X
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
১৪ আশ্বিন ১৪২৯

‘হার মানবে না আফগান মেয়েরা’

বিদেশ ডেস্ক
০৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০আপডেট : ০৫ অক্টোবর ২০২১, ২২:০১

ক্লাসরুমে ফিরতে উদ্বেগ নিয়ে অপেক্ষায় রয়েছে আফগানিস্তানের লাখ লাখ মেয়েশিশু। মাধ্যমিক স্কুলগুলো বন্ধ থাকায় তালেবান শাসনে নারী শিক্ষার ভবিষ্যৎ নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। আফগানিস্তানের নতুন শাসকেরা গত মাসে সাত থেকে ১২ বছর বয়সী ছেলে শিশুদের স্কুলে ফেরার অনুমতি দেয়। তবে তারা বলছে, একটু বড় মেয়েদের স্কুলে ফেরার আগে ‘নিরাপদ শিক্ষার পরিবেশ’ তৈরি প্রয়োজন।

গত ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর তালেবান মুখপাত্র এবং তথ্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপমন্ত্রী জবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, মেয়ে শিশুদের ক্লাসরুমে ফেরানোর পদ্ধতি ঠিক করার কাজ চলছে। তবে তাদের ক্ষমতায় আসার দেড় মাসে নারীদের বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্ধ করা হয়েছে আর নারী বিক্ষোভকারীদের নিপীড়নের ঘটনাও ঘটেছে।

তালেবানের অধীনে স্কুল খোলায় বিলম্বের পাশাপাশি নতুন শাসকদের কর্মকাণ্ডে শঙ্কিত হয়ে পড়ছেন অনেকেই। শিক্ষা প্রবক্তা তুরপেকাই মোমেন্দ বলেন, এসব কারণে কম বয়সী মেয়েদের মনে প্রশ্ন উঠছে, আমাদের নিয়ে তালেবানের সমস্যা কী? আমাদের অধিকার কেন কেড়ে নেওয়া হচ্ছে?

আফগানিস্তানে স্কুল প্রশাসক হিসেবে ১০ বছর পার করেছেন মোমেন্দ। তার মতো অনেকেই আফগানিস্তানের ভেতরে-বাইরে থেকে দেশটিতে নারীদের শিক্ষা ও কাজে ফেরানোর চেষ্টা করছেন। এদের মধ্যে অনেক নারীই মনে করেন, এই সংগ্রাম হলো তালেবান শাসনে অজনপ্রিয় কিন্তু প্রয়োজনীয় এক বাস্তবতা।

আরেক শিক্ষা প্রবক্তা জামিলা আফগানি মনে করেন, আফগানিস্তানের মানুষের তালেবানের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করা ছাড়া অন্য উপায় খুবই সীমিত। বিশেষ করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তালেবানকে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি তাদের আনিনি। আপনারাও তাদের আনেননি, কিন্তু তারা চলে এসেছে, সুতরাং আমাদের চাপ প্রয়োগ করে যেতে হবে।’

জামিলা আফগানি বা তুরপেকাই মোমেন্দের মতো অনেকেই তালেবানের কাছ থেকে উত্তর পাওয়ার চেষ্টা করেছেন। তাদের সহকর্মীরা যখন তালেবান পরিচালিত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন তখনই তাদের বলা হয়েছে, মেয়ে শিশুদের শিক্ষায় ফেরাতে কঠোর চেষ্টা করে যাচ্ছে গ্রুপটি।

তুরপেকাই মোমেন্দ মনে করেন, তালেবান তাদের প্রতিশ্রুতির বিষয়ে সতর্ক। তিনি বলেন, ‘তারা কখনোই বলেনি না, তারা বলছে আমরা এটা নিয়ে কাজ করছি, কিন্তু আমরা আসলেই জানি না তারা ঠিক কী নিয়ে কাজ করছেন।’

সূত্র: আল জাজিরা

/জেজে/এমওএফ/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:১৫
২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৯
০৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০
‘হার মানবে না আফগান মেয়েরা’
সম্পর্কিত
ইউক্রেনে যুদ্ধবিরোধী অবস্থানের পরও স্বাভাবিক রুশ-ভারত সম্পর্ক
ইউক্রেনে যুদ্ধবিরোধী অবস্থানের পরও স্বাভাবিক রুশ-ভারত সম্পর্ক
ইরান কাঁপানো আন্দোলনের নেতৃত্বে নারীরা
ইরান কাঁপানো আন্দোলনের নেতৃত্বে নারীরা
ইরাকে ভিন্নমতালম্বীদের ওপর ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
ইরাকে ভিন্নমতালম্বীদের ওপর ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া: সিউল
ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া: সিউল
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
পুরোনো মেশিনকে নতুন দেখিয়ে কিনেছে তাঁত বোর্ড!
তাঁত বোর্ডে দুর্নীতিপুরোনো মেশিনকে নতুন দেখিয়ে কিনেছে তাঁত বোর্ড!
শেখ হাসিনার জন্মদিন, জাতির উৎসবের দিন : ডেপুটি স্পিকার
শেখ হাসিনার জন্মদিন, জাতির উৎসবের দিন : ডেপুটি স্পিকার
অনার্স ভর্তির শেষ রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকা প্রকাশ ২ অক্টোবর
অনার্স ভর্তির শেষ রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকা প্রকাশ ২ অক্টোবর
রমেকে ১৬ কর্মচারীর বদলিতেও থেমে নেই ‘সিন্ডিকেট চক্র’
রমেকে ১৬ কর্মচারীর বদলিতেও থেমে নেই ‘সিন্ডিকেট চক্র’
এ বিভাগের সর্বশেষ
ইউক্রেনে যুদ্ধবিরোধী অবস্থানের পরও স্বাভাবিক রুশ-ভারত সম্পর্ক
ইউক্রেনে যুদ্ধবিরোধী অবস্থানের পরও স্বাভাবিক রুশ-ভারত সম্পর্ক
ইরান কাঁপানো আন্দোলনের নেতৃত্বে নারীরা
ইরান কাঁপানো আন্দোলনের নেতৃত্বে নারীরা
ইরাকে ভিন্নমতালম্বীদের ওপর ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
ইরাকে ভিন্নমতালম্বীদের ওপর ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া: সিউল
ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া: সিউল
‘ওরা বলেছে, চুপ না থাকলে আমাদের ধর্ষণ করবে’
‘ওরা বলেছে, চুপ না থাকলে আমাদের ধর্ষণ করবে’