X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

মাদক ছাড়তে বাধ্য করছে তালেবান

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৯

মোড়ানো মাথা, ঝুলে পড়া ত্বক আর ভয়াবহ দৃষ্টি নিয়ে তালেবান পরিচালিত নিরাময় কেন্দ্রে মাদকাসক্তরা ৪৫ দিনের নিরাময় কাল পার করছে। কেউ কেউ হয়তো মাদক ছেড়ে দিতে সক্ষম হচ্ছেন, আবার কেউ ফের মাদকাসক্তিকে জড়িয়ে পড়ছেন।

গত ১৫ আগস্ট তালেবান ঢুকে পড়ার আগে কাবুলের পুলিশ মাঝে মাঝে মাদকাসক্তদের গ্রেফতার করে নিরাময় কেন্দ্রে পাঠাতো। কিন্তু তালেবান নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর মাদকাসক্তদের জড়ো হওয়ার জায়গাগুলোতে ঘন ঘন অভিযান চালানো হচ্ছে।

এক হাজার শয্যার ইবনে সিনা নিরাময় কেন্দ্রে একজন মাদকাসক্ততে ৪৫ দিন রাখা হয়। বড় ডরমেটরির কট কিংবা উঠোনে নিচু হয়ে থেকে সময় কাটে তাদের। আফিম ও হেরোইনে আসক্তদের সহায়তায় মেলে সামান্য ওষুধ। তবে নিরাময়ের ব্যথা নিরসনে কিছুই করা হয় না তাদের।

মাদকাসক্তদের নিরাময় কেন্দ্রে নেওয়ার পর প্রথমেই তাদের তল্লাশি করা হয়। এরপর পাঠিয়ে দেওয়া হয় গোসল করতে। শ্যাম্পুর প্যাকেট দিলেও কোনও তোয়ালে পায় না তারা।

সেখান থেকে বের হলে নাপিতের সামনে বসিয়ে দেওয়া হয় তাদের। উকুন ঠেকাতে চুল ফেলে দেওয়া হয়। এরপরে কাউকে হয়তো পাঁচ বেডের কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয় আর অন্যদের প্রায় ৩০ জন থাকার মতো ডরমেটরিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

১৯৯০-এর দশকে তালেবান শাসনের সময় আফগানিস্তানে পপি চাষ নিষিদ্ধ করা হয়। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সময় তালেবান নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে হেরোইন রফতানি বেড়ে যায়। এ থেকে শত শত কোটি ডলার আয় করে গোষ্ঠীটি।

পপি চাষ সহজ এবং সস্তা হওয়ায় বিশ্বের হেরোইন উৎপাদনের ৯০ শতাংশই আসে আফগানিস্তান থেকে। এছাড়াও দেশটিতে বেড়েছে ক্রিস্টাল মেথের উৎপাদনও।

মাদকবিরোধী বিশেষজ্ঞদের তথ্য অনুযায়ী, আফগানিস্তানের তিন কোটি ৪০ লাখ জনগোষ্ঠীর ১১ শতাংশ মাদক ব্যবহার করে। আর এর চার থেকে ছয় শতাংশ মাদকাসক্ত।

এবার ক্ষমতায় ফিরে তালেবান মাদক উৎপাদন বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ইবসে সিনা নিরাময় কেন্দ্রের প্রধান ডা. আহমেদ জোহর সুলতানি বলেন, ‘এটাই ইসলামিক আমিরাতের নীতি।’

বর্তমানে কেন্দ্রটির সব কর্মী বেতন ছাড়াই কাজ করছেন। বিপর্যয়ের প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকা আফগান অর্থনীতি চার মাস ধরে বেতন পরিশোধ করতে পারছে না।

ডা. আহমেদ জোহর সুলতানি জানান, তালেবান ক্ষমতা দখলের পর তিনি ভেবেছিলেন হয়তো তার কেন্দ্রটি বন্ধ করে দেওয়া হবে। তিনি বলেন, আমাদের প্রতি তাদের মনোভাব স্পষ্ট ছিল না। তবে দেশটির নতুন শাসকেরা শিগগিরই তাদের জানিয়ে দেয় কার্যক্রম চলতে পারবে।

নতুন শাসকদের সঙ্গে মানিয়ে নিতে ওই চিকিৎসক কেন্দ্রের দেয়ালে থাকা সব ছবি নামিয়ে ফেলেন। আর পশ্চিমা পোশাক স্যুট-টাই বদলে ঐতিহ্যবাহী সালোয়ার-কামিজ পরা শুরু করেন।

/জেজে/এমওএফ/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:১৫
২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৯
মাদক ছাড়তে বাধ্য করছে তালেবান
০৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ন্যাটোয় যোগদানের পরিকল্পনা নেই: অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর
ন্যাটোয় যোগদানের পরিকল্পনা নেই: অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর
পদ্মা সেতু ঘিরে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলতে উদ্যোক্তাদের দেওয়া হলো প্রশিক্ষণ
পদ্মা সেতু ঘিরে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলতে উদ্যোক্তাদের দেওয়া হলো প্রশিক্ষণ
সেলুন থেকে ইয়াবা উদ্ধার, শিক্ষক ছাড়া পেলেও নরসুন্দর কারাগারে
সেলুন থেকে ইয়াবা উদ্ধার, শিক্ষক ছাড়া পেলেও নরসুন্দর কারাগারে
বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের নাম ভাঙিয়ে অর্থ আত্মসাৎ, গ্রেফতার ২
বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের নাম ভাঙিয়ে অর্থ আত্মসাৎ, গ্রেফতার ২
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
পাম তেল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা, ইন্দোনেশিয়ায় কৃষকদের বিক্ষোভ
পাম তেল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা, ইন্দোনেশিয়ায় কৃষকদের বিক্ষোভ
উ. কোরীয়দের চাকরি দেওয়া নিয়ে হুঁশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের
উ. কোরীয়দের চাকরি দেওয়া নিয়ে হুঁশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের
ইমরান খানের ফোন চুরি হয়েছে: পিটিআই নেতা
ইমরান খানের ফোন চুরি হয়েছে: পিটিআই নেতা
প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আটকে দিলো লঙ্কান পার্লামেন্ট
প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আটকে দিলো লঙ্কান পার্লামেন্ট