X
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২
১৮ আষাঢ় ১৪২৯

কৃষ্ণ সাগরে রুশ নৌবহর ‘ধ্বংসের’ প্রস্তুতি নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?

আপডেট : ২০ মে ২০২২, ২২:৫৫

ইউক্রেনের এক কর্মকর্তা বলেছেন, কৃষ্ণ সাগরে রুশ নৌবহরকে লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র একটি পরিকল্পনা তৈরির কাজ করছে। এই নৌবহরের অবস্থানের কারণে মস্কো বিভিন্ন বন্দরকে অবরোধ করে রেখেছে। এতে করে বিশ্বের খাদ্য সরবরাহ হুমকিতে পড়েছে। শুক্রবার মার্কিন সাময়িকী নিউজউইক এখবর জানিয়েছে।

বিশ্বের বৃহত্তম খাদ্যশস্য সরবরাহকারী ইউক্রেন। তারা আশঙ্কা করছে, দেশটির সমুদ্র বন্দরগুলোতে রাশিয়ার অবরোধের কারণে খাদ্য সরবরাহ বিঘ্নিত হবে। যা বৈশ্বিক খাদ্য সংকট তৈরি করতে পারে।

শুক্রবার ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উপদেষ্টা অ্যান্টন গেরাশ্চেঙ্কো টুইটারে লিখেছেন, কৃষ্ণ সাগরে নৌবহর ধ্বংসের একটি পরিকল্পনা প্রস্তুত করছে যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি আরও লিখেছেন, যুদ্ধজাহাজের বিরুদ্ধে ইউক্রেনীয়দের কার্যকর কর্মকাণ্ডের ফলে যুক্তরাষ্ট্র বন্দরগুলোকে মুক্ত করতে পরিকল্পনা প্রস্তুত করতে প্রনোদিত করেছে।

ইউক্রেনীয় উপদেষ্টার এই বার্তা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনের সঙ্গেও সামঞ্জস্যপূর্ণ। ওই প্রতিবেদনে রয়টার্স জানিয়েছিল, হোয়াইট হাউজ ইউক্রেনীয় সেনাদের হাতে যুদ্ধজাহাজ-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার কথা ভাবছে। যা দিয়ে নৌ অবরোধ ভেঙে ফেলা যায়।

মার্কিন কর্মকর্তা ও কংগ্রেসনাল সূত্র জানায়, গেরাশ্চেঙ্কো যে শক্তিশালী যুদ্ধজাহাজ-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের কথা বলছেন সেগুলো হয়ত সরাসরি ইউক্রেনে পাঠানো বা ইউরোপীয় মিত্র দেশের মাধ্যমে হস্তান্তর করা হতে পারে।

আর্টিলারি, জ্যাভেলিন ও স্টিঞ্জার ক্ষেপণাস্ত্র ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের আরও শক্তিশালী অস্ত্র চেয়েছে ইউক্রেন। কৃষ্ণ সাগরে রুশ নৌবাহিনীর সাবমেরিনসহ অন্তত ২০টি নৌযান রয়েছে। এগুলো ইউক্রেনের বন্দর থেকে দূরে অবস্থান নিয়ে আছে। এপ্রিল মাসে রাশিয়ার কৃষ্ণ সাগরের নৌবহরের ফ্ল্যাগশিপ যুদ্ধজাহাজ মস্কোভা ইউক্রেনীয় ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ডুবে যায়।

যুদ্ধ মোকাবিলায় এসব অস্ত্র ইউক্রেনকে কৌশলগত সুবিধা দেবে। পাশাপাশি আরও বেশি অস্ত্র পাওয়ার পথ সুগম হবে। কারণ বন্দরগুলো মুক্ত হলে এগুলো দিয়ে অস্ত্র, খাদ্য শস্য ও অন্যান্য কৃষিপণ্য আনা-নেওয়ার সুযোগ থাকবে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনে পাঠানো অস্ত্রের চালান রাশিয়ার সেনাবাহিনীর দখল করে ফেলা নিয়ে উদ্বিগ্ন মার্কিন কর্মকর্তারা। এতে উত্তেজনা আরও বাড়তে পারে বলে শঙ্কা রয়েছে।

এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান, রাশিয়ার পাল্টা পদক্ষেপের ভয়ে কেউই প্রথম বা একমাত্র দেশ হতে চায় নে যে ইউক্রেনকে হারপুন অস্ত্র সরবরাহ করবে।

হারপুন অস্ত্র পাঠানোর লজিস্টিকগত বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতাও রয়েছে। এসব অস্ত্র বোয়িং তৈরি করেছে এবং এগুলো মূলত সমুদ্রভিত্তিক। উপকূল থেকে এগুলো নিক্ষেপ করার মতো প্ল্যাটফর্ম সহজলভ্য না।

রয়টার্স উল্লেখ করেছে, যুক্তরাষ্ট্র একটি মার্কিন যুদ্ধজাহাজে হারপুন লঞ্চার বসানোর সম্ভাব্যতা খতিয়ে দেখছে।

কৃষ্ণ সাগরের বন্দর অবরোদ্ধ হয়ে পড়ায় খাদ্য সরবরাহ নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ে উদ্বেগ বিরাজ করছে। জাতিসংঘের খাদ্য প্রধান ডেভিড বিসলে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, রুশ অবরোধের কারণে বিশ্বজুড়ে লাখো মানুষের মৃত্যু হতে পারে। তিনি বলেন, আপনার যদি হৃদয় বলে কিছু থাকে তাহলে বন্দরগুলো উন্মুক্ত করে দিন।

নিউজউইকের পক্ষ থেকে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে এই বিষয়ে মন্তব্য চাওয়া হলেও কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

/এএ/
টাইমলাইন: ইউক্রেন সংকট
০২ জুলাই ২০২২, ১৩:৩০
০১ জুলাই ২০২২, ১৫:২৮
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
প্লাস্টিকের মিনিপ্যাকেই ২ লাখ টন বর্জ্য
প্লাস্টিকের মিনিপ্যাকেই ২ লাখ টন বর্জ্য
বৃষ্টির চোখ রাঙানিতে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ
বৃষ্টির চোখ রাঙানিতে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ
৪৫ মিলিয়ন ডলার সিন্ডিকেটেড ঋণ পেলো সিটি ব্যাংক
৪৫ মিলিয়ন ডলার সিন্ডিকেটেড ঋণ পেলো সিটি ব্যাংক
শিক্ষক উৎপল হত্যা: যে কারণে বহিষ্কার স্কুলছাত্রী
শিক্ষক উৎপল হত্যা: যে কারণে বহিষ্কার স্কুলছাত্রী
এ বিভাগের সর্বশেষ
স্নেক আইল্যান্ডে ‘ফসফরাস বোমা’ ফেলেছে রাশিয়া: ইউক্রেন
স্নেক আইল্যান্ডে ‘ফসফরাস বোমা’ ফেলেছে রাশিয়া: ইউক্রেন
রাশিয়া ও বেলারুশকে একত্রীকরণের দিকে ঠেলে দিচ্ছে পশ্চিমারা
রাশিয়া ও বেলারুশকে একত্রীকরণের দিকে ঠেলে দিচ্ছে পশ্চিমারা
শক্তিশালী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠলো ইউক্রেনের মাইকোলাইভ শহর
শক্তিশালী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠলো ইউক্রেনের মাইকোলাইভ শহর
তুরস্কের শরণাপন্ন ইউক্রেন
তুরস্কের শরণাপন্ন ইউক্রেন
ইউক্রেনকে এক বিলিয়ন ইউরো দেবে নরওয়ে
ইউক্রেনকে এক বিলিয়ন ইউরো দেবে নরওয়ে