X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের পর কাবুলে কাতারের দ্বিতীয় যাত্রীবাহী বিমান 

আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:২৫

আফগানের রাজধানী কাবুল বিমানবন্দরে কাতার এয়ারওয়েজের দ্বিতীয় যাত্রীবাহী বিমান অবতরণ করেছে। শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) রানওয়েতে নামার পর বিমান থেকে ত্রাণ নামাতে দেখা গেছে সংশ্লিষ্টদের। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

খবরে বলা হয়, মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনী আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়বারের মতো কাতার এয়ারওয়েজের একটি বিমান কাবুলে অবতরণ করে। তবে এই বিমানটিতে করে কাবুলে আটকে থাকা বিদেশি এবং আফগান নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়া হবে কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এর আগে (৯ সেপ্টেম্বর) বৃহস্পতিবার প্রথমবার কাবুল থেকে শতাধিক বিদেশি যাত্রী নিয়ে কাতার এয়ারওয়েজের একটি যাত্রীবাহী ফ্লাইট উড্ডয়ন করে। এয়ারপোর্টটিতে শিগগিরই নিয়মিত ফ্লাইট চালুর ঘোষণা দিয়েছে আফগানিস্তানের শাসক গোষ্ঠী তালেবান ও কাতারের কর্মকর্তারা।

সম্প্রতি অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের ঘোষণা দিয়েছে তালেবান গোষ্ঠী। দলটি জানিয়েছে, আগামী ১১ সেপ্টেম্বর শপথ নিতে যাচ্ছে নতুন সরকার।

/এলকে/এমওএফ/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮
১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:২৬
মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের পর কাবুলে কাতারের দ্বিতীয় যাত্রীবাহী বিমান 

সম্পর্কিত

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৯

তিন দিনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনের আগে বিরোধীদের ওপর ব্যাপক দমন পীড়ন চালানোর অভিযোগ রয়েছে। নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হয়নি ক্রেমলিনের সবচেয়ে কঠোর সমালোচক আলেক্সাই নাভালনিকেও।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। ১১টি টাইম জোনে বিস্তৃত অঞ্চলে শুক্রবার পার্লামেন্ট ও স্থানীয় নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। মস্কোর বাসিন্দারা যখন ঘুমাতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তখন পূর্বাঞ্চলীয় চুকুতখা এবং কামচাটকা এলাকার বাসিন্দারা ভোট দিতে কেন্দ্রে দৌড়াচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের প্রধান ইলা পামফিলোভা এক সরাসরি সম্প্রচারে বলেন, ‘চলুন ভোট দেই।’ রবিবার পর্যন্ত ভোট দিতে পারবেন ভোটাররা।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অনুগত দল ইউনাইটেড রাশিয়ার পার্লামেন্টের প্রভাব কমার কোনও ইঙ্গিত এই নির্বাচনে নেই। ১৪টি দল এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে পুতিন ও ইমরান খানের ফোনালাপ

এক মাসের মধ্যে পুতিন-ইমরান দ্বিতীয় ফোনালাপ

পুতিনের সম্ভাব্য উত্তরসূরি রুশ প্রতিরক্ষা প্রধান?

রাশিয়ায় কে হচ্ছেন পুতিনের উত্তরসূরি?

ঘনিষ্ঠদের করোনা, সেলফ-আইসোলেশনে পুতিন

সেলফ-আইসোলেশনে পুতিন

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

৩ দেশের চুক্তি চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা: চীন

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৩

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষরের কঠোর সমালোচনা করেছে চীন। বেইজিং এই চুক্তিকে চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা এবং সংকীর্ণমনস্কতার পরিচয় বলে অভিহিত করেছে।

ওই চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন সাবমেরিন তৈরির প্রযুক্তি দেবে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। মূলত বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সমুদ্রে বেইজিংয়ের প্রভাব খর্ব করতেই এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেছেন, ওই জোটটি আঞ্চলিক শান্তির মারাত্মক ক্ষতি সাধন করবে এবং অস্ত্র প্রতিযোগিতা জোরালো করে তুলবে। তিনি এই চুক্তিকে অচল স্নায়ু যুদ্ধের মানসিকতা বলে অভিহিত করে বলেন তিনটি দেশই নিজেদের স্বার্থের ক্ষতি করলো।

চুক্তিটির সমালোচনা করে একই ধরনের সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্র। গ্লোবাল টাইমস বলেছেন অস্ট্রেলিয়া এখন চীনের শত্রুদের সঙ্গে মিলিত হয়েছে।

গত ৬০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো নিজেদের সাবমেরিন প্রযুক্তি অন্যদের দিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে কেবল যুক্তরাজ্যকেই এই প্রযুক্তি দেয় তারা। এই প্রযুক্তি পাওয়ার মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া পারমাণবিক শক্তি চালিত সাবমেরিন তৈরি করতে পারবে যা প্রচলিত সাবমেরিনের চেয়ে বেশি দ্রুত গতিতে চলতে সক্ষম এবং শনাক্ত করা কঠিন। নতুন সাবমেরিন কয়েক মাস পর্যন্ত পানিতে ডুবে থাকতে পারবে আর বেশি দূরত্বে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে পারবে। তবে অস্ট্রেলিয়ার দাবি সাবমেরিনে অস্ত্র মোতায়েনের কোনও ইচ্ছা তাদের নেই।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় অংকের ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারে ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় অংকের ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারে ফ্রান্স

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩২

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া ও উত্তরবঙ্গে শিশুদের মধ্যে অজানা জ্বর নিয়ে ক্রমেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যে জ্বরের জেরে শিশুমৃত্যুর খবর অস্বীকার করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন রাজ্যের পাঁচ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা জ্বরে শিশুমৃত্যু সংক্রান্ত সব দাবি উড়িয়ে দেন। তিনি বলেন, ‘দন্ত করে দেখেছি, যেই শিশুরা মারা গেছে, তাদের অন্য রোগ ছিল। জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি।’

এদিকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে আরও তিন শিশুর মৃত্যুর খবর মিলেছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার স্বাস্থ্যভবন থেকে বিশেষ দল যাচ্ছে উত্তরবঙ্গে। এর আগে জলপাইগুড়ি হাসপাতালে তিন শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছিল। তবে এই সব শিশু অজানা জ্বরে মারা যায়নি বলে দাবি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন, উত্তরবঙ্গে অজানা জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রায় ৭৫০ জন শিশু। তার মধ্যে ছয় জন মারা গিয়েছে। শুধু মালদহ জেলাতেই ২০০-র বেশি শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

চিঠিতে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে ছাড়েননি শুভেন্দু। বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকার কোনওরকম গুরুত্ব দিচ্ছে না বিষয়টি নিয়ে। কারণ, সরকার ভবানীপুরের উপনির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত। তাই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ এবং স্বাস্থ্য প্রতিনিধিদল পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর বিশেষ অনুরোধে করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুখ মান্ডভিয়াকে চিঠি দেন শুভেন্দু অধিকারী। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪১

ইরান থেকে পাঠানো জ্বালানি তেলের বহর অবশেষে লেবাননে পৌঁছেছে। বৃহস্পতিবার প্রেস টিভির খবরে বলা হয়েছে, সিরিয়ার সমুদ্রবন্দর থেকে ট্যাংকারে করে স্থলপথে এসব তেল লেবাননে নেওয়া হয়।

লেবানিজ সংবাদমাধ্যমগুলোও জানিয়েছে, ইরানের তেল বহনকারী ট্যাংকারের বহর লেবাননের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বালবেক-হারমেল প্রদেশের হাওয়াশ আল-সাইয়েদ আলী এলাকা দিয়ে লেবাননে প্রবেশ করে।

এর আগে হিজবুল্লাহ মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ জনগণের প্রতি তেল বহনকারী ট্যাংকার বহরের কাছে ভিড় না করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, লোকজনের নিরাপত্তা এবং ট্যাংকার বহরের স্বাভাবিক চলাচলে যাতে বিঘ্ন তৈরি না হয় সেজন্য ভিড় পরিহার করতে হবে।

হিজবুল্লাহর উপমহাসচিব শেখ নাঈম কাসেম বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে ইরান থেকে তেল পাঠানোর ঘটনা রাজনৈতিক, সামাজিক ও নৈতিক দিক দিয়ে ইরান ও হিজবুল্লাহর জন্য বিশাল অর্জন।

আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে ইরান থেকে তেলবাহী জাহাজ লেবাননের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ জাহাজটিকে সমুদ্রে লেবাননের ভূখণ্ড বলে ঘোষণা করেছিলেন। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৮

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ‘শিখস ফর জাস্টিস’ (এসএফজে) নামের একটি সংগঠন। দিল্লির উপকণ্ঠে কৃষক আন্দোলনের পক্ষ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা নিয়েছে দলটি।

এই কর্মসূচির জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে মোদির আসন্ন যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময়কে। সেই সময় হোয়াইট হাউসের সামনে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা রয়েছে খালিস্তানপন্থী সংগঠনটির।

কৃষকদের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে সন্ত্রাস চালাচ্ছে দিল্লির শাসকগোষ্ঠী। এমন অভিযোগে মোদির ‘রাতের ঘুম কেড়ে নেওয়া’র হুমকি দিয়েছে দলটি।

২০১৯ সালের ১০ জুলাই ‘শিখস ফর জাস্টিস’ নামের সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ভারত। দেশটির নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজনৈতিক নয় বরং পুরোপুরিভাবে ব্যবসায়িক ভিত্তিতে চলে এই সংগঠনটি। শিখ সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যে শিখস ফর জাস্টিস-এর প্রতি সমর্থন ক্রমশ কমছে, পাঞ্জাবি তরুণদের মধ্যেও প্রভাব প্রায় নেই বললেই চলে।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এই সংগঠনের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পাকিস্তান, বিশেষ করে আইএসআই এজেন্টদের ছড়াছড়ি। ভারত-বিরোধী কার্যকলাপে আর্থিক মদত যোগায় দলটি। এমনকি নেটমাধ্যমে ভারত বিরোধী পোস্ট দিতে পারলে বিদেশের কোনও দেশে নাগরিকত্ব জোগাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তরুণদের প্রভাবিত করে এই সংগঠন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর প্রথমবারের মতো দেশটি সফরে যাচ্ছেন মোদি। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্টের আয়োজনে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা ও অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গেই কোয়াড বৈঠকে হাজির থাকবেন মোদি। জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনেও অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে নরেন্দ্র মোদির।

এই পরিস্থিতিতে এসএফজে-এর হুমকিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছেন নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। সূত্রের খবর, সম্প্রতি দিল্লিতে নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছে পাঞ্জাব পুলিশ। এ সময় এসএফজে-কে নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। সেই অনুযায়ী কাজও শুরু হয়ে গেছে। সূত্র: আনন্দবাজার।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানে বাস্তববাদী ও কট্টরপন্থীদের বিরোধ বাড়ছে

তালেবান নেতাদের বিরোধ শুধুই কি জল্পনা?

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

তালেবানের অভ্যন্তরীণ বিরোধ নিয়ে মুখ খুললেন মোল্লা বারাদার

গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন মোল্লা বারাদার

ফুরিয়ে যাচ্ছে অর্থ, বিদেশে আটকা পড়ছেন শত শত আফগান কূটনীতিক

বিদেশে বিপদে পড়ছেন শত শত আফগান কূটনীতিক

তালেবানের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে বিশ্বের প্রতি আহ্বান পাকিস্তানের

তালেবান সরকারের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান পাকিস্তানের

সর্বশেষ

পিজ্জাবার্গ ও ডনমেক-এ একদিন

পিজ্জাবার্গ ও ডনমেক-এ একদিন

আল্লামা শফির মৃত্যুর এক বছর: দোয়ার অনুরোধ

আল্লামা শফির মৃত্যুর এক বছর: দোয়ার অনুরোধ

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

মাদকবিরোধী অভিযানের রাজধানীতে ৭৮ জন গ্রেফতার

মাদকবিরোধী অভিযানের রাজধানীতে ৭৮ জন গ্রেফতার

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

© 2021 Bangla Tribune