X
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

তালেবানের ভয়ে দেশ ছেড়েছেন আফগান সংগীত শিল্পীরা

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৩৩

তালেবানের ভয়ে আফগানিস্তান থেকে পালিয়ে পাকিস্তানে যেতে বাধ্য হয়েছেন অনেক আফগান সংগীত শিল্পী। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৬ আফগান শিল্পী নিজেদের উৎকণ্ঠার কথা জানান। তারা এখন পাকিস্তানে আত্মগোপনে আছেন। 

এদের মধ্যে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, আফগানিস্তানে থেকে গেলে তাকে হত্যা করা হতো। না চাইলেও পালাতে হয়েছে। আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসার পর সংগীতের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তালেবান। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত শাসনামলের সময়ও গান বাজনায় নিষেধাজ্ঞা দেয় তালেবান সরকার।

গত জুনে আফগানিস্তানের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা নাজার মুহাম্মদ হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। নাজারের পরিবার অভিযোগ করে, তাকে সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবানের সদস্যরা হত্যা করেছে। কিন্তু এ নিয়ে মুখ খোলেনি গোষ্ঠীটি।

পাকিস্তানে পালিয়ে আসাদের মধ্যে এক আফগান সংগীত শিল্পী খান (ছদ্মনাম)। ২০ বছর ধরে রাজধানী কাবুলে বিভিন্ন বিয়ের অনুষ্ঠানে গান গাইতেন তিনি। তার সুনামও রয়েছে বেশ। তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর তার সব বাদ্যযন্ত্র ভেঙে ফেলে। তাকে ধরতে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ চালায়। প্রাণ ভয়ে পরিবার নিয়ে কোনও রকম পাকিস্তানে প্রবেশ করেন তিনি। 

কাবুল থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় আফগানিস্তানের জনপ্রিয় শিল্পী আরিয়ানা সাঈদ

হাসান নামের আরেক আফগান শিল্পী পালিয়ে পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে আশ্রয় নিয়েছেন। তিনি একসময় আফগান সেনাবাহিনীর জন্য গান গাইতেন। ঠিক কতজন শিল্পী দেশ ছেড়েছেন তার সঠিক সংখ্যা জানা যায়নি।

আফগানিস্তানে গত দুই দশক ধরে পশ্চিমা-সমর্থিত সরকার ব্যবস্থায় রাজধানী কাবুল ও অন্যান্য নগরীতে গড়ে উঠেছিল সংস্কৃতি। কিন্তু ক্ষমতার পালা বদলে এখন অনেক কিছুই বদলে গেছে।

তালেবান অন্তর্বর্তী সরকার ঘোষণা করার পরই জানিয়েছে, শরিয়াহ আইন অনুযায়ীই দেশ পরিচালনা করা হবে। এরপর থেকে অনেক আফগান শিল্পী হয়তো পালিয়েছেন না হয় আফগানিস্তানেই আত্মগোপনে আছেন।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
০৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২২
তালেবানের ভয়ে দেশ ছেড়েছেন আফগান সংগীত শিল্পীরা

সম্পর্কিত

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৭

লেবাননের বৈরুতে হিজবুল্লাহ’র বিক্ষোভ কর্মসূচিতে শিয়া প্রতিবাদকারী নিহতের নিন্দা জানিয়েছে ইরান। তবে একই সঙ্গে তারা দাবি করেছে, বিক্ষোভে যারা গুলি চালিয়েছে তারা দেশদ্রোহী এবং জায়নবাদী ইসরায়েলের সমর্থনপুষ্ট। শুক্রবার ইসলামিক রিপাবলিক নিউজ এজেন্সি (ইরনা) এখবর জানিয়েছে।

গত বছর বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনার তদন্ত থেকে বিচারক তারেক বিতারকে অপসারণের দাবিতে হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট এ বিক্ষোভের ডাক দেয়। ওই বিচারকের তৎপরতাকে পক্ষপাতদুষ্ট হিসেবে আখ্যায়িত করেছে এই দুই সংগঠন। বিক্ষোভকারীরা তাকে মার্কিন দাস হিসেবে অভিযুক্ত করেছে। বিক্ষোভে একদল অস্ত্রধারী গুলি চালায়। এতে সাত জন নিহত ও ৬০ জন আহত হয়। 

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খতিবজাদেহ বলেন, ইরান বিশ্বাস করে লেবাননের জনগণ, সরকার, সেনাবাহিনী ও প্রতিরোধ বাহিনী জায়নবাদী দেশের সমর্থনে বিদ্রোহকে সফলভাবে মোকাবিলা করবে।

মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটর-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিক্ষোভে গুলি চালিয়েছে উগ্রপন্থী খ্রিস্টিয়ান লেবানিজ ফোর্সেস পার্টির সদস্যরা। এর নেতৃত্বে রয়েছে সামির গায়েগিয়া।

বৃহস্পতিবারের সহিংসতায় নিহতদের স্মরণে শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) জাতীয়ভাবে শোক দিবস পালন করেছে লেবানন। দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী। লেবাননকে সহিংসতার দিকে টেনে নেওয়ার অপচেষ্টার বিরুদ্ধে তিনি সতর্ক থাকতে বলেছেন।

/এএ/

সম্পর্কিত

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৫

চীনে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত লিঙ্কডইনের পরিষেবা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। বৃহস্পতিবার এক ব্লগ পোস্টে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, নতুন এই সিদ্ধান্ত এই বছরের শেষ দিক থেকে কার্যকর হবে। মূলত চীন সরকারের নানা সেন্সরশিপের ফলে টিকে থাকতে ব্যর্থ হওয়ায় এই পদক্ষেপ নিয়েছে মাইক্রোসফট।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, চীনে উল্লেখযোগ্যভাবে আরও চ্যালেঞ্জিং কর্ম পরিবেশ এবং নিয়মাবলী পালনের প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধির ফলে তাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, ‘আমরা দেখলাম যে চীনে লিঙ্কডইনের স্থানীয় সংস্করণ চালানোর অর্থ ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মে বেইজিং-এর নিয়মকানুন মেনে চলা। যদিও আমরা দৃঢ়ভাবে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে সমর্থন করি, কিন্তু আমরা চীন এবং বিশ্বজুড়ে আমাদের সদস্যদের জন্য একটি মান রক্ষা করার জন্য এই পদ্ধতি গ্রহণ করেছি।’

দৃশ্যত চীন সরকারের সেন্সরশিপ বা রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণের বোঝা লিঙ্কডইনের জন্য অনেক বেশি হয়ে গিয়েছিল।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানটিকে বছরের শুরুর দিকে আরও সচেতন হতে বলে বেইজিং। পরে সংস্থাটি চীনের নিয়ন্ত্রকদের দ্বারা নিষিদ্ধ কিছু বিষয়বস্তু ও প্রোফাইল ব্লক করা শুরু করে, যার মধ্যে সাংবাদিকদের প্রোফাইলও রয়েছে।

সংস্থাটি বলছে, ‘আমরা চীনের সদস্যদের চাকরি ও অর্থনৈতিক পন্থা খুঁজে পেতে সাহায্য করার ক্ষেত্রে সাফল্য পেয়েছি। তবে তথ্য ভাগাভাগি ও তথ্য জানার ক্ষেত্রে সামাজিক দিকগুলোতে সেই একই ধরণের সাফল্য পাইনি।’

রয়টার্স জানিয়েছে, লিঙ্কডইন চীনের বাজার পুরোপুরিভাবে ছাড়ছে না। তারা এখন ইনজবস নামে একটি চাকরির সংস্করণ চালু করবে। এতে সোশ্যাল ফিড এবং কোনও ধরনের আর্টিকেল পোস্ট করা বা শেয়ারের অপশন থাকবে না।

লিঙ্কডইন ছিল একমাত্র যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট যা এখন পর্যন্ত চীনের মানুষ ব্যবহার করতে পারে।

মাইক্রোসফট ২০১৬ সালে কোম্পানিটি কিনে নেয় এবং সাইটটি ৭৭ কোটি ৪০ লাখ মানুষ ব্যবহার করছে। সূত্র: ভিওএ, রয়টার্স।

/এমপি/

সম্পর্কিত

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৮

অধিকৃত কাশ্মিরের পুঞ্চ জেলায় বৃহস্পতিবার অভিযানে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া দুই ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের ৪৮ মধ্যে শনিবার তাদের মরদেহ উদ্ধার করতে সমর্থ হয় সেনাসদস্যরা। এ নিয়ে সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই বিশেষ অভিযানে ৯ ভারতীয় জওয়ান নিহত হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় বাহিনীর তরফে জানানো হয়, জঙ্গলের মধ্যে কাশ্মিরের স্বাধীনতার দাবিতে লড়াইরত বিদ্রোহীদের সঙ্গে গোলাগুলির সময় দুই জওয়ান আহত হয়েছে। তবে মেন্ধার সাব ডিভিশন এলাকার জঙ্গলে বিদ্রোহীরা লুকিয়ে থাকার আশঙ্কায় সেখান থেকে নিখোঁজদের উদ্ধার তৎপরতায় বেগ পেতে হয় সেনাদের। শেষ পর্যন্ত ওই জঙ্গল থেকেই নিখোঁজ দুই সেনার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কাশ্মিরে প্রায় সপ্তাহব্যাপী চলমান এই অভিযানে দিল্লির তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও বিদ্রোহীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। তবে ভারতের বিরুদ্ধে গত সপ্তাহে কাশ্মিরে অন্তত ১০ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা এবং সহস্রাধিক মানুষকে আটকের অভিযোগ করেছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আছিম ইফতিখার আহমেদ দাবি করেন, নিহতদের মরদেহ এমনকি পরিবারের সদস্যদের কাছেও হস্তান্তর করা হয়নি। কাশ্মিরের মানুষের মানবাধিকার রক্ষায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৫

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সমর্থনপুষ্ঠ সশস্ত্র গোষ্ঠী পিউ সাউ হতে’র অন্তত ৩০ সদস্য দেশটির বিদ্রোহীদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। বৃহস্পতিবার ইয়াউ অঞ্চলে সেনাবাহিনীর দেওয়া অস্ত্র জমা দিয়ে তারা আত্মসমর্পণ করে। দেশটির সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার নাউ এখবর জানিয়েছে।

ইয়াউ ডিফেন্স ফোর্স (ওয়াইডিএফ)-এর হামলার মুখে মাগওয়ায় অঞ্চলে হতিলিন টাউনশিপে গোষ্ঠীটি আত্মসমর্পণ করে। ওয়াইডিএফ’র এক কর্মকর্তা জানান, ওই গোষ্ঠীটি সেনাবাহিনীর কাছ থেকে কোনও সুরক্ষা পাচ্ছিল না। তিনি বলেন, আমরা এখনও তাদের নজরদারিতে রেখেছি। আমরা এখনও তাদের বিশ্বাস করতে পারছি না। তারা কাছের গ্রাম থেকে এসেছে।

১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর পিউ সাউ হতে গোষ্ঠী গঠিত হয় জান্তার সমর্থকদের নিয়ে। এদের লক্ষ্য ছিল সামরিক হুমকি ও সহিংসতার মাধ্যমে শাসকবিরোধী বাহিনীকে দমন করা। এই গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে সাগাইং ও মান্দালয়ে বেসামরিক ব্যক্তিদের হত্যার হুমকি দেওয়অ হয়েছে।

ওয়াইডিএফ জানায়, ই্য়াউ অঞ্চলে যারা আত্মসমর্পণ করেছে তারা জনগণের পক্ষে দাঁড়াতে অঙ্গীকারপত্রে স্বাক্ষর করেছে।

রবিবার ওয়াইডিএফ যোদ্ধারা গোষ্ঠীটির সদস্যদের অস্ত্র বহনের সময় বাধা দেয়। এতে গোষ্ঠীর এক সদস্য নিহত হয় ও ২০টি অস্ত্র জব্দ করে ওয়াইডিএফ।

অবশ্য ১৫ সেপ্টেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে সামরিক সরকারের মুখপাত্র ঝাউ মিন তুন দাবি করেছেন, সেনাবাহিনী পিউ সাউ হতে গোষ্ঠী গঠন করেনি এবং গোষ্ঠীটি তাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র পায়নি।

 

 

/এএ/

সম্পর্কিত

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৯

ইয়েমেনের সরকারের সমর্থনে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটের হামলায় অন্তত ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়েছে। মারিব শহরের দক্ষিণাঞ্চলে এই হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছে জোটটি। সরকারপন্থীরা বলে আসছিলেন, শহরের এই অঞ্চলে হুথিরা অগ্রসর হচ্ছিল। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এখবর জানিয়েছে।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) জোট কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে লিখেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আবদিয়াতে আমরা ৩২টি হামলা চালিয়েছি। ১১টি সামরিক যান ধ্বংস হয়েছে এবং ১৬০ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।

এমন হামলায় ক্ষয়ক্ষতি ও হতাহত নিয়ে সাধারণত হুথিদের পক্ষ থেকে মন্তব্য করা হয় না। সৌদি জোটের এই দাবি এএফপির পক্ষ থেকে স্বতন্ত্রভাবে নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

জোটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সোমবার থেকে মারিবের সংঘর্ষে তাদের বিমান হামলায় সাত শতাধিক ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়।

মারিব থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে আবদিয়া। এটি আন্তর্জাতিক সমর্থিত ইয়েমেন সরকারের সর্বশেষ শক্তিশালী ঘাঁটি। সরকারের এক সূত্র জানায়, বিদ্রোহীরা চার সপ্তাহ ধরে অবরোধ অব্যাহত রাখার পর এখন আবদিয়া জেলার কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, বিদ্রোহীরা সরকার সমর্থকদের অপহরণ, বন্দি ও নির্যাতন করছে। গত ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ২০ জন সরকার সমর্থক ও উপজাতি ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তান এয়ারলাইনকে নিষিদ্ধের হুমকি তালেবানের

পাকিস্তান এয়ারলাইনকে নিষিদ্ধের হুমকি তালেবানের

কাবুলে ড্রোন হামলায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব ওয়াশিংটনের

কাবুলে ড্রোন হামলায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব ওয়াশিংটনের

মসজিদে হামলার দায় স্বীকার আইএসের, নিহত বেড়ে ৪৭

মসজিদে হামলার দায় স্বীকার আইএসের, নিহত বেড়ে ৪৭

যুদ্ধের মূল্য দিতে হচ্ছে ‘বিয়ে’ করে

যুদ্ধের মূল্য দিতে হচ্ছে ‘বিয়ে’ করে

সর্বশেষ

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে ইরান যাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে ইরান যাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

শঙ্কা কেটে গেছে, মাহমুদউল্লাহকে নিয়েই শুরু বিশ্বকাপ

শঙ্কা কেটে গেছে, মাহমুদউল্লাহকে নিয়েই শুরু বিশ্বকাপ

© 2021 Bangla Tribune