X
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
২ বৈশাখ ১৪৩১

কেমন ছিল মারিউপোলে রুশ আক্রমণের ভয়াবহতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:০৩আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:০৩

মাইস্তিস্লাভ চেরনভ তার তথ্যচিত্র ‘২০ ডেজ ইন মারিউপোল’-এ বলেছেন, ‘এই শহরে ভয়াবহ কিছু ঘটতে চলেছে বলে অনুভূতি আমি ভুলতে পারছি না।’

ইউক্রেনীয় শহরটিতে সত্যিকার অর্থে ভয়াবহ কিছু ঘটেছিল। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি’র চেরনভ তা প্রত্যক্ষ করেছেন। সিবিএস নিউজকে তিনি বলেছেন, আমি যা ধারণা করিনি তা হলো বোমাবর্ষণের তীব্রতা এত বেশি হবে।

রাশিয়ার আক্রমণের প্রথম ২০ দিন চেরনভ ও তার টিম মারিউপোলে অবস্থান করছিলেন। সেখান থেকে যেসব ছবি তারা পাঠিয়েছিলেন তা বিশ্বকে হতবাক করেছিল। এখন তা অস্কার মনোনীত তথ্যচিত্রের অংশ হয়ে গেছে। চেরনভ বলেন, পুরো শহরে দুর্ভোগ ছিল, পুরো শহরে অনাহার ছিল, পুরো শহরে পানি ছিল না। অনেক মানুষ মারা যাচ্ছিলেন।

তথ্যচিত্রটিতে চার বছরের এক মেয়েকে বাঁচানোর কঠোর প্রচেষ্টা তুলে ধরা হয়েছে। পুরো প্রক্রিয়া ক্যামেরায় রেকর্ড করার তাগাদা দেন এক চিকিৎসক। তাকে বলতে দেখা যায়, এই শিশুর চোখগুলো বেজন্মা পুতিনকে দেখান।

ওই সময় আরেক নবজাতককে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু তাকে বাঁচানোর উপায় ছিল না। অভিঘাত ও শোক ছিল অনুধাবনের বাইরে।

বর্ণনাকারী হিসেবে চেরনভ উল্লেখ করেছেন, আমার মস্তিষ্ক এ সব কিছু ভুলতে চাইবে, কিন্তু আমার ক্যামেরা তা হতে দেবে না।

স্কুল ও বেসামরিক ভবনে বোমা আঘাত হানতে শুরু করে। শেষ পর্যন্ত প্রসূতি হাসপাতালও বাদ যায়নি। এক দৃশ্যে দেখা গেছে, নিজের প্রসব না হওয়া সন্তানকে নিয়ে আইরিনা নামের এক নারীকে। তাদের কেউ বাঁচতে পারেননি। রাশিয়া এটিকে ‘সাজানো’ এবং ওই নারীকে ‘অভিনেত্রী’ হিসেবে দাবি করেছে। কিন্তু বিদ্যুতের আসা-যাওয়া এবং যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপর্যয়ের কারণে বাইরের বিশ্বের কাছে চেরনভ শুধু খণ্ড খণ্ড ভিডিও পাঠাতে পারছিলেন।

চেরনভের ক্যামেরায় এক ব্যক্তি বলেন, রুশ সেনারা যুদ্ধাপরাধ করেছে। আমাদের পরিবার, আমাদের নারী, আমাদের শিশুদের সহযোগিতা প্রয়োজন। আন্তর্জাতিক সমাজের কাছ থেকে আমাদের জনগণের সহযোগিতা প্রয়োজন। দয়া করে, মারিউপোলকে সহযোগিতা করুন।

রাশিয়া মারিউপোলে কী করেছে, তা বিশ্বের সামনে তুলে ধরার জন্য চেরনভ কাছে ছিল শহরটির ৩০ ঘণ্টার ভিডিও ফুটেজ। ইউক্রেনীয় সেনারা তাকে উদ্ধার করতে যায়। ২০তম দিনে তিনি শহর ছাড়েন। ৮৬তম দিনে মারিউপোলের পতন ঘটে। চেরনভ বলেন, বিশ্বাস করুন আর না-ই করুন, পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়। মনে হচ্ছিল এর চেয়ে আর খারাপ হতে পারে না। কিন্তু তা হয়েছে। 

এটি ছিল এমন একটি যুদ্ধের শুরু, যা এখন দ্বিতীয় বছর শেষে তৃতীয় বছরে গড়াচ্ছে। 

হাজার হাজার ইউক্রেনীয় সেনা তাদের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ হারিয়েছেন। তাদের মধ্যে অল্প কয়েকজনকে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হয়েছে অত্যাধুনিক চিকিৎসার জন্য।

যুদ্ধের আগে ওলেক্সি ডারনভ ছিলেন একজন মার্শাল আর্ট প্রেমী। পেত্রো কুলিক কাজ করতেন নির্মাণ খাতে। লেভজেন কালিউজনি ছিলেন করাতি এবং সেরহি ভলিক প্রাইভেটকার মেরামত করতেন।

তাদের বর্ণনায় ইউক্রেনীয় তুলনায় রুশ সেনাদের অস্ত্র ও সেনা বেশি থাকার কথা উঠে এসেছে। 

রাশিয়ার গোলাবর্ষণের তীব্রতা কেমন ছিল জানতে চাইলে কালিউজনি বলেন, আমরা একটি গোলাবর্ষণ করলে তাদের ছিল ১০টি। 

ডারনভ জানেন না ইউক্রেনীয়দের তুলনায় রুশ সেনাদের সংখ্যা কত বেশি ছিল। তবে তিনি বলেছেন, অনেক বেশি।

কুলিক যোগ করেন, তারা আসছে তো আসছেই।

লড়াইয়ের তীব্রতা এত বেশি ছিল যে রণক্ষেত্রের সম্মুখভাগ থেকে দ্রুত আহত সেনাদের সরিয়ে আনা যায়নি। কালিউজনিকে হাসপাতালে নিতে ২৪ ঘণ্টা লেগেছে, কুলিকের লেগেছে প্রায় ২০ ঘণ্টা।

গত বছর রাশিয়ার দখলে থাকা ভূখণ্ড পুনরুদ্ধারে ইউক্রেনের বহুল প্রতীক্ষিত পাল্টা আক্রমণের সময় যুদ্ধে এই সেনারা আহত হয়েছিলেন। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা রেখা ভেদ করতে ইউক্রেনীয় সেনারা যুক্তরাষ্ট্রের মাইন অপসারণকারী সরঞ্জাম ও সাঁজোয়া যান ব্যবহার করেছিল। কিন্তু পুঁতে রাখা মাইন ও পরিখা খননের মাধ্যমে যে প্রতিরক্ষা তৈরি করেছিল রাশিয়া তা ভেদ করা যায়নি।

ইউক্রেনকে ৩০ লাখের বেশি গোলা পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু এই সহযোগিতা কমে আসছে। ইউক্রেনে আরও অস্ত্র পাঠাতে যুক্তরাষ্ট্রের যে তহবিল প্রয়োজন তা আটকে ওয়াশিংটনের রাজনীতির মারপ্যাঁচে। 

যারা ইউক্রেনের সহযোগিতা আটকে দিচ্ছেন তাদের প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বার্তা হলো, কংগ্রেসের রিপাবলিকানদের মধ্যে যারা ইউক্রেনকে সহযোগিতার বিরোধিতা করছেন এবং ভাবছেন তাদের জবাবদিহির মুখে পড়তে হবে না, ইতিহাস প্রত্যক্ষ করছে।

এক ভাষণে সিনেটর আঙ্গাস কিং বলেছেন, যখন এই দিনের ইতিহাস লেখা হবে, এবং নিশ্চিতভাবে হবে, আপনারা সত্যিকার অর্থে চান ভ্লাদিমির পুতিনের পক্ষালম্বনকারী হিসেবে তালিকাভুক্ত হতে? পুতিনের পক্ষে যারা আছেন তারা বলেন হ্যাঁ।

ইউক্রেন সফর করে ইউক্রেনীয় নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন কিং। তিনি বলেছেন, আগামী যা ঘটবে তা হবে টার্নিং পয়েন্ট। তার কথায়, আমরা যদি পিছু হাঁটি, তাহলে তা হবে কয়েক প্রজন্মের মধ্যে এই দেশের সবচেয়ে বড় ভূরাজনৈতিক ভুল এবং তা আমাদের আগামী ৫০ বছর পীড়া দেবে।

মার্কিন সিনেটের আর্মড সার্ভিসেস ও ইন্টেলিজেন্স কমিটির সদস্য কিং তুলে ধরেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা না পেলে ইউক্রেনের কী ঘটতে পারে। তিনি বলেছেন, দুটির মধ্যে একটি ঘটতে পারে: রাশিয়া দেশটি দখল করবে এবং ইউক্রেনীয় জনগণের স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র হারিয়ে যাবে। অপরটি হলো, পুরো সংঘাত গেরিলা যুদ্ধে পরিণত হতে পারে, যেখানে গাছ ও ভবনের আড়াল থেকে ইউক্রেনীয়রা লড়াই করবে।

কিং বলেছেন, অনিবার্য পরিণতি হলো, আজ আমরা যেটিকে রণক্ষেত্রের সম্মুখভাগ বলছি তা ভেঙে পড়বে এবং রুশদের অগ্রগতি ঘটবে। আমি মনে করি এমনটির যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে।

২০ ডেজ ইন মারিউপোল-এ চেরনভ টিকে থাকার লড়াইয়ের এক অবিস্মরণীয় দৃশ্য ধারণ করেছেন। এতে দেখা গেছে, এক আহত মা সন্তান জন্ম দিচ্ছেন। তিনি বলেছেন, তারা শিশুটিকে বের করে আসেন এবং শিশুটি ছিল নীরব। সেখানে এমন উত্তেজনা ছিল তা আগে আমি কখনও অনুভব করিনি। মনে হচ্ছিল কেউ আরেকটি শিশুর মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না। এরপর শিশুটি চিৎকার করে ওঠে এবং সবার চোখে পানি চলে আসে। 

ভয়াবহ ২০ দিনের মধ্যে এই মুহূর্তকে তিনি নির্ধারক হিসেবে উল্লেখ করেছেন। চেরনভ বলেছেন, এক চিকিৎসক আমাকে বলেছেন যে, রুমটি শুধু মানুষ মারা যাচ্ছিলেন, এই প্রথম রুমটিতে কোনও মানুষের জন্ম হলো।

যুদ্ধের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির সঙ্গে ওই শিশুটির দ্বিতীয় জন্মদিন আসন্ন। মারিউপোলের পর অনেক শহরের পতন ঘটেছে এবং আরও বেশ কয়েকটি এখনও হামলার মুখে রয়েছে।

চেরনভ বলেন, এই সবগুলো শহর, তাদের ঘটনার প্রতিনিধিত্ব করছে মারিউপোল। এটি সবগুলো শহরের প্রতীক। এটি অতীত নয়, বর্তমান।

সূত্র: সিবিসি নিউজ

/এএ/
টাইমলাইন: ইউক্রেন সংকট
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:০৩
কেমন ছিল মারিউপোলে রুশ আক্রমণের ভয়াবহতা
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৩০
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:০২
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৯:০৪
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:০১
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:০৪
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২৩:০১
সম্পর্কিত
ইসরায়েলে হামলার আগে সতর্ক করার দাবি ইরানের
ইরান-ইয়েমেনের কয়েক ডজন ড্রোন ধ্বংস করেছে মার্কিন বাহিনী
ইরানের হামলার পর কমেছে তেলের দাম
সর্বশেষ খবর
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
ব্যবসায়ীকে গুলি, আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন
ব্যবসায়ীকে গুলি, আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন
১২ মামলায় জামিন পেলেন বিএনপি নেতা ইশরাক
১২ মামলায় জামিন পেলেন বিএনপি নেতা ইশরাক
১৫ রোজার পরেই দ্রব্যমূল্য কমে গিয়েছিল: নানক
১৫ রোজার পরেই দ্রব্যমূল্য কমে গিয়েছিল: নানক
সর্বাধিক পঠিত
‘যাওয়ার আগে দস্যুদের প্রধান জাহাজের ক্যাপ্টেনের হাতে একটি চিঠি দেয়’
‘যাওয়ার আগে দস্যুদের প্রধান জাহাজের ক্যাপ্টেনের হাতে একটি চিঠি দেয়’
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন