিয়ে তিনি বলেন, অভিবাসন নিয়ে সংবাদপত্র ও টেলিভিশনে নেতিবাচক খবরই বেশি। হিসাব করে দেখা গেছে ৬৪ ভাগই নেতিবাচক। এরমধ্যে নারী অভিবাসীদের নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের ৭৯ শতাংশ এবং পুরুষদের ৬৭ শতাংশ নেতিবাচক। নারী অভিবাসীদের সমস্যা বিষয়ক সংবাদগুলোতে নির্মম আচরণ, পঙ্গু, দাসত্ব, নির্যাতন, ভয়ংকর নির্যাতন, ভাগ্যহীন, গায়ে আগুন দেওয়া, গরম পানি দেওয়াসহ আরও অনেক নেতিবাচক শব্দ ব্যবহার করা হয়। এসব শব্দের ব্যাপক নেতিবাচক প্রভাব রয়েছে। তিনি শব্দগুলো পরিবর্তন করে অন্য কোনও শব্দ ব্যবহার করা যায় কিনা তা বিবেচনা করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান। গবেষণায় তুলে ধরা হয়েছে যে, গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ থেকে এক লাখের বেশি নারী প্রবাসে যাচ্ছেন কাজের জন্য। ৬০ ভাগই যান সৌদি আরবে। ২০১৫ সাল থেকে সৌদি আরব এক চুক্তির আওতায় বাংলাদেশ থেকে বিনা খরচে নারী অভিবাসী নিচ্ছে। কিন্তু সৌদি আরবেই নারী কর্মীদের অধিকার ক্ষুণ্ন হয় বেশি।

গবেষণাটি দুটি ইংরেজি ও দুটি বাংলা সংবাদপত্রে ২০১৫ সাল থেকে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রকাশিত ৪৯৬টি সংবাদ বিশ্লেষণ করে করা হয়েছে। তাতে দেখা গেছে ৬৪ ভাগ খবরই নেতিবাচক। তিনটি টেলিভিশনের খবরও বিশ্লেষণও করা হয়েছে। সেখানেও দেখা গেছে ৮২ ভাগ খবর নেতিবাচক।

নাজনীন আহমেদ বলেন, দেশে ‘ভালো মেয়ে’, ‘মন্দ মেয়ে’র সংস্কৃতি রয়েছে। ফলে কাউকে নিয়ে নেতিবাচক খবর প্রকাশ হলে তার পরবর্তী জীবন আরও কঠিন হয়ে পড়ে। তার নতুন করে হয়রানিতে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়। এছাড়া ভবিষ্যত অভিবাসীদের মধ্যে ভীতি বা শঙ্কা তৈরি। এতে দেশের সুযোগগুলো নষ্ট হচ্ছে কিনা তা ভেবে দেখা দরকার।

‘নারী অভিবাসীদের গণমাধ্যমে উপস্থাপন: একটি জটিল মূল্যায়ন’ গবেষণা প্রতিবেদনটি নাজনীন আহমেদ প্রস্তুত করেছেন ।

র‌্যাপিড চেয়ারম্যান ড. এম এ রাজ্জাক বলেন, নারী অভিবাসন নিয়ে মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি নীতি দরকার। আগামীতে প্রবাসী কর্মসংস্থানে নারীদের চাহিদা বাড়বে।

ইআরএফ সভাপতি শারমীন রিনভীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদুল ইসলাম। এছাড়া আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) কারিগরি উপদেষ্টা ইগোর বস, গবেষণা সংস্থা দৃষ্টি রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক থেরেসে ব্লঁশে, র‌্যাপিডের নির্বাহী পরিচালক ড. আবু ইউসুফ, বার্তা সংস্থা এএফপির ব্যুরো চিফ শফিকুল আলম, ফাইন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেসের রিপোর্টার আরাফাত আরা বক্তব্য রাখেন।

 

 

/জিএম/এফএ/
স্কুলে শিক্ষার্থীকে হত্যা, জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ
স্কুলে শিক্ষার্থীকে হত্যা, জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
‘জনশুমারিতে হিজড়াদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে কি?‘
ক্যাডেটদের উচিত সমৃদ্ধ দেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখা: সেনাপ্রধান
ক্যাডেটদের উচিত সমৃদ্ধ দেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখা: সেনাপ্রধান
চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশের বিরুদ্ধে রিকশাচালকদের বিক্ষোভ
চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশের বিরুদ্ধে রিকশাচালকদের বিক্ষোভ
‘বৈশ্বিক খাদ্য সংকটের জন্য এককভাবে দায়ী রাশিয়া’
‘বৈশ্বিক খাদ্য সংকটের জন্য এককভাবে দায়ী রাশিয়া’
শিরোপা উদযাপনে ওয়ালটনের জমকালো আয়োজন
শিরোপা উদযাপনে ওয়ালটনের জমকালো আয়োজন
যথাসময়ে অভিযোগ নিষ্পত্তির আহ্বান ইউজিসির
যথাসময়ে অভিযোগ নিষ্পত্তির আহ্বান ইউজিসির
সর্বশেষসর্বাধিক